ই-পেপার শুক্রবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ৪ আশ্বিন ১৪২৬
ই-পেপার শুক্রবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯

বিশে^ শুরু হলো ম্যালেরিয়ার টিকাদান কর্মসূচি
সময়ের আলো ডেস্ক
প্রকাশ: শনিবার, ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১২:০০ এএম | প্রিন্ট সংস্করণ

ম্যালেরিয়ার টিকা আবিষ্কৃত হওয়ার পর প্রথমবারের মতো তা মানবদেহে প্রয়োগ করা হচ্ছে। শুক্রবার আফ্রিকার দেশ কেনিয়ার বিভিন্ন অঞ্চলের শিশুদের এই টিকা দেওয়া শুরু হয়েছে বলে জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি। প্রায় ৩০ বছর ধরে বিজ্ঞানীদের অক্লান্ত পরিশ্রমের ফল এই টিকা। ‘আরটিএস,এস’ নামের এ টিকা শরীরের প্রাকৃতিক প্রতিরোধ ব্যবস্থাকে শক্তিশালী করে ম্যালেরিয়ার জীবাণুর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সাহায্য করবে। এ
টিকা বিশ^ জুড়ে লাখ লাখ মানুষের জীবন রক্ষা করবে বলে আশা বিশ^ স্বাস্থ্য সংস্থার (ডবিøউএইচও)। প্রতিটি শিশুকে চার ভাগে (ডোজ) এই টিকা দেওয়া হবে এবং অবশ্যই শিশুর দুই বছর বয়স হওয়ার আগে চতুর্থ ডোজ গ্রহণ করতে হবে। বিজ্ঞানীদের আশা, এই টিকা ম্যালেরিয়ার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে শাক্তিশালী হাতিয়ার হবে।
প্রতিবছর এখনও বিশে^র ২০ কোটির বেশি মানুষ ম্যালেরিয়া আক্রান্ত হয়ে থাকেন, বেশিরভাগ সময় যার শিকার হয় শিশুরা। সম্প্রতি প্রকাশিত এক গবেষণা প্রতিবেদনে বলা হয়, ম্যালেরিয়াকে হারানো এখন আর দূর কল্পনা নয়। আগামী তিন বছরের মধ্যে কেনিয়ার তিন লাখের বেশি শিশুকে ম্যালেরিয়ার টিকা দেওয়া হবে। আফ্রিকায় এখনও ম্যালেরিয়া এক বিরাট আতঙ্কের নাম। ম্যালেরিয়াতে গোটা পৃথিবীতে প্রতিবছর যত মানুষ মারা যায়, তার অর্ধেকই মারা যায় আফ্রিকা অঞ্চলের পাঁচটি দেশে।
২০০০ সাল পর্যন্ত ম্যালেরিয়া আছে এমন দেশের সংখ্যা ১০৬ থেকে ৮৬ তে নেমে এসেছে। ম্যালেরিয়া আক্রান্তের হার ৩৬ শতাংশ হ্রাস পেয়েছে। মৃত্যুর হার হ্রাস পেয়েছে ৬০ শতাংশ। তবে এ অগ্রগতির পেছনে বড় কারণ সাম্প্রতিক দশকগুলোতে বিশ^ব্যাপী মানুষ মশার কামড় ঠেকানোর বিভিন্ন উপায় বের করেছে। যেমন কীটনাশক মাখানো মশারি এবং ম্যালেরিয়া চিকিৎসায় উন্নত ওষুধ আবিষ্কার। কিন্তু ম্যালেরিয়ার টিকা এখন পর্যন্ত আবিষ্কার করা যাচ্ছিল না। এবার বিজ্ঞানীরা জানালেন টিকা আবিষ্কার হয়েছে এবং তা দেওয়াও শুরু হয়েছে।
ম্যালেরিয়া কী?
প্ল্যাসমোডিয়াম নামে এক ধরনের পরজীবীর সংক্রমণে ম্যালেরিয়া হয়। স্ত্রী অ্যানোফিলিস মশার কামড়ে ম্যালেরিয়ার জীবাণু একজনের থেকে আরেকজনে ছড়িয়ে পড়ে। আক্রান্ত হলে তীব্র জ্বর, মাথা ব্যথা এবং কাঁপুনি হয় একজন মানুষের। ম্যালেরিয়ার পরজীবী লিভার ও লোহিত রক্ত কণিকার কোষ আক্রমণ করে। অন্য উপসর্গের মধ্যে ম্যালেরিয়া থেকে রক্তশূন্যতা হতে পারে এবং আক্রান্ত হতে পারে মস্তিষ্কও। এখনও প্রতিবছর ম্যালেরিয়ায় চার লাখ ৩৫ হাজার মানুষ মারা যায়, যাদের বেশিরভাগ শিশু।





সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : রফিকুল ইসলাম রতন
আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ।
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]