ই-পেপার মঙ্গলবার ২৫ জুন ২০১৯ ১১ আষাঢ় ১৪২৬
ই-পেপার মঙ্গলবার ২৫ জুন ২০১৯

স্ত্রীর নির্যাতনের শিকার পুলিশ
কনস্টেবল বিচার চাইলেন আদালতে
নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল
প্রকাশ: মঙ্গলবার, ১১ জুন, ২০১৯, ৮:৫৫ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

স্ত্রীর নির্যাতনের শিকার পুলিশ

স্ত্রীর নির্যাতনের শিকার পুলিশ

স্ত্রীর নির্যাতনের শিকার হয়ে বরিশাল আদালতে বিচার চেয়েছেন পুলিশ এক কনস্টেবল। ফেসবুকে পরিচয়ের সুবাদে হৃদয়ঘটিত সম্পর্কে জড়িয়ে প্রায় ৯ মাস আগে ওই নারীকে বিয়ে করেছিলেন তিনি। গত সোমবার নির্যাতনে অতিষ্ঠ হয়ে বরিশাল অতিরিক্ত চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে স্ত্রীর বিরুদ্ধে মামলা করেছেন তিনি। মামলার অভিযোগ তদন্ত করে প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য বরিশাল সদর উপজেলার কাশিপুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যানকে নির্দেশ দিয়েছেন সংশ্লিষ্ট আদালতের বিচারক মারুফ আহম্মেদ। ভুক্তভোগী স্বামী কনস্টেবল জিয়াদ খান পুলিশের বরিশাল রেঞ্জ রিজার্ভ ফোর্সে (আরআরএফ) কর্মরত রয়েছেন বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে।

আলোচিত এই মামলাটিতে বিবাদী করা হয়েছে- জিয়াদ খানের স্ত্রী জান্নাতুল নাইমা ইতি, শাশুড়ি জাহানারা বেগম, শ্যালিকা ফাতেমা মুক্তি এবং শ্যালক মোহন পঞ্চায়েতকে। জান্নাতুল বরিশাল সদর উপজেলার কাশীপুর ইউনিয়নের বিল্ববাড়ি গ্রামের নাছির পঞ্চায়েতের মেয়ে।

মঙ্গলবার বিকেলে মামলাটির বরাত দিয়ে আদালতের বেঞ্চ সহকারী মো. জহিরুল ইসলাম সময়ের আলোকে জানান, ফেসবুকের মাধ্যমে জান্নাতুল ও জিয়াদ খানের পরিচয় হয়। গত ২৪ সেপ্টেম্বর জিয়াদকে জিম্মি করে বিয়ের কাবিন করেন জান্নাতুল। এরপর আরআরএফ পুলিশ লাইন্স সংলগ্ন সুলতান গাজীর বাসা ভাড়া নিয়ে তারা বসবাস শুরু করেন। গত ১১ এপ্রিল রাতে অন্য আসামিরা তার বাসায় বেড়াতে গেলে তাদের উপস্থিতিতে স্ত্রী জান্নাতুল স্বামীর কাছে ১০ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করেন। টাকা দিতে অস্বীকার করায় বাসায় রাখা নগদ এক লাখ ২০ হাজার টাকাসহ অন্যান্য মূল্যবান মালামাল নিয়ে জান্নাতুল বাবার বাড়িতে চলে যান।

পরবর্তীতে জিয়াদ জান্নাতুলকে ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করলে তিনি ১০ লাখ টাকা দাবি করেন বলে অভিযোগে তুলে ধরা হয়েছে।’





সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : রফিকুল ইসলাম রতন
আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ।
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]