ই-পেপার শুক্রবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ৪ আশ্বিন ১৪২৬
ই-পেপার শুক্রবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯

সময়ের আলো পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ
বরিশালের সেই বকশিকে শাস্তিমূলক বদলি, সরতে পারেন ওসিও
নিজস্ব প্রতিবেদক বরিশাল
প্রকাশ: শনিবার, ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১২:০০ এএম আপডেট: ১৪.০৯.২০১৯ ১২:১৬ এএম | প্রিন্ট সংস্করণ

বরিশাল মেট্রোপলিটন বন্দর (সাহেবেরহাট) থানার বকশি ফাইজুল ইসলামকে অবশেষে শাস্তিমূলক বদলি করা হয়েছে। ঘুষ বাণিজ্যসহ নানামুখী অভিযোগের ভিত্তিতে তাকে সোমবার থানা থেকে সরিয়ে কাউনিয়া থানায় সংযুক্ত করা হয়। সম্প্রতি বন্দর থানার ওসি গোলাম মোস্তফা হায়দার এবং বকশি ফাইজুল ইসলামের একটি ঘুষ বাণিজ্যের খবর দৈনিক সময়ের আলো পত্রিকায় প্রকাশ পায়।
মূলত সেই সংবাদের পরেই বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মো. শাহাবুদ্দিন খানের নির্দেশে ফাইজুল ইসলামকে থানা থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়। একই অভিযোগে ওসিকে যেকোনো সময় থানা থেকে শাস্তিস্বরূপ সরিয়ে নেওয়া হতে পারে বলে বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের একটি দায়িত্বশীল সূত্র আভাস দিয়েছে। তবে এই বিষয়টি নিয়ে আপাতত পুলিশের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা কোনো ধরনের মন্তব্য করছেন না।
জানা গেছে, বকশি ফাইজুল ইসলাম তিন বছরের অধিক সময় বন্দর থানায় কর্মরত ছিলেন। সম্প্রতি সংশ্লিষ্ট থানাধীন বিভিন্ন এলাকা থেকে তার বিরুদ্ধে ঘুষ বাণিজ্যসহ নানা অভিযোগ ওঠে। কিন্তু ওসি গোলাম মোস্তফা হায়দারের বিশেষ দৃষ্টি থাকায় তিনি প্রতিবারই ছিলেন সেফ সাইডে। তবে সর্বশেষ ভ‚মি সংক্রান্ত একটি মামলার বাদীর কাছে থেকে ওসি নির্দেশে তিন লাখ টাকা ঘুষ গ্রহণ অভিযোগে ফেঁসে যান তিনি। সেই বাদীর অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে ওসি ও বকশির বিরুদ্ধে তদন্তও শুরু হয়েছে। সংশ্লিষ্ট থানার সহকারী পুলিশ কমিশনার অভিযোগটি তদন্ত করছেন।
এই ঘুষ বাণিজ্যের বিষয়টি নিয়ে গত সপ্তাহে দৈনিক সময়ের আলো পত্রিকায় ‘বরিশালে মামলার বাদীর কাছ থেকে ওসির তিন লাখ টাকা উৎকোচ গ্রহণ’ শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশ পায়। সেই সংবাদের পরেই বকশিকে তাৎক্ষণিক থানা থেকে সরিয়ে দেন পুলিশ কমিশনার।
পুলিশের এক কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, মামলার বাদীর কাছ থেকে ঘুষ গ্রহণ অভিযোগটি তদন্তের শেষ পর্যায়ে রয়েছে। কিন্তু এর আগেই বহু অভিযোগের ভিত্তিতে বকশিকে শাস্তিমূলক সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। এই অভিযোগটির প্রমাণ পাওয়া গেলে ওসির বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা গ্রহণ করা হতে পারে। সে ক্ষেত্রে তাকে থানা থেকে সরিয়ে দেওয়ার পাশাপাশি বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণের মতো সিদ্ধান্তও নেওয়া হতে পারে। যদিও ওসি এই অভিযোগটি শুরু থেকেই অস্বীকার করে আসছিলেন। এদিকে বকশি ফাইজুল ইসলাম তাকে শাস্তিমূলক বদলির বিষয়টি অস্বীকার করে বলছেন স্বাভাবিক নিয়মে বদলি হয়েছেন।
তবে বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মো. শাহাবুদ্দিন খান বকশিকে শাস্তিমূলক বদলির বিষয়টি স্বীকার করে সময়ের আলোকে বলেছেন, তদন্তের স্বার্থে তাকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। পরবর্তীতে তদন্ত প্রতিবেদন হাতে আসলে তাদের বিরুদ্ধে শাস্তির সুপারিশ চেয়ে কেন্দ্রীয় পুলিশের উচ্চমহলে সুপারিশ রাখবেন।




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : রফিকুল ইসলাম রতন
আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ।
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]