ই-পেপার সোমবার ২১ অক্টোবর ২০১৯ ৬ কার্তিক ১৪২৬
ই-পেপার সোমবার ২১ অক্টোবর ২০১৯

ছিন্ন হলো ৬৩ বছরের বাঁধন
অনবরত কাঁদছেন রওশন
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশ: সোমবার, ১৫ জুলাই, ২০১৯, ১২:০০ এএম | প্রিন্ট সংস্করণ

প্রায় ৬৩ বছরের সংসার জীবন সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ ও বিরোধীদলীয় উপনেতা রওশন এরশাদের। কতশত মান-অভিমান, হাসি-কান্নায় ভরপুর জীবন ছিল। এরপরও দুজন দুজনার। এক ছাদের নিচে থাকা হয়নি অনেক দিন। কিন্তু কখনই আলগা হয়নি এ দম্পতির বাঁধন। সংসার জীবনে সবসময়ই স্বামীর জন্য আকুল প্রার্থনায় ছিলেন। জীবনের শেষ দিনগুলোতেও বারবার ছুটেছেন স্বামীর দুয়ারে। কখনও শয্যাশায়ী স্বামীর পাশে ধর্মগ্রন্থ পড়েছেন, কখনও অবনত মস্তকে সৃষ্টিকর্তার কাছে জীবন ভিক্ষা চেয়েছেন।
স্বামীর মৃত্যু খবর পেয়ে একমাত্র সন্তান রাহগীর আল মাহে সাদ এরশাদকে সঙ্গে নিয়েই ছুটে যান নিজেদের আলাদা করতে। কিন্তু স্বামীর পাশে যেতেই স্ত্রী কান্নায় ভেঙে পড়লেন। এ কান্না থামার নয়। ৬৩ বছরের অম্লমধুর সম্পর্কের ইতি টেনে শূন্য হৃদয় নিয়ে গুলশানের বাড়িতে এখন স্তব্ধ-নির্বাক রওশন এরশাদ। রোববার দুপুর থেকে বেলা সাড়ে ৩টা পর্যন্ত কয়েক দফা বিরোধীদলীয় উপনেতার সহকারী একান্ত সচিব মামুন হাসান ও দলটির বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে এসব খবর।
১৯৫৬ সালে ময়মনসিংহের সম্ভ্রান্ত পরিবারের মেয়ে রওশনকে বিয়ে করেন সেনা কর্মকর্তা হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। চাকরির কারণে বিয়ের পরপরই সংসার করা হয়ে ওঠেনি। পড়াশোনা করতেন ময়মনসিংহে। নিয়মিতই ‘ডেইজি’ সম্বোধন করে তাকে চিঠি লিখতেন এরশাদ। ছিলেন সেনাপ্রধান। দেশের রাষ্ট্রপতি হওয়ার পর ফার্স্টলেডি ছিলেন রওশন। স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে মান-অভিমান হয়। কিন্তু কেউ কাউকে কোনোদিনই ছোট করে কথা বলেননি। এরশাদের নানা বিতর্কিত ঘটনা থাকলেও সব কিছু সয়ে নিয়েছেন রওশন।
জাতীয় পার্টির নেতারা জানান, জায়নামাজে বসে আল্লাহর কাছে প্রার্থনা করেছেন ম্যাডাম রওশন। স্যারকে হারিয়ে ম্যাডাম মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছেন। সকাল থেকেই অঝোরে কেঁদেছেন। এখন অনেকটা পাথর হয়ে গেছেন।




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ।
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]