ই-পেপার শুক্রবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ৪ আশ্বিন ১৪২৬
ই-পেপার শুক্রবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯

গাজীপুরে মিনিস্টার ফ্রিজ কারখানায় ভয়াবহ আগুন
গাজীপুর প্রতিনিধি
প্রকাশ: শনিবার, ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১২:০০ এএম আপডেট: ১৪.০৯.২০১৯ ১২:১৫ এএম | প্রিন্ট সংস্করণ

গাজীপুর সিটি করপোরেশনের ধীরাশ্রম এলাকায় অবস্থিত মাইওয়ান গ্রæপের সহযোগী প্রতিষ্ঠান মিনিস্টার হাইটেক কারখানায় শুক্রবার সকালে ভয়াবহ অগ্নিকাÐের ঘটনা ঘটেছে। এতে কারখানার গুদামে সংরক্ষিত বিপুল পরিমাণ ফিনিশড প্রোডাক্ট আগুনে পুড়ে গেছে। ফায়ার সার্ভিসের ১৬টি ইউনিট প্রায় ৬ ঘণ্টা চেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। তবে শুক্রবার কারখানায় সাপ্তাহিক ছুটি থাকায় কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।
গাজীপুর ফায়ার সার্ভিসের সহকারী উপ-পরিচালক মো. মামুনুর রশিদ জানান, শুক্রবার সকাল সোয়া ৭টার দিকে ৬ তলাবিশিষ্ট ভবনটির ষষ্ঠতলা থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়। এখানে কারখানার উৎপাদিত বিভিন্ন টিভি, ফ্রিজ, ইস্ত্রি, রাইস কুকারসহ নানা ধরনের ইলেকট্রনিক্স পণ্য উৎপাদনের পর গুদামজাত করা হতো। ষষ্ঠতলায় আগুন লাগার পরমুহূর্তেই তা বