ই-পেপার শুক্রবার ১৯ জুলাই ২০১৯ ৪ শ্রাবণ ১৪২৬
ই-পেপার শুক্রবার ১৯ জুলাই ২০১৯

এ যেন ব্যাটসম্যানদের বিশ্বকাপ
আসাদুজ্জামান সুপ্ত
প্রকাশ: শুক্রবার, ১২ জুলাই, ২০১৯, ১২:০০ এএম আপডেট: ১২.০৭.২০১৯ ১২:৪৮ এএম | প্রিন্ট সংস্করণ

এ যেন ব্যাটসম্যানদের বিশ্বকাপ

এ যেন ব্যাটসম্যানদের বিশ্বকাপ

ইংল্যান্ডে ব্যাটসম্যানরা আলো ছড়াবেন সেটা বিশ্বকাপের আগেই অনুমেয় ছিল। ধারণা করা হয়েছিল, এই বিশ্বকাপেই হয়তো এক ইনিংসে পাঁচশ রানের পুঁজি গড়ার রেকর্ডও হয়ে যাবে। সেই প্রত্যাশা পূরণ না হলেও ব্যাটসম্যানরা ঠিকই আলো ছড়িয়েছেন পুরো আসর জুড়ে। প্রথমবারের মতো বিশ্বমঞ্চে ছয়জন ব্যাটসম্যান ব্যক্তিগত পাঁচশর অধিক রান করেছেন যেখানে তিন জনই ছাড়িয়েছেন ছয়শ রানের মাইলফলক। বিশ্বকাপ ইতিহাসে এর আগে এক আসরে সর্বোচ্চ তিন জন স্পর্শ করেছিলেন পাঁচশ রানের মাইলফলক। তাইতো ইংল্যান্ডের এই আসরকে ব্যাটসম্যানদের বিশ্বকাপ বলা যায় অবলীলায়।

চলমান এই আসরে নয় ম্যাচে ৬৪৮ রান করে তালিকায় সবার ওপরে আছেন (ফাইনালের আগে) ভারতের ওপেনার রোহিত শর্মা। বুধবার নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সেমিফাইনালে হেরে আসর থেকে বিদায় নেয় তারা। অস্ট্রেলিয়ার ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নার এক বছর পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরেই নিজের জাত চেনাতে ভুল করেননি। বেছে নিয়েছেন ক্রিকেটের সর্বোচ্চ এই মঞ্চকেই। ১০ ম্যাচে তার সংগ্রহ ৬৪৭ রান। সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকের তালিকার তিন নাম্বারে আছের বাংলাদেশের সাকিব আল হাসান। নিজের দল সেমিফাইনালে উঠতে ব্যর্থ হলেও পুরো রাউন্ড রবিন লিগে ব্যাট হাতে খেলেছেন দুর্দান্ত সব ইনিংস। ৮ ম্যাচে তার সংগ্রহ ৬০৬ রান। বিশ্বকাপের কোনো আসরেই একসঙ্গে তিন ব্যাটসম্যানের ছয়শ রানের কীর্তি নেই। এর আগে কেবল দুজন ব্যাটসম্যানই আলাদা দুই বিশ্বকাপে ছয়শ রান পার করতে পেরেছিলেন।

২০০৩ বিশ্বকাপে ভারতের ব্যাটিং জিনিয়াস শচিন টেন্ডুলকার সর্বপ্রথম বিশ্বকাপের মঞ্চে ছয়শ রানের মাইলফলক স্পর্শ করেন। ওই আসরে ব্যাট হাতে তার গড়া ৬৭৩ রান এখনও বিশ্বকাপের এক আসরে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ রান। ওয়েস্ট ইন্ডিজে অনুষ্ঠিত ২০০৭ বিশ্বকাপে দ্বিতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে ছয়শ রান করেন অজি ওপেনার ম্যাথু হেইডেন। ১১ ম্যাচে ৬৫৯ রান করেন তিনি। এর পরের দুই আসরে ছয়শ রান পূর্ণ করতে পারেনি কোনো ব্যাটসম্যানই।

