ই-পেপার বৃহস্পতিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ৪ আশ্বিন ১৪২৬
ই-পেপার বৃহস্পতিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯

আজ জয়রথ থামবে কার?
ট্রেন্ট ব্রিজে মুখোমুখি ভারত-নিউজিল্যান্ড
ক্রীড়া ডেস্ক
প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন, ২০১৯, ১২:০০ এএম আপডেট: ১৩.০৬.২০১৯ ১২:৪৮ পিএম | প্রিন্ট সংস্করণ

আজ জয়রথ থামবে কার?

আজ জয়রথ থামবে কার?

দুটো সপ্তাহ কাটিয়ে দিল ইংল্যান্ডে চলমান বিশ্বকাপের ১২তম আসর। ইতোমধ্যেই চুকে-বুকে গেছে ১৭টি ম্যাচের হিসাব-নিকাশ। আসরে অংশ নেওয়া ১০ দলের প্রতিটিরই একাধিক ম্যাচ খেলা হয়ে গেছে। জয়ের মধুর স্বাদ নিয়েছে তারা, পেয়েছে পরাজয়ের তিক্ততাও। পয়েন্ট টেবিলের তলানীর দুই দল আফগানিস্তান আর দক্ষিণ আফ্রিকা বন্দি হয়ে আছে পরাজয়ের বৃত্তে, আবার জয়রথে ছুটে চলেছে টেবিলের ওপরের দিকে থাকা নিউজিল্যান্ড আর ভারত। আসরের ১৮তম ম্যাচে আজ নটিংহামের ট্রেন্ট ব্রিজে যখন মুখোমুখি হচ্ছে দুদল, তখন একটি দলের জয়রথ তো থামবেই। সেই দলটি বিরাট কোহলির ভারত নাকি কেন উইলিয়ামসনের নিউজিল্যান্ড, সেটাই দেখার।

প্রকৃতি বাগড়া দিলে অবশ্য ভিন্ন কথা। ইংল্যান্ডের রহস্যময় গ্রীষ্মে বৃষ্টি ভাসিয়ে নিয়ে গেছে তিনটি ম্যাচ। আবহাওয়ার পূর্বাভাব বলছে, বৃষ্টি বাগড়া দিতে পারে ভারত-নিউজিল্যান্ড ম্যাচেও। তবে তা শেষদিকে। অর্থাৎ ম্যাচটা অন্তত মাঠে গড়াবে, সেই ম্যাচ জয়-পরাজয়ে নিষ্পত্তি হোক আর না হোক। আকাশ থাকবে মেঘাচ্ছন্ন। এমন কন্ডিশন বোলারদের পক্ষেই কথা বলবে আর কন্ডিশনের সুবিধা নেওয়ার মতো বোলার আছে দুই শিবিরেই। তাই টসজয়ী দল সম্ভবত আগে বোলিং করারই সিদ্ধান্ত নেবে, যেমনটা পাকিস্তানের বিপক্ষে ওয়েস্ট ইন্ডিজ নিয়েছিল। সেই ম্যাচে পাকিস্তানকে ১০৫ রানে গুটিয়ে দিয়ে বড় জয় তুলে নিয়েছিল ক্যারিবীয়রা।

এশিয়ার তিন দল আফগানিস্তান, শ্রীলঙ্কা আর বাংলাদেশকে হারানো নিউজিল্যান্ড এই মহাদেশের ক্রিকেট পরাশক্তি ভারতের বিপক্ষেও চোখ রাখছে জয়ে। দক্ষিণ আফ্রিকা আর অস্ট্রেলিয়াকে অনায়াসে হারিয়ে দেওয়া ভারতও জয় ছাড়া অন্য কিছু ভাবছে না। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সেঞ্চুরি হাঁকানো ওপেনার শিখর ধাওয়ান আঙুলের ইনজুরি নিয়ে তিন সপ্তাহের জন্য বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে যাওয়ার পরও লক্ষ্যে অবিচল কোহলির দল। তবে কন্ডিশন বিবেচনায় কিউইদের দুর্ধর্ষ পেস আক্রমণ নিয়ে কিছুটা হলেও দুর্ভাবনা আছে ভারতীয় শিবিরে। রোহিত শর্মা আর লোকেশ রাহুলে গড়া নতুন উদ্বোধনী জুটির কাজটা কঠিনই দেখছে তারা।

