ই-পেপার মঙ্গলবার ২৩ জুলাই ২০১৯ ৭ শ্রাবণ ১৪২৬
ই-পেপার মঙ্গলবার ২৩ জুলাই ২০১৯

কে হবেন টুর্নামেন্ট সেরা
ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশ: শনিবার, ১৩ জুলাই, ২০১৯, ১২:০০ এএম আপডেট: ১৩.০৭.২০১৯ ১২:০৯ এএম | প্রিন্ট সংস্করণ

কে হবেন টুর্নামেন্ট সেরা

কে হবেন টুর্নামেন্ট সেরা

দেখতে দেখতে শেষের দিকে বিশ্বকাপ। ইংল্যান্ড-নিউজিল্যান্ডের ফাইনালের লড়াই শেষে নতুন চ্যাম্পিয়ন পেয়ে যাবে ক্রিকেট বিশ্বের সবচেয়ে বড় আর রঙিন এই মঞ্চ। তার আগে আলোচনার তুঙ্গে একটি বিষয় কে হবে টুর্নামেন্ট সেরা। আইসিসি কিন্তু প্রকাশ করে দিয়েছে ৬ খেলোয়াড়ের সংক্ষিপ্ত তালিকা। এবার বাকি আয়োজকদের চুলচেরা বিশ্লেষণ। বহুদিক যাচাই-বাছাই শেষেই সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ নিশ্চিত করবে বিশ্বকাপ মঞ্চের সেরা নায়কের নাম।
বলে রাখা ভালো, আগামী রোববার লন্ডনের লর্ডসে ফাইনাল ম্যাচ শেষে টুর্নামেন্ট সেরা খেলোয়াড় হিসেবে সাকিব আল হাসানের নাম উচ্চারিত হলে মোটেও অবাক হওয়া যাবে না। কেননা এক ফটোফ্রেমের মাধ্যমে প্রকাশিত ছয়জনের সংক্ষিপ্ত তালিকার প্রথমেই আইসিসি রেখেছে বিশ্বসেরা ওয়ানডে অলরাউন্ডারের ছবি। পরের পাঁচজন হলেন যথাক্রমে
নিউজিল্যান্ডের কেন উইলিয়ামসন, পাকিস্তানের বাবর আজম, ভারতের রোহিত শর্মা, অস্ট্রেলিয়ার মিচেল স্টার্ক এবং ইংল্যান্ডের জফরা আর্চার।

টুর্নামেন্ট সেরার দৌড়ে এক সাকিবই নাম লিখিয়েছেন ব্যাট-বলের দুর্দান্ত পারফরম্যান্সে। বাকি পাঁচজনের প্রত্যেকেই এ প্রতিযোগিতায় ছুটছেন একক গুণে। উইলিয়ামসন, বাবর এবং রোহিত ঝলক দেখিয়েছেন ব্যাট হাতে এবং স্টার্ক আর আর্চার জাদু দেখিয়েছেন বল হাতে। তবে টুর্নামেন্ট সেরা নির্বাচনের ক্ষেত্রে আইসিসি কর্তৃপক্ষ যদি এই ছয় খেলোয়াড়ের পারফরম্যান্সের পাশাপাশি আমলে নেয় দলের সাফল্যও, তাহলে শুরুতেই কাটা পড়বে সাকিব আর বাবরের নাম।
কারণ এই দুই তারকা ইংল্যান্ডে দারুণ ছন্দে থাকলেও তাদের দল বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নিয়েছে লিগপর্ব শেষেই। তবে সাকিব-বাবর যা করেছেন তা থাকবে চিরস্মরণীয় হয়ে। বিশ্বকাপের আগে অলরাউন্ডারের মুকুট ফিরে পাওয়া সাকিব ইংল্যান্ডে মেতেছিলেন রেকর্ড ভাঙা-গড়ার খেলায়। হয়ে উঠেছিলেন প্রতিপক্ষের জন্য ভয়ের এক নাম। একাধিক রেকর্ড ভাঙা-গড়ার মধ্য দিয়ে ব্যাটসম্যান সাকিব ৮ ম্যাচে ৮৬.৫৭ গড়ে করেছেন ৬০৬ রান।

এত সংখ্যক রানে টাইগার অলরাউন্ডার এখন পর্যন্ত রয়েছেন চলমান বিশ্বকাপের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহককারী তালিকার তিনে। আর বোলার সাকিবের পাশে রয়েছে ১১ উইকেট। এক কথায়, ইংল্যান্ডে আইসিসির মেগা ইভেন্টে সেরা অলরাউন্ডার বাংলাদেশি এই ক্রিকেটার। তাই সাকিব টুর্নামেন্ট সেরা হতে না পারলে আরও একবার সতীর্থকে ঠিক সেভাবেই ‘সরি’ বলতে হবে মাশরাফি বিন মর্তুজাকে, যেভাবে পাকিস্তানের কাছে হারের পর পুরস্কার অনুষ্ঠান বিতরণীতে বলেছিলেন টাইগার অধিনায়ক।

