ই-পেপার বৃহস্পতিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ৪ আশ্বিন ১৪২৬
ই-পেপার বৃহস্পতিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯

‘রিজার্ভ ডে’ না রাখার ব্যাখ্যা আইসিসির
ক্রীড়া ডেস্ক
প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন, ২০১৯, ১২:০০ এএম আপডেট: ১৩.০৬.২০১৯ ১:২১ পিএম | প্রিন্ট সংস্করণ

‘রিজার্ভ ডে’ না রাখার ব্যাখ্যা আইসিসির

‘রিজার্ভ ডে’ না রাখার ব্যাখ্যা আইসিসির

‘আমরা মানুষ চাঁদে পাঠাতে পারি, তাহলে কেন বিশ্বকাপের গ্রুপপর্বে রিজার্ভ ডে থাকতে পারবে না’, বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা ম্যাচ বৃষ্টিতে ভেসে যাওয়ার পর এভাবেই হতাশা প্রকাশ করেন টাইগারদের ব্রিটিশ কোচ স্টিভ রোডস। শুধু রোডস নয়, ইংল্যান্ডে বিশ্বকাপের ৩ ম্যাচ বৃষ্টিতে পরিত্যক্ত হওয়ায় হতাশ অন্যরাও। উঠিয়েছেন প্রশ্ন, কেন ‘রিজার্ভ ডে’ নেই আইসিসির মেগা ইভেন্টের গ্রুপপর্বে? এর ব্যাখ্যায় আইসিসির প্রধান কার্যনির্বাহী ডেভ রিচার্ডসন দুষলেন ইংল্যান্ডের বেরসিক বৃষ্টিকেই।

বেরসিক তো বটেই! কেননা ইংল্যান্ডে এখন চলছে গরমের মৌসুম। প্রকৃতির নিয়ম অনুযায়ী, এ সময় রৌদ্রোজ্জ্বলই থাকার কথা সেখানকার আকাশ। তাই হঠাৎ করেই আগত এই বৃষ্টিকে ‘অকালীন’ উল্লেখ করে রিচার্ডসন বলেন, ‘এটা অবশ্যই অসময়োপযোগী আবহাওয়া। জুন মাসে গড় বৃষ্টিপাতের চেয়েও দ্বিগুণ পরিমাণ বৃষ্টি বিগত কয়েকদিনে এখানে আমরা দেখলাম। অথচ যুক্তরাজ্যে জুন তৃতীয় শুষ্কতম মাস।’প্রকৃতির নিয়ম না মানা ইংলিশ আবহাওয়ার কারণে ইতোমধ্যে ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় মঞ্চে হয়ে গেছে অপ্রত্যাশিত রেকর্ড। পূর্বে ১৯৯২ এবং ২০০৩ বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ দুটি করে ম্যাচ পরিত্যক্ত হয়েছিল বৈরী আবহাওয়ার কারণে। কিন্তু ইংল্যান্ডে চলমান বিশ্বকাপে গ্রুপপর্বের প্রথম ১৬ ম্যাচের ৩টিই বাতিল হয়েছে বৃষ্টির বাগড়ায়। তাই স্বাভাবিকভাবেই প্রতিপক্ষের খেলোয়াড়দের ছাড়াও আকাশ নিয়েও ভাবতে হচ্ছে দলগুলোকে।

বিশ্বকাপের মঞ্চে এমন বাড়তি ভাবনার যন্ত্রণায় তাই অতিষ্ঠ দলগুলো। সেমিফাইনাল এবং ফাইনালের জন্য রিজার্ভ ডে থাকলেও কেন তা নেই গ্রুপপর্বে এমন প্রশ্নই ছুড়েছে আইসিসির দিকে। এর জবাবে রিচার্ডসন বলেন, ‘বিশ্বকাপের প্রতিটি ম্যাচের জন্য রিজার্ভ ডে থাকলে টুর্নামেন্টটির পরিধি অনেক বেড়ে যেত এবং তা কার্যকর করাটাও জটিল হতো। তা ছাড়া কেউ নিশ্চয়তা দিতে পারবে না, রিজার্ভ ডে বৃষ্টি মুক্ত থাকত।’

বিশ্বকাপের গ্রু পপর্বে রিজার্ভ ডে থাকার সমস্যাগুলো উল্লেখ করে আইসিসির প্রধান কার্যনির্বাহী বলেন, ‘এর প্রভাব পড়ত পিচ তৈরি, দলের প্রস্তুতি এবং ভ্রমণের দিনগুলোয়...এবং দর্শকের ওপর সবচেয়ে বড় প্রভাব ফেলত।’ বোঝাই যাচ্ছে, যতই অভিযোগ আসুক দলগুলোর পক্ষে থেকে বিশ্বকাপের মাঝপথে টুর্নামেন্টটির নিয়মে কোনো পরিবর্তন আসছেন না রিচার্ডসনরা। যা আগেই বুঝে নিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ।

তাই তো পাকিস্তানের মুখোমুখি হওয়ার আগে অজি অধিনায়ক বলেন, ‘এটা গুরুত্বপূর্ণ, শুরুতেই দলের খাতায় জয়গুলো যোগ করা কারণ বৃষ্টিতে ভেসে যাওয়ার মতো বাজে শেষ আপনি চাইবেন না। যা আপনাকে সেরা চারের বাইরে ছিটকে দিতে পারে।’




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : রফিকুল ইসলাম রতন
আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ।
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]