ই-পেপার সোমবার ২১ অক্টোবর ২০১৯ ৬ কার্তিক ১৪২৬
ই-পেপার সোমবার ২১ অক্টোবর ২০১৯

শিক্ষার্থীদের সমস্যাকে প্রাধান্য দিয়ে কাজ করছে সূর্যসেন হল সংসদ
মোতছিম বিল্লাহ নাঈম
প্রকাশ: রোববার, ১৪ জুলাই, ২০১৯, ৬:৫৭ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

শিক্ষার্থীদের সমস্যাকে প্রাধান্য দিয়ে কাজ করছে সূর্যসেন হল সংসদ

শিক্ষার্থীদের সমস্যাকে প্রাধান্য দিয়ে কাজ করছে সূর্যসেন হল সংসদ

মাস্টারদা সূর্যসেন হল। তৎকালীন জিন্নাহ হল নামে পরিচিত এই হলটি বাংলাদেশের সূচনা লগ্ন থেকেই দেশের জন্য গুরুত্বপূর্ন অবদান রেখে চলছে। এই হলটি আবাসন সংকট, খাবার মান, বিশুদ্ধ পানিসহ নানা সংকটে জর্জরিত। নতুন হল সংসদ সেই সমস্যাগুলোকে প্রাধান্য দিয়ে কাজ করছে।

হলে ঘুরে দেখা যায়, হলের ধারণ ক্ষমতার চেয়ে কয়েকগুণ বেশি শিক্ষার্থী বসবাস করে আসছে। শিক্ষার্থী সূত্রে জানা যায়, মাত্র ৫৭৭ টি আসন নিয়ে প্রতিষ্ঠিত হলটিতে বর্তমানে প্রায় তিন হাজারেরও অধিক শিক্ষার্থী অত্যন্ত মানবেতর জীবন যাপন করছে। একজন শিক্ষার্থীর জন্য তৈরী করা কক্ষ গুলোতে ৪ জন, ২ জনের জন্য তৈরী করা কক্ষগুলোতে বসবাস করছে ৮ জন এবং ৪ জনের জন্য তৈরী করা কক্ষ গুলোতে বসবাস করছে প্রায় ১৬ থেকে ২০ জন শিক্ষার্থী। যেগুলো গনরুম বলে পরিচিত। যেখানে শিক্ষার্থীদের পালাবদল করে ঘুমায়।

শিক্ষার্থীদের দাবি, হলে অনেক বহিরাগত অবস্থান করছেন। তাদেরকে যদি বের করা যায় তাহলে আবাসন সমস্যার সমাধান কিছুটা হলেও হবে। এছাড়া হলের খাবারের মান নিয়ে শিক্ষার্থীরা দীর্ঘ দিন থেকে অভিযোগ করে আসছে। শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, হলের ক্যান্টিন গুলোতে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে রান্না হয়ে থাকে। এছাড়া খাবারের দামও অধিক বলে দাবি কয়েকজন শিক্ষার্থীর। হলে দীর্ঘ দিন থেকে পানি সমস্যাও বিদ্যমান বলে জানায় শিক্ষার্থীরা।

এসব সমস্যার কারনে ঐতিহ্যবাহী এই হলটি ক্রমেই ফিকে হয়ে যাচ্ছে। নষ্ট হচ্ছে হলটির গৌরবউজ্জল ইতিহাস। তবে দীর্ঘ ২৮ বছর পর ডাকসু আসায় আলো দেখতে পাচ্ছে শিক্ষার্থীরা। শিক্ষার্থীদের জন্য কাজ করার প্রতিশ্রুতি দিয়ে নির্বাচনে জয়লাভ করে ছাত্রলীগ সমর্থিত ‘মারিয়াম-সিয়াম-মোরশেদ’ পরিষদের প্রার্থীরা। তারপর থেকেই ছাত্রদের সমস্যাকে প্রাধান্য দিয়ে প্রশাসনের সাথে কাধে কাধ মিলিয়ে কাজ করছে নির্বাচিত ছাত্র সংসদের প্রতিনিধিরা।

হল সংসদের নেতৃবৃন্দের সাথে কথা বলে জানা যায়, হলের পানির সমস্যা সমাধানের লক্ষ্যে হলে প্রায় ১৯ টি পানির ফিল্টার স্থাপন, হল গ্রন্থাগারের সময়সীমা বৃদ্ধি, নতুন ক্যান্টিন ম্যানাজার নিয়োগ করে নিয়মিত খাবারের মান পরীক্ষা করে হল সংসদ। এছাড়া হলের পাঠকক্ষে বহিরাগত উচ্ছেদ অভিযানও পরিচালিত হয় বেশ কয়েকবার। জানতে চাইলে হল সংসদের সহ-সভাপতি (ভিপি) মারিয়াম জামান খান সোহান সময়ের আলোকে জানান, আমরা নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে হলের শিক্ষার্থীদের সমস্যাকে প্রাধান্য দিয়ে কাজ করছি। হলের অসচ্ছল শিক্ষার্থীদের জন্য বৃত্তির ব্যাবস্থা করেছি। এই বৃত্তির পরিসর আরো বৃদ্ধি করার চেষ্টা করছি। তিনি আরো বলেন, সূর্যসেন হলে সূর্যসেনের একটা মূরাল ছিল না। আমরা সর্বপ্রথম এটা করেছি। এছাড়া হলের সিট সংকট দূর করার জন্য হলের গেমস রুম ভেঙ্গে সেখানে ১০ তলা ভবন করার প্রস্তাব আমরা ইতিমধ্যে দিয়েছি।  খুব শিঘ্রই এর কাজ শুরু হবে বলে আমরা বিশ্বাস করি। এছাড়া অ্যালামনাই এর সাথে কথা বলে হলের নানা সুযোগ সুবিধা বৃদ্ধির চেষ্টা করছি আমরা

হলের সার্বিক উন্নয়নের ব্যাপারে জানতে চাইলে সাধারন সম্পাদক (জিএস) সিয়াম রহমান বলেন, আমরা শিক্ষার্থীদের কথা দিয়েছিলাম তাদের চাহিদা অনুযায়ী কাজ করব। সেই লক্ষে হলের অভ্যন্তরে বক্স স্থাপন করেছিলাম। শিক্ষার্থীরা সেখানে তাদের চাহিদা জানিয়েছে। আমরা সেই লক্ষে কাজ করছি। সবচেয়ে বেশি শিক্ষার্থী হলের বহিরাগতদের বের করার কথা বলছে। এটা অনেক কঠিন কাজ হলেও আমরা এর লক্ষে কাজ করছি। তবে এখানে সমস্যা হলো আমরা সব তথ্য জানিনা। তবে যেখানেই এই সংবাদ পাচ্ছি সাথে সাথে তা তাদের বের করার চেষ্টা করছি।

এছাড়া হলের মাদক সমস্যা দূর করার লক্ষে বিভিন্ন ব্যাবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও জানান তিনি। তিনি জানান, হলে শিক্ষার্থীরা যাতে বাইরে গিয়ে জিম করতে না হয় সেই লক্ষে হলের অভ্যন্তরে একটি জিমনেশিয়ার তৈরির কাজ খুব দ্রত শুরু হবে।




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ।
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]