ই-পেপার সোমবার ২৭ মে ২০১৯ ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬
ই-পেপার সোমবার ২৭ মে ২০১৯

বিদেশে তারাবি পড়িয়ে মুগ্ধতা ছড়াচ্ছেন  বাংলাদেশি হাফেজরা
হাসান আল মাহমুদ
প্রকাশ: বুধবার, ১৫ মে, ২০১৯, ১২:০০ এএম আপডেট: ১৫.০৫.২০১৯ ১২:৩৮ এএম | প্রিন্ট সংস্করণ

বিদেশে তারাবি পড়িয়ে মুগ্ধতা ছড়াচ্ছেন  বাংলাদেশি হাফেজরা

বিদেশে তারাবি পড়িয়ে মুগ্ধতা ছড়াচ্ছেন  বাংলাদেশি হাফেজরা

হিফজুল কোরআন চর্চায় বাংলাদেশ এখন বিশ্বের রোল মডেল। প্রায় প্রতিবছরই আন্তর্জাতিক হিফজুল কোরআন প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশের হাফেজরা বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হচ্ছেন। দেশের পতাকা ওড়াচ্ছেন তারা বিশ^ দরবারে। আন্তর্জাতিক অঙ্গনে তারাবিতেও পড়েছে বাংলাদেশি হাফেজদের সাড়া। নানা দেশে পবিত্র রমজান মাসে তারাবি নামাজের ইমামতিতে আমন্ত্রণ পাচ্ছেন বাংলাদেশের অসংখ্য হাফেজ। পাঁচটি দেশে নামাজ পড়াতে যাওয়া বাংলাদেশি ইমামদের নিয়ে এ আয়োজন সাজিয়েছেন- হাসান আল মাহমুদ
 কাতারে তারাবি পড়ান নরসিংদীর হাফেজ মোহাম্মাদুল্লাহ
কাতারের রাজধানী দোহায় ধর্ম মন্ত্রণালয়ের অধীন ‘মসজিদে শাফি রাইয়ানে’ তৃতীয়বারের মতো এবারও তারাবি নামাজের ইমামতি করছেন বাংলাদেশি হাফেজ শায়েখ ক্বারী মোহাম্মাদুল্লাহ বিন হাফিজ। তিনি নরসিংদী জেলার শিবপুরের বাসিন্দা। নরসিংদীর রায়পুরা দক্ষিণ মির্জানগর মাদ্রাসা থেকে হিফজ সমাপন করে ১৯৯৯ সালে কওমি শিক্ষার দাওরায়ে হাদিস পর্যন্ত পড়ালেখা করেন। বাংলাদেশ থেকে তিনি ইন্টারভিউতে উত্তীর্ণ হয়ে ওই মসজিদের ইমাম হিসেবে নিয়োগ হন।
সময়ের আলোকে তিনি বলেন, কাতারে আসার পর আমি সর্বপ্রথম বাংলাদেশি ক্বারী হিসেবে কাতারের জাতীয় রেডিও চ্যানেলে তেলাওয়াত করার সুযোগ পেয়েছি। কাতারিরা বাংলাদেশি হাফেজদের অনেক মূল্যায়ন করেন। তাদের কাছে বাংলাদেশি হাফেজদের তেলাওয়াতের মান অন্যান্য দেশের তুলনায় অগ্রগামী।

সৌদি আরবে তারাবি পড়ান ঢাকার হাফেজ সাদ সাইফুল্লাহ
সৌদি আরবের তায়েফ শহরে ‘মসজিদে তামিম দারি’ তে দুই বছর যাবত তারাবি পড়াচ্ছেন বাংলাদেশি হাফেজ সাদ সাইফুল্লাহ মাদানী। তিনি রাজধানী ঢাকার লালবাগের বাসিন্দা। বাংলাদেশ থেকে হিফজ সমাপন করে তিনি সৌদি আরবের একটি বিশ^বিদ্যালয়ে আরবি সাহিত্যে অধ্যয়নরত। এ ছাড়া তিনি সৌদি আরবের জনপ্রিয় আলিফ আলিফ এফএম রেডিওতে তেলাওয়াত করেন।
তিনি বলেন, অনলাইনে ইন্টারভিউতে উত্তীর্ণ হয়ে আমি এই মসজিদে আমন্ত্রিত হই। নবীজির স্মৃতি বিজরিত তায়েফবাসীরা বাংলাদেশি হাফেজদের যথেষ্ট কদর করেন। পবিত্র হারামাইনের ইমাম হয়ে বাংলাদেশের নাম বিশ^ দরবারে উচ্চকিত করা আমার স্বপ্ন।

