ই-পেপার শুক্রবার ২১ জুন ২০১৯ ৬ আষাঢ় ১৪২৬
ই-পেপার শুক্রবার ২১ জুন ২০১৯

বৃষ্টিতে ভেসে গেল জয়ের আশা
ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশ: বুধবার, ১২ জুন, ২০১৯, ১২:০০ এএম আপডেট: ১২.০৬.২০১৯ ১২:১৮ এএম | প্রিন্ট সংস্করণ

বৃষ্টিতে ভেসে গেল জয়ের আশা

বৃষ্টিতে ভেসে গেল জয়ের আশা

দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে দুর্দান্ত জয়ে শুরু বাংলাদেশের বিশ্বকাপ মিশন। কিন্তু পরের দুই ম্যাচে মিলেছে পরাজয়ের তিক্ত স্বাদ। নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে মাশরাফি বিন মর্তুজার দল নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে লড়াই করলেও জয়টাকে মুঠোবন্দি করতে পারেনি। তৃতীয়টিতে স্বাগতিক ইংল্যান্ডের বিপক্ষে অসহায় আত্মসমর্পণের গল্প, তবে তা খুব বেশি অপ্রত্যাশিত ছিল না। তবে দুঃস্মৃতি পেছনে ফেলে দারুণ কিছু করার প্রত্যাশা ছিল চতুর্থ ম্যাচে। উপমহাদেশের দল শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ওই ম্যাচটিতে জয় ছিনিয়ে নেওয়ার আশায় ছিল বাংলাদেশ। তাদের সেই আশা ভাসিয়ে নিয়ে গেল বৃষ্টি।
মঙ্গলবার ব্রিস্টলের কাউন্টি গ্রাউন্ডে মুখোমুখি হওয়ার কথা ছিল উপমহাদেশের দুই দল বাংলাদেশ আর শ্রীলঙ্কার। ম্যাচের আগের দিনই (সোমবার) আবহাওয়াবিদরা জানিয়েছিলেন, বৃষ্টি বাগড়া দেবে খেলায়, পরিত্যক্ত হতে পারে চলতি বিশ্বকাপের ১৬তম ম্যাচটি। হলোও তাই। ব্রিস্টল শহরে কয়েকদিন আগ থেকে শুরু হওয়া বৃষ্টি মঙ্গলবারও হতাশ করেছে দুই দলের খেলোয়াড়দের। ম্যাচের দিন সকাল থেকে যেন আরও বেশি গর্জে ওঠে সেখানকার আকাশ।
কখনও হয়েছে অবিরাম বর্ষণ, কখনওবা গুঁড়ি গুঁড়ি। মঙ্গলবার ব্রিস্টলের আকাশ খেলা মাঠে গড়ানোর মতো পরিস্থিতিই তৈরি হতে দেয়নি। ক্রমাগত বৃষ্টিতে মাঠ হয়ে যায় খেলার অনুপযোগী। যা দেখে আম্পায়ার এবং ম্যাচ রেফারি আগেভাগেই বুঝে যানÑ অপেক্ষা করে লাভ নেই। তাই তো বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা ৭টার দিকে ম্যাচটি পরিত্যক্ত ঘোষণা করেন তারা। এ নিয়ে বাতিল হলো চলতি বিশ্বকাপের তিনটি ম্যাচ। অতীতের কোনো বিশ^কাপেই দুটোর বেশি ম্যাচ পরিত্যক্ত হওয়ার নজির নেই। ব্রিস্টলের এই ভেন্যুর আগের ম্যাচটিও (প্রতিপক্ষ ছিল পাকিস্তান আর শ্রীলঙ্কা) বৃষ্টিতে পরিত্যক্ত হয়েছিল। সোমবার পরিত্যক্ত হয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা আর ওয়েস্ট ইন্ডিজের মধ্যকার ম্যাচটি।
মঙ্গলবার বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা ম্যাচ পরিত্যক্ত ঘোষণা করার পর মাঠের আম্পায়ার রিচার্ড ক্যাটেলবোরো বলেছেন, ‘যত তাড়াতাড়ি সম্ভব খেলা শুরুর চেষ্টা করি আমরা, আমাদের মূল লক্ষ্য এটাই। কিন্তু তুমুল বৃষ্টিতে দিনটা ভেসে গেছে। আমাদের সবকিছু প্রস্তুত ছিল (প্রটোকল) এবং ১৬টা ১৭ মিনিটের মধ্যে (স্থানীয় সময়) আমাদের খেলা শুরু করতে হত। তবে গ্রাউন্ডম্যানরা জানান, আড়াই থেকে তিন ঘণ্টা সময় লাগবে মাঠ প্রস্তুত করতে যদি বৃষ্টি থামে, কিন্তু তা আর থামেনি।’
