ই-পেপার  বুধবার ২০ নভেম্বর ২০১৯ ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
ই-পেপার  বুধবার ২০ নভেম্বর ২০১৯

হজের টুকিটাকি
হজ ফরজ যাদের ওপর
ড. মুফতী গোলাম রব্বানী
প্রকাশ: শনিবার, ১৩ জুলাই, ২০১৯, ১২:০০ এএম আপডেট: ১২.০৭.২০১৯ ১১:৫৯ পিএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 60

যে ব্যক্তি তার নিজ প্রয়োজনীয় বস্তুর অতিরিক্ত এমন সম্পদের মালিক হন যার মাধ্যমে হজের মাসে মক্কায় যাতায়াত করতে পারবেন এবং হজকালীন খরচ বহন করতে পারবেন। পাশাপাশি এ সময়ে পরিবারের খরচের ব্যবস্থাও করে যেতে পারবেন তার ওপর হজ আদায় করা ফরজ।
সহজ ভাষায়, বর্তমান সময়ে যারা হজের মাসগুলোতে সরকার নির্ধারিত হজের সর্বনিম্ন খরচ (বর্তমানে প্রায় সাড়ে তিন লাখ টাকা) ও পরিবারের ৩৫-৪০ দিনের আনুমানিক খরচ ১৫-২০ হাজার টাকার মালিক হন তাদের ওপর হজ করা ফরজ। কারও ঋণ বা নিত্যপ্রয়োজনীয় ব্যয় থাকলে তা মূল সম্পদ থেকে বাদ যাবে। ছেলেমেয়ের বিয়ে, বাড়ি নির্মাণ নিত্যপ্রয়োজনীয়ের অন্তর্ভুক্ত নয়।
* কারও ওপর যদি হজ ফরজ না হয় তাহলে ঋণ করে বা লোকজনের কাছে সাহায্য চেয়ে হজ করা উচিত নয়। তবু যদি কেউ এভাবে হজ আদায় করে তাহলে তার হজ আদায় হয়ে যাবে। পরবর্তীতে সম্পদের মাধ্যমে তিনি উপযুক্ত হলেও আবার হজ করা তার জন্য ফরজ হবে না। (কিতাবুল হজ, পৃ. ১১)
* হজ জীবনে একবার আদায় করা ফরজ। একাধিকবার আদায় করলে প্রথমবারের পরের হজগুলো নফল হিসেবে গণ্য হবে। তবুও হজের পূর্ণ ফজিলত পাওয়া যাবে।
* লোক দেখানো উদ্দেশ্য হলে নফল হজও গুনাহের কারণ হয়।
* ফরজ হজ প্রাপ্ত বয়স্ক অবস্থায় আদায় করতে হবে। কেউ ছোট বেলায় হজ করে থাকলে পরবর্তীতে প্রাপ্ত বয়স্ক হওয়ার পর আবার হজের উপযুক্ত হলে পুনরায় হজ আদায় করা তার জন্য ফরজ হবে।






সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]