ই-পেপার বৃহস্পতিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ৪ আশ্বিন ১৪২৬
ই-পেপার বৃহস্পতিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯

রমনা বটমূলে বোমা হামলা
বিস্ফোরক মামলার আরও তিনজনের সাক্ষ্যগ্রহন
আদালত প্রতিবেদক
প্রকাশ: বুধবার, ২২ মে, ২০১৯, ৯:১২ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

বিস্ফোরক মামলার আরও তিনজনের সাক্ষ্যগ্রহন

বিস্ফোরক মামলার আরও তিনজনের সাক্ষ্যগ্রহন

রমনা বটমূলে ছায়ানটের বর্ষবরণ অনুষ্ঠানে বোমা হামলা মামলার ঘটনায় করা বিস্ফোরক আইনের মামলায় চিকিৎসকসহ আরো তিন জনের সাক্ষ্যগ্রহন করেছেন আদালত। বুধবার এ মামলায় সাক্ষ্যগ্রহনের জন্য দিন ধার্য ছিল।

এদিন এ মামলার সাক্ষী কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতালের চিকিৎসক মো. আশরাফ হোসেন, খুলনার রূপসা থানার এএসআই মো. আহসান আলী এবং মাদারীপুরের রাজৈর থানার এএসআই আনোয়ার হোসেন সাক্ষ্য প্রদান করেন। এসময় ঢাকার এক নম্বর দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক আবু জাফর মো. কামরুজ্জামান সাক্ষীর জবানবন্দী গ্রহন করেন। 

সাক্ষীদের জবানবন্দী গ্রহন শেষে আসামি পক্ষের আইনজীবীরা তাদেরকে জেরা করেন। বিচারক পরবর্তী সাক্ষ্যগ্রহনের জন্য বৃহস্পতিবার দিন ধার্য করেন। 

এ নিয়ে মামলাটিতে অভিযোগপত্রভুক্ত ৮৪ জন সাক্ষীর মধ্যে ৩৪ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ সম্পন্ন করেছেন আদালত।

প্রসঙ্গত, ২০০১ সালের ১৪ এপ্রিল বাংলা ১৪০৮ সনের ১ বৈশাখ ছায়ানটের বর্ষবরণ অনুষ্ঠান চলাকালে জঙ্গিদের বোমা হামলায় প্রাণ হারান ১০ জন। এ ঘটনায় নীলক্ষেত পুলিশ ফাঁড়ির সার্জেন্ট অমল চন্দ্র ওই দিনই রমনা থানায় হত্যা ও বিস্ফোরক আইনে দুটি মামলা করেন। ২০০৮ সালের ২৯ নভেম্বর হুজি নেতা মুফতি আবদুল হান্নানসহ ১৪ জনকে অভিযুক্ত করে সিআইডির পরিদর্শক আবু হেনা মো. ইউসুফ আদালতে সম্পুরক অভিযোগপত্র দাখিল করেন। ২০০৯ সালের ১৬ এপ্রিল আসামিদের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক আইনে অভিযোগ গঠন করা হয়। দীর্ঘ প্রায় পাঁচ বছর উচ্চ আদালতের আদেশে স্থগিত থাকার পর বিস্ফোরক আইনের মামলার বিচার শুরু হয় ২০১৪ সালের  ১৭ জুলাই। এছাড়া হত্যা মামলার রায়ে ২০১৪ সালের ২৩ জুন মুফতি হান্নানসহ ৮ জনের ফাঁসি ও ৬ জনকে যাবজ্জীবন কারাদন্ডের আদেশ প্রদান করেন ঢাকার অন্য একটি আদালত।




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : রফিকুল ইসলাম রতন
আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ।
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]