ই-পেপার মঙ্গলবার ২৩ জুলাই ২০১৯ ৮ শ্রাবণ ১৪২৬
ই-পেপার মঙ্গলবার ২৩ জুলাই ২০১৯

নুসরাত জাহান রাফীকে পুড়িয়ে হত্যা
পরীক্ষার হলে ১৫ মিনিট দেরিতে প্রবেশ করেছে মনি ও পপি
ফেনী প্রতিনিধি
প্রকাশ: শুক্রবার, ১২ জুলাই, ২০১৯, ১২:০০ এএম আপডেট: ১১.০৭.২০১৯ ১১:৪১ পিএম | প্রিন্ট সংস্করণ

পরীক্ষার হলে ১৫ মিনিট দেরিতে প্রবেশ করেছে মনি ও পপি

পরীক্ষার হলে ১৫ মিনিট দেরিতে প্রবেশ করেছে মনি ও পপি

সোনাগাজীর মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফীকে পুড়িয়ে হত্যার মামলায় সাক্ষ্যগ্রহণ ও জেরা অব্যাহত রয়েছে। বৃহস্পতিবার মাদ্রাসা শিক্ষক আবুল খায়ের সাক্ষ্য প্রদান করেন। তিনি আদালতকে জানান, ৬ এপ্রিল পরীক্ষার হলে কামরুন নাহার মনি ও উম্মে সুলতানা পপি ১৫ মিনিট দেরীতে প্রবেশ করেছে। এ বিষয়ে তাদের জিজ্ঞেস করা হলে মনি ও পপি জানিয়েছিল, তারা বাথরুমে ছিল। তার কিছুক্ষণ পরে রাফী অগ্নিকান্ডের খবর শুনতে পান শিক্ষক আবুল খায়ের।
বৃহস্পতিবার দুপুরে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মামুনুর রশিদের আদালতে রাফীর মাদ্রাসা শিক্ষক আবুল খায়েরের সাক্ষ্যগ্রহণ ও জেরা শেষ হয়। আগামী ১৪ জুলাই আবদুল হালিম মামুন ও মো. ইউসুফ নামের দুজনের সাক্ষ্যগ্রহণের দিন ধার্য করেন আদালত। এর আগে কঠোর নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে মামলার চার্জশিটভুক্ত ১৬ আসামিকে আদালতে হাজির করা হয়। মামলার রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী হাফেজ আহম্মদ বলেন, এ পর্যন্ত ১৩ জনের সাক্ষ্য ও জেরা শেষ হয়েছে।

২৮ মে ফেনীর জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম জাকির হোসাইনের আদালতে সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসার সাবেক অধ্যক্ষ এসএম সিরাজ-উদ-দৌলা (৫৭), নুর উদ্দিন (২০), শাহাদাত হোসেন শামীম (২০), কাউন্সিলর ও সোনাগাজী পৌর আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মাকসুদ আলম ওরফে মোকসুদ কাউন্সিলর (৫০), সাইফুর রহমান মোহাম্মদ জোবায়ের (২১), জাবেদ হোসেন ওরফে সাখাওয়াত হোসেন (১৯), হাফেজ আবদুল কাদের (২৫), আবছার উদ্দিন (৩৩), কামরুন নাহার মনি (১৯), উম্মে সুলতানা ওরফে পপি ওরফে তুহিন ওরফে চম্পা/শম্পা (১৯), আবদুর রহিম শরীফ (২০), ইফতেখার উদ্দিন রানা (২২), ইমরান হোসেন ওরফে মামুন (২২), সোনাগাজী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির সাবেক সহ-সভাপতি রুহুল আমিন (৫৫), মহিউদ্দিন শাকিল (২০) ও মোহাম্মদ শামীমকে (২০) আসামি করে ৮০৮ পৃষ্ঠার অভিযোগপত্র দাখিল করেন পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) কর্মকর্তারা।

৩০ মে বিচারিক হাকিম জাকির হোসাইন অভিযোগপত্রসহ মামলার নথি ফেনীর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মামুনুর রশিদের আদালতে পাঠিয়ে দেন। ১০ জুন মামলাটির অভিযোগপত্র আদালতে গ্রহণ হয়। ২০ জুন একই আদালতে আসামিদের বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করে। ২৭ জুন মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়।




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : রফিকুল ইসলাম রতন
আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ।
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]