ইংল্যান্ডে চলমান এই আসরে পাঁচশ ছাড়িয়েছেন আরও তিনজন ব্যাটসম্যান। টানা দ্বিতীয়বারের মতো ফাইনালে উন্নীত হয়েছে নিউজিল্যান্ড। আর ব্যাট হাতে দলকে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়ে যাচ্ছেন অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন। ফাইনালের এক ম্যাচ বাকি থাকতেই নয় ম্যাচে কিউই অধিনায়কের সংগ্রহ ৫৪৮ রান। অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চও পাঁচশ রানের মাইলফলক পূর্ণ করেছেন। ১০ ম্যাচে তার সংগ্রহ ৫০৭ রান। তালিকায় ৫০০ রান নিয়ে ষষ্ঠ অবস্থানে আছেন ইংলিশ টপ অর্ডার জো রুট। এই আসরে পাঁচশর পথে আছেন ইংলিশ ওপেনার জনি বেয়ারস্টোও। সেমিফাইনালের আগে নয় ম্যাচে তার সংগ্রহ ৪৬২ রান।

বিশ্বকাপের প্রথম পাঁচ আসরে কোনো ব্যাটসম্যানই পাঁচশ রানের মাইলফলক পূর্ণ করতে পারেননি। ১৯৮৭ বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের গ্রাহাম গুচ ৪৭১ রান করেই ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ রানের মালিক ছিলেন। তবে ’৯৬ বিশ্বকাপে শচিন টেন্ডুলকার প্রথমবারের মতো পাঁচশ রানের দেখা পান। ওই আসরে ৭ ম্যাচে শচিন করেন ৫২৩ রান। ’৯৯ সালের আসরও পাঁচশশূন্য ছিল। ৪৬১ রান করে সর্বোচ্চ রানের মালিক ছিলেন ভারতের রাহুল দ্রাবিড়। ২০০৩ বিশ্বকাপে শচিনের রেকর্ড ৬৭৩ রান ছাড়া কেউই পাঁচশ রানের দেখা পায়নি। ২০০৭ বিশ্বকাপে হেইডেনের ছয়শ রান ছাড়াও পাঁচশ পূর্ণ করেন আরও দুই ব্যাটসম্যান। শ্রীলঙ্কার মাহেলা জয়াবর্ধনে ১১ ম্যাচে ৫৪৮ আর অজি অধিনায়ক রিকি পন্টিং করেন ১১ ম্যাচে ৫৩৯ রান। ভারত, বাংলাদেশ আর শ্রীলঙ্কার যৌথ আয়োজনে অনুষ্ঠিত ২০১১ সালের আসরে লঙ্কান তিলেকারত্নে দিলশান ছিলেন সর্বোচ্চ রানের মালিক। ৯ ম্যাচে তার সংগ্রহ ছিল ৫০০ রান।

এই আসরে ব্যাট হাতে মুদ্রার উল্টো পিঠটাই যেন দেখলেন কিউই ওপেনার মার্টিন গাপটিল। সবশেষ ২০১৫ সালের আসরে ৯ ম্যাচে ৫৪৭ রান নিয়ে তিনিই ছিলেন সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকের তালিকার শীর্ষ স্থানে। এই আসরে ব্যাট হাতে দিয়েছেন ব্যর্থতার পরিচয়। গাপটিল ছাড়াও গত আসরে পাঁচশ রানের দেখা পেয়েছিলেন শ্রীলঙ্কার কুমার সাঙ্গাকারা। নিজের শেষ বিশ্বকাপে ব্যাট হাতে দুর্দান্ত ছিলেন তিনি। মাত্র সাত ম্যাচে ৫৪১ রান করেছিলেন লঙ্কান এই লিজেন্ড।




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : রফিকুল ইসলাম রতন
আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ।
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]