রাশিয়ায় তারাবি পড়ান বাগেরহাটের হাফেজ শোয়াইব
রাশিয়ার মস্কো শহরে অবস্থিত ভোনোকোভা জামে মসজিদে তারাবির নামাজ পড়াচ্ছেন বাংলাদেশি হাফেজ শায়খ শোয়াইব মোহাম্মাদ আল আযহারী। তিনি বাগেরহাট জেলার বাসিন্দা। বাংলাদেশ থেকে হিফজুল কোরআন ও দাওরায়ে হাদিস সমাপন করে মিসরে আল-আযহার বিশ্ববিদ্যালয়ে অনার্স পাস করেন।
তিনি বলেন, আমি প্রথমে মিসরের কায়রো শহরে তারাবি পড়াই, তারপর সৌদি আরবে এবং ২০১৯ সাল থেকে আমন্ত্রিত হয়ে রাশিয়ায় তারাবি পড়াচ্ছি। তিনি আরও বলেন, রাশিয়ার সংখ্যাগরিষ্ঠ লোক অমুসলিম। তবে এখানকার মুসলমানরা কোরআনের প্রতি অপরিসীম ভালোবাসা রাখেন। বাংলাদেশি হাফেজদের তারা রত্ম মনে করেন।

দুবাইয়ে তারাবি পড়ান সিলেটের হাফেজ সাঈদ
সংযুক্ত আরব আমিরাতের আজমান যুবরাজের মায়ের নামে ‘আমিনা আল গুর’ মসজিদে তৃতীয়বারের মত এবারও তারাবি পড়াচ্ছেন বাংলাদেশি হাফেজ শায়েখ সাঈদ বিন জামিল। সিলেটে তার জন্ম। তিনি বলেন, দুবাই শাসকের কার্যালয় থেকে আমন্ত্রিত হয়ে ওই মসজিদে আমি ইমাম হিসেবে নিয়োগপ্রাপ্ত হই। বাংলাদেশি হাফেজদের তেলাওয়াত দুবাই রাজ পরিবারের একান্ত পছন্দ।

জাপানে তারাবি পড়ান মুন্সীগঞ্জের হাফেজ আরাফাতুল্লাহ
জাপানের রাজধানী টোকিওর মিসাতো মসজিদে দুই বছর যাবত তারাবি পড়াচ্ছেন বাংলাদেশি হাফেজ আরাফাতুল্লাহ। মুন্সীগঞ্জের চাপযশলং গ্রামের বাসিন্দা তিনি। বাংলাদেশ থেকে ১৯৯৪ সালে হিফজুল কোরআন ও জামিআতুস সাহাবা উত্তরা থেকে ২০০৮ সালে দাওরায়ে হাদিস সমাপন করেন। পাশাপাশি ইসলামিক ইউনিভার্সিটি কুষ্টিয়ার অধীন ফাজিল-অনার্সও করেন।
তিনি বলেন, জাপান ব্যবসায়ী কমিটি অনলাইনে ইন্টারিভিউতে আমার আরবি, ইংরেজি ও উর্দুভাষায় বক্তব্যের ভিডিও দেখে আমাকে আমন্ত্রণ জানান। এখানে আমার মুসল্লিদের মধ্যে বাংলাদেশি, পাকিস্তানি, ভারতী, মিসরীয়সহ বিভিন্ন দেশের মানুষ থাকেন, তাই জুমায় আমাকে চার ভাষায় আলোচনা করতে হয়। বাংলাদেশি হাফেজদের এখানে অমুসলিমরাও সম্মান করেন।





সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : রফিকুল ইসলাম রতন
আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ।
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]