ই-পেপার রোববার ১৭ নভেম্বর ২০১৯ ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
ই-পেপার রোববার ১৭ নভেম্বর ২০১৯

ট্রেনের ঈদ টিকেট বিক্রি ২৯ জুলাই থেকে
বেনাপোল এক্সপ্রেসের উদ্বোধন ১৭ জুলাই
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশ: শুক্রবার, ১২ জুলাই, ২০১৯, ১২:০০ এএম আপডেট: ১২.০৭.২০১৯ ১২:০১ এএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 88

ট্রেনের ঈদ টিকেট বিক্রি ২৯ জুলাই থেকে

ট্রেনের ঈদ টিকেট বিক্রি ২৯ জুলাই থেকে

আসন্ন ঈদুল আজহা উপলক্ষে ট্রেনের অগ্রিম টিকেট বিক্রি শুরু হচ্ছে ২৯ জুলাই। এবারও একজন যাত্রী চারটির বেশি টিকেট সংগ্রহ করতে পারবেন না। ঈদুল আজহা উপলক্ষে রেলওয়ে ঈদ ব্যবস্থাপনা নিয়ে বুধবার রেলভবনে অনুষ্ঠিত বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। ২ আগস্ট পর্যন্ত এই অগ্রিম টিকেট বিক্রি করা হবে। রাজধানীর কমলাপুরসহ পাঁচটি স্থানে প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে ৪টা পর্যন্ত টিকেট বিক্রি করা হবে।

জানা গেছে, কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনে বিক্রি হবে যমুনা সেতু হয়ে সমগ্র পশ্চিমাঞ্চলগামী আন্তঃনগর ট্রেনের টিকেট, বিমানবন্দর স্টেশন থেকে দেওয়া হবে চট্টগ্রাম ও নোয়াখালীগামী সব আন্তঃনগর ট্রেনের টিকেট, তেজগাঁও স্টেশন থেকে বিক্রি করা হবে ময়মনসিংহ ও জামালপুরগামী ট্রেনের টিকেট, বনানী স্টেশন থেকে বিক্রি হবে নেত্রকোনাগামী মোহনগঞ্জ ও হাওর এক্সপ্রেসের টিকেট ও রাজধানীর ফুলবাড়িয়া (পুরনো রেলভবন) থেকে সিলেট ও কিশোরগঞ্জগামী ট্রেনের টিকেট। ঈদুল আজহা উপলক্ষে বাংলাদেশ রেলওয়ের ৮ জোড়া বিশেষ ট্রেন চলাচল করবে।

এদিকে রাজধানী ঢাকা ও বেনাপোল স্থলবন্দরের মধ্যে চালু হতে যাওয়া আধুনিক দ্রুতগামী সরাসরি ট্রেন সার্ভিসের নাম রাখা হয়েছে বেনাপোল এক্সপ্রেস। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নামটি চ‚ড়ান্ত করেছেন বলে সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে। প্রধানমন্ত্রী আগামী ১৭ জুলাই ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ঢাকা থেকে এ ট্রেনের উদ্বোধন করবেন বলে রেলপথ মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে। সূত্র জানায়, প্রাথমিকভাবে ট্রেনটির জন্য তিনটি নাম প্রস্তাব করা হয়। সেগুলো হলো বেনাপোল এক্সপ্রেস, বন্দর এক্সপ্রেস ও ইছামতি এক্সপ্রেস। এদের মধ্যে বেনাপোল এক্সপ্রেস নামটি চ‚ড়ান্ত করেন প্রধানমন্ত্রী।

উদ্বোধনের পর দুপুর সোয়া ১টায় ট্রেনটি বেনাপোল থেকে ঢাকার উদ্দেশে ছাড়বে। এতে বগি থাকবে ১২টি। ৮৯৬ আসনের ট্রেনটি প্রতিদিন বেনাপোল স্টেশন থেকে ছেড়ে যশোর, ঈশ^রদী জংশন ও ঢাকা বিমানবন্দরে যাত্রী ওঠা-নামা করার জন্য সাময়িক বিরতি দিয়ে কমলাপুর স্টেশনে পৌঁছাবে। ট্রেনে বেনাপোল থেকে ঢাকা পর্যন্ত শোভন চেয়ারের টিকেটের দাম ৫০০ টাকা, শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত (এসি) চেয়ার ১০০০ টাকা ও এসি কেবিনের দাম ১২০০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। ট্রেনটি ইতোমধ্যে পরীক্ষামূলকভাবে চালানো হয়েছে।

রেলওয়ের মহাপরিচালক মো. শামছুজ্জামান বলেন, ১৭ জুলাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রাজধানীর গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বেনাপোল এক্সপ্রেস ট্রেনের উদ্বোধন করবেন। এরপরই ট্রেনটি বাণিজ্যিকভাবে চলাচল শুরু করবে। ইন্দোনেশিয়া থেকে আমদানি করা বগির এ ট্রেনে বিমানের মতো বায়ো-টয়লেট সুবিধা রয়েছে। আসনগুলোও আধুনিক। প্রতিদিন বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ট্রেনটি বেনাপোল থেকে ঢাকার উদ্দেশে ছাড়বে। আর রাত সাড়ে ১২টার দিকে ঢাকা থেকে বেনাপোলের উদ্দেশে ছাড়বে এবং সকাল ৮টার মধ্যে বেনাপোল বন্দরে পৌঁছে যাবে।




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]