ই-পেপার রোববার ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ৬ আশ্বিন ১৪২৬
ই-পেপার রোববার ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে মিথ্যাচার করেছে মিয়ানমার : পররাষ্ট্রমন্ত্রী
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন, ২০১৯, ১২:০০ এএম | প্রিন্ট সংস্করণ

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন নিয়ে মিয়ানমার ‘মিথ্যাচার’ করছে বলে অভিযোগ করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেন। তবে মিয়ানমার যতই মিথ্যা বলুক রোহিঙ্গাদের ফেরাতে হবে বলেও এ সময় উল্লেখ করেন তিনি। বুধবার সকালে রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় এই ব্রিফিংয়ের আয়োজন করা হয়। ব্রিফিংয়ে ঢাকায় থাকা বিভিন্ন দেশের দূতাবাস, হাইকমিশন ও আবাসিক কার্যালয়ের রাষ্ট্রদূত, হাইকমিশনার ও হেড অব চ্যান্সারিরা উপস্থিত ছিলেন। ব্রিফিং শেষে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেন বলেন, আমরা আমাদের অবস্থান তাদের (ক‚টনীতিকদের) জানিয়েছি এবং তারা একবাক্যে বলেছেন, আমরা আপনাদের সঙ্গে আছি। আমরা তাদের বলেছি, আপনারা মিয়ানমারে যান, রাখাইনে যান। সহায়ক পরিবেশ যাতে তারা তৈরি করে, তার জন্য চাপ আরও বৃদ্ধি করেন। মোটামুটিভাবে তারা সবাই রাজি হয়েছেন।
পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ইদানীং (রোহিঙ্গাদের মধ্যে) কিছুটা সন্ত্রাসী কর্মকাÐ শুরু হচ্ছে। এটা আমরা অনেক দিন ধরেই আঁচ করেছিলাম যে, এই বিরাটসংখ্যক লোক যদি পড়ে থাকে, তাহলে তাদের সন্ত্রাসী তৎপরতা বাড়ার আশঙ্কা আছে। এজন্য মিয়ানমারকে আবার জোর দিয়ে বলব, তোমরা তোমাদের কথা রাখো। লোকগুলোকে নিয়ে যাও। মিয়ানমার যে রিপোর্টগুলো বলছে, সেগুলো বিভিন্ন লোক দিয়ে তৈরি করছে, সবগুলো ডাহা মিথ্যা। এগুলো পৃথিবীর কেউ বিশ্বাস করে না বলেও সংবাদ সম্মেলনে জানান তিনি।
এ কে আবদুল মোমেন বলেন, আমরা আমাদের প্রতিবেশীর বিরুদ্ধে কিছু বলতে চাই না। তারা আমাদের বন্ধু। তাদের নিয়েই আলোচনার মধ্যে নিয়মের মধ্যে শান্তিপূর্ণ প্রক্রিয়া দরকার। প্রত্যাবাসনের জন্য রাখাইনে তাদের অনুক‚ল পরিবেশ তৈরি করার কথা ছিল। কিন্তু ৮০০ গ্রামের মধ্যে মাত্র দুটির পরিস্থিতি তারা ভালো দেখিয়ে বলছে, সেখানে কোনো সমস্যা নেই। তারা ‘কথা রাখেনি’।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, মিয়ানমারের বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গারা ফিরে যাক এটাই আমরা চেয়েছি। বরং মিয়ানমার বারবার কথা দিয়েও তারা কথা রাখছে না। আমরা তাদের সঙ্গে অ্যারেঞ্জমেন্ট করেছি। গত বছরের জানুয়ারি থেকে রোহিঙ্গা প্রত্যাবর্তন শুরু হওয়ার কথা ছিল। দুই বছরের মধ্যে এটা শেষ হওয়ার কথা; কিন্তু সেটা হয়নি। তারপর বলা হলো ২০১৮ সালের নভেম্বরে তারা শুরু করবে। সেটাও হয়নি। গত কিছুদিন আছে মিয়ানমারে চতুর্থ যৌথ সম্মেলনে গেলাম, তখন আমরা খুব আশাবাদী ছিলাম। বোধ হয় প্রক্রিয়াটা শুরু হলো। তা হয়নি।




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : রফিকুল ইসলাম রতন
আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ।
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]