বৈশ্বিক আসরে ভারতের বিপক্ষে নিউজিল্যান্ডের রেকর্ড বেশ ভালো। এই ট্রেন্ট ব্রিজেই ১৯৯৯ বিশ্কাবপে দুই দল মুখোমুখি হয়েছিল, অনায়াসে (৫ উইকেটে) জিতেছিল কিউইরা। সেই জয়টা যদি আজ উইলিয়ামসনের দলের জন্য অনুপ্রেরণা হয় তাহলে শঙ্কিত হওয়ার মতো বিষয়ও আছে। এই ভেন্যুতে খেলা বাকি ছয় ওয়ানডের পাঁচটিতেই যে হার দেখতে হয়েছে তাদের। অন্যদিকে, বাকি পাঁচ ম্যাচে ভারত জিতেছে তিনটি। পরিসংখ্যান তাই এই ম্যাচে এগিয়ে রাখছে না কোনো দলকেই। তবে সামর্থ্য আর সম্প্রতি পারফরম্যান্স বিবেচনায় কিছুটা হলেও এগিয়ে ভারত। এমনি এমনিই তো আর কোহলির দল শিরোপার দাবিদার নয়!চোট পেয়ে নিয়মিত ওপেনার ধাওয়ান ছিটকে যাওয়ায় ভারতের একাদশে আজ একটা পরিবর্তন আসছেই। ব্যাটিং অর্ডারে চার নম্বরে দেখা যেতে পারে আগের দুই ম্যাচে একাদশের বাইরে থাকা দিনেশ কার্তিক আর বিজয় শঙ্করের মধ্যকার একজনকে। একজন রিস্ট স্পিনার কমিয়ে অতিরিক্ত পেসার হিসেবে মোহাম্মদ শামিকে খেলানোর ভাবনাও আছে ভারতীয় শিবিরে। কোনো কারণে যদি কার্তিক আর শঙ্করের দুজনকেই খেলায় টিম ম্যানেজমেন্ট, একাদশের বাইরে চলে যেতে হবে কেদার যাদবকে। অন্যদিকে উইনিং কম্বিনেশন ভাঙার কথা নয় নিউজিল্যান্ডের। শেষতক যদি তা করা হয়, মার্টিন গাপটিলের সঙ্গে ওপেনিং জুটিতে কলিন মুনরোর জায়গা নেবেন হেনরি নিকোলস। পরিস্থিতি বিবেচনায় রেখেই একাদশ সাজাবে দুই দল, তাই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হবে একেবারে শেষ মুহূর্তে। 

জাসপ্রিত বুমরাহ-ভুবনেশ্বর কুমাররা দারুণ ছন্দে আছেন। কন্ডিশন যেমনই হোক, কিউই ব্যাটসম্যানদের কঠিন পরীক্ষাই নেবেন তারা। তবে বোলিং নয়, ভারতের শক্তির জায়গা ব্যাটিং। সেই জায়গায় আঘাত হানার জন্য মুখিয়ে আছেন ট্রেন্ট বোল্ট, লুকি ফার্গুসনরাও। গতিতারকা ফার্গুসন তো ট্রেন্ট ব্রিজের গতিময় বাউন্সি পিচ নিয়ে রীতিমতো উচ্ছ্বাসিত। এখানে অনুষ্ঠিত আগের দুই ম্যাচের প্রসঙ্গ সামনে টেনে কিউই পেসার বলেছেন, ‘ওয়েস্ট ইন্ডিজের বোলাররা দেখিয়েছে ট্রেন্ট ব্রিজে পিচে কিছু বাড়তি বাউন্স আছে এবং এটা (ব্যাটসম্যানদের জন্য) সমস্যার কারণ হবে। ট্রেন্ট ব্রিজের মতো আমিও চ্যালেঞ্জটা নেওয়ার জন্য মুখিয়ে আছি।’

এখন কথা হচ্ছে, পিচের আচরণ আগের ম্যাচগুলোর মতো থাকবে তো? কানাঘোসা কিন্তু শুরু হয়ে গেছে, ভারতকে তাদের পছন্দসই পিচ দিচ্ছে আইসিসি। এমন অভিযোগ নাকি তুলেছেন পাকিস্তানের অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ। সরফরাজের ঘনিষ্ঠ সূত্রের বরাদ দিয়ে এমনটাই জানিয়েছে পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম ‘জং’।




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : রফিকুল ইসলাম রতন
আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ।
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]