একইভাবে বাবরের কাছে ক্ষমা চাইতে হবে পাকিস্তানের অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদকেও। বিশ্বকাপের মঞ্চে দলের সেমিফাইনাল নিশ্চিত করতে সবটা দিয়ে লড়েছিলেন ২৪ বছর বয়সি টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান বাবর। ৮ ম্যাচে ৬৭.৭১ গড়ে করেন ৪৭৪ রান। তাকে দারুণ সঙ্গ দিয়েছিল মোহাম্মদ আমির-শাহিন শাহ আফ্রিদির বোলিংভাগও। কিন্তু বাবরের সব চেষ্টাই বিফলে যায় সরফরাজদের ব্যাটিং ব্যর্থতায়। বিদায় নিশ্চিত হয় লিগপর্বেই।

সাকিব-বাবরের পর দলের পারফরম্যান্সের ভিত্তিতে বাদের খাতায় পরবর্তী দুই নাম হলো রোহিত এবং স্টার্ক। কারণ এই দুই তারকার জ্বলে ওঠার কারণেই সেমিতে খেলেছে ভারত আর অস্ট্রেলিয়া। বিশ্বকাপের এক আসরে সর্বোচ্চ পাঁচ সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে লিগপর্বেই বিশ্বরেকর্ড গড়েন রোহিত। পাশাপাশি স্পর্শ করেন স্বদেশি কিংবদন্তি শচিন টেন্ডুলকারের রেকর্ড (বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ ৬ সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে)। রেকর্ডের এই বরপুত্র সেমিতে ব্যাট হাতে ব্যর্থ হলে শেষ হয়ে যায় ভারতের মিশনও।
তবে বিদায়ের আগে ৯ ম্যাচে ৮১ গড়ে ৬৪৮ রানে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক তালিকার শীর্ষে নিজের নাম লিখে যান রোহিত। অন্যদিকে সেমিতে অস্ট্রেলিয়ার বিদায়ের আগে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারির তালিকার শীর্ষস্থানটা মজবুত করে যান স্টার্ক। ১০ ম্যাচে ২৭ উইকেট শিকার করেছেন এই অজি পেসার। তিনিও পেছনে ফেলেছেন স্বদেশি কিংবদন্তিকে। কেননা এতদিন বিশ্বকাপের এক আসরে সর্বোচ্চ ২৬ উইকেট শিকারের (২০০৭ বিশ্বকাপে) বিশ্বরেকর্ডটি ছিল গ্লেন ম্যাকগ্রার।

এদিকে ব্যক্তিগত এবং দলীয় সাফল্যের বিবেচনায় সমানে সমান উইলিয়ামসন আর আর্চার। যাদের দল রোববার লন্ডনের লর্ডসে মুখোমুখি শিরোপার লড়াইয়ে। তবে দলের সাফল্যের দিকে তাকালে অনায়াসেই এগিয়ে রাখা যায় উইলিয়ামসনকে। অধিনায়কের মতো গুরুদায়িত্ব সামলে নিয়েও তিনি দলকে পথ দেখিয়েছেন ব্যাট হাতে। ৮ ম্যাচে দুই সেঞ্চুরিতে ৫৪৮ রানে রয়েছেন সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক তালিকার পাঁচে। অর্থাৎ ফাইনালে তিন অঙ্কের ম্যাজিক ফিগার ছুঁতে পারলেই শীর্ষে চলে যাবেন উইলিয়ামসন।

আর অধিনায়কের সেঞ্চুরিতে ভর করে অসাধ্য সাধন করেই ফেলতে পারে নিউজিল্যান্ড। শেষতক এমনটা যদি হয়, তাহলে এখনই বলে দেওয়া সম্ভব টুর্নামেন্ট সেরা উইলিয়ামসন। অন্যথায় এই খেতাব শোভা পেতে পারে আর্চারের হাতে। কারণ মাত্র তিন ওয়ানডে খেলেই বিশ্বকাপ শুরু করা ক্যারিবীয় বংশোদ্ভ‚ত এই ইংলিশ পেসার যেভাবে গতি আর সুইংয়ে শাসন করেছেন প্রতিপক্ষের ব্যাটসম্যানদের তা রীতিমতো অবিশ্বাস্য। ১০ ম্যাচে ২৪ বছর বয়সি তরুণ আর্চার শিকার করেছেন ১৯ উইকেট। আছেন সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি তালিকার তিনে।




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : রফিকুল ইসলাম রতন
আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ।
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]