ই-পেপার বৃহস্পতিবার ২৭ জুন ২০১৯ ১৩ আষাঢ় ১৪২৬
ই-পেপার বৃহস্পতিবার ২৭ জুন ২০১৯

আশুলিয়ায় তিতাস গ্যাসের পাইপের উপর ওভার ব্রীজের পিলার ; দূর্ঘটনার আশঙ্কা
সাভার প্রতিনিধি
প্রকাশ: রোববার, ২৬ মে, ২০১৯, ২:১৯ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

আশুলিয়ায় তিতাস গ্যাসের পাইপের উপর ওভার ব্রীজের পিলার ; দূর্ঘটনার আশঙ্কা

আশুলিয়ায় তিতাস গ্যাসের পাইপের উপর ওভার ব্রীজের পিলার ; দূর্ঘটনার আশঙ্কা

নবীনগর-চন্দ্রা মহাসড়কের সাভারের আশুলিয়ার বাইপাইলে তিতাস গ্যাসের মেইন লাইনের পাইপের উপর সড়ক ও জনপথ নির্মাণ করেছে ফুটওভার ব্রীজের পিলার। ব্রীজের খুটির চাঁপে তিতাসের গ্যাসের মেইন লাইনের পাইপটি রয়েছে চরম ঝুঁকিতে এবং যেকোন সময় ঘটতে পারে দূর্ঘটনা। ফলে ঢাকা ইপিজেড সহ উত্তরাঞ্চলের গ্যাস সংযোগ বন্ধ হয়ে যেতে পারে।

সড়ক ও জনপথ কর্তৃপক্ষের অবহেলা এবং স্বেচ্ছাচারিতায় গ্যাস পাইপলাইনের উপর ফুটওভার ব্রীজের পিলার নির্মাণ করেছেন বলে অভিযোগ স্থানীয়দের।

এরই মধ্যে আশুলিয়ার বাইপাইল বাস স্ট্যান্ডের আজিজ সিএনজি পাম্পের পূর্ব পাশে তালুকদার মার্কেট ও খোদেজা মার্কেট সংলগ্ন ওভারব্রীজের পিলারের ঢালাই কাজ করছেন ঠিকাদারের লোকজন।

নবীনগর-চন্দ্রা মহাসড়কের বাইপাইলে রাস্তার উভয়পাশেই তিতাস গ্যাসের ১৬ এবং ২০ ইঞ্চি পাইপ দিয়ে গ্যাস সরবরাহ সচল রয়েছে। এর ওপর নিন্মমানের সামগ্রী দিয়ে ওভারব্রীজের খুঁটির ঢালাই করেছেন বলে জানিয়েছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা।

তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন এন্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোং লি: এর উপ-মহাব্যবস্থাপক মো: সফিকুল ইসলাম সময়ের আলোকে জানান, তিতাসের পাইপের উপর ওভারব্রীজের পিলার করার কোন নিয়ম নেই। এতে অনেক ঝুঁকি রয়েছে। যেকোন সময় দূর্ঘটনা ঘটতে পারে। এছাড়া আপনাদের মাধ্যমে জানতে পারলাম, আমি এখনই ঘটনাস্থলে লোক পাঠাচ্ছি।

এব্যাপারে সড়ক ও জনপদ বিভাগ (মানিকগঞ্জ) নির্বাহী প্রকৌশলী মো: এমদাদ হোসেন সময়ের আলোকে জানান, ওভারব্রীজের পিলার ফাউন্ডেশনের নিচে রয়েছে তিতাস গ্যাসের পাইপ। তাই এতে কোন ঝুঁকির সম্ভাবনা নেই।

কোন ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান কাজটি করছেন এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান, ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের নাম এই মুহুর্তে আমার মনে নেই।





সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : রফিকুল ইসলাম রতন
আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ।
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]