এদিকে বৃষ্টির কারণে ১ পয়েন্ট বাড়ায় টেবিলে একধাপ উন্নতি হয়েছে বাংলাদেশের। ৪ ম্যাচে ৩ পয়েন্টে নিয়ে টাইগাররা উঠে গেছে সাতে। কিন্তু এসবে নজর নেই মাশরাফি বিন মর্তুজার। খেলতে না পারার হতাশাটাই স্পষ্টভাবে ফুটে উঠল টাইগার অধিনায়কের কণ্ঠে, ‘বিশ্বকাপে এসে খেলতে না পারাটা সব দলের জন্যই হতাশাজনক। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে আমাদের সুযোগ ছিল, কিন্তু সেটা মিস করেছি। ইংল্যান্ডের কাছেও হেরেছি। আজকে একটা সুযোগ ছিল, কিন্তু খেলতে না পেরে হতাশ হয়েছি।’
হতাশার কমতি নেই দিমুথ করুনারতেœর মধ্যেও। কারণ এখন পর্যন্ত ভেসে যাওয়া বিশ্বকাপের তিন ম্যাচের দুটোতেই ছিল শ্রীলঙ্কা। একই মাঠে গত শুক্রবার পাকিস্তানের মুখোমুখি হওয়ার কথা ছিল লঙ্কানদের। ওই ম্যাচটিও আকাশের কান্নায় টস ছাড়াই বাতিল হয়। তাই নিজেদের সময়টাকে খারাপ বলতে বাধ্য হলেন লঙ্কান অধিনায়ক, ‘আমাদের কয়েকটি ম্যাচ বৃষ্টিতে পরিত্যক্ত হয়েছে। ফলে টুর্নামেন্ট অনেক কঠিন হয়ে গেছে। এটি আমাদের জন্য খারাপ সময়।’
তবে হাল ছেড়ে দিচ্ছেন না করুনারতেœ। তার বিশ্বাস, খেলোয়াড়দের কঠোর পরিশ্রম বৃথা যাবে না এবং সামনের ম্যাচগুলোতে ঘুরে দাঁড়াবে শ্রীলঙ্কা, ‘আমাদের সামনের ম্যাচগুলোর দিকে নজর দিতে হবে। পরের ম্যাচ অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে। এ ম্যাচকে লক্ষ্য রেখে কঠোর অনুশীলন করতে হবে। অবশ্যই প্রতিটি ম্যাচে জয়ের জন্যই আমাদের খেলতে হবে। মিডল অর্ডার কঠোর পরিশ্রম করছে নিজেদের সামর্থ্য প্রমাণের জন্য। আশাবাদী, পরের ম্যাচে সফল হবে।’ এদিকে বাংলাদেশের পরের ম্যাচ টানটনের ছোট মাঠ কাউন্টি গ্রাউন্ডে। আগামী ১৭ জুন ওই ম্যাচে টাইগারদের প্রতিপক্ষ উইন্ডিজ। ম্যাচটিতে ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে দুর্দান্ত পারফরম্যান্স করা ছাড়া ভিন্ন কোনো পথ দেখছেন না মাশরাফি, ‘টানটনের মাঠ ছোট। বিশেষ করে উইন্ডিজের মতো দলকে ছোট মাঠে মোকাবেলা করা আমাদের জন্য অনেক কঠিন চ্যালেঞ্জ। তাই আমাদের সামনে দুর্দান্ত খেলা ছাড়া ভিন্ন কোনো বিকল্প পথ নেই।’
অন্যদিকে ইনজুরির দুঃসংবাদে অন্ধকারে ছেয়ে গেছে টাইগার শিবির। চোটে পড়েছেন ওয়ানডের বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। যদিও আশার বাণী শোনালেন মাশরাফি, ‘আমি মনে করি, সাকিব সেরে উঠবে। ৪-৫ দিন সময় লাগতে পারে।’





সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : রফিকুল ইসলাম রতন
আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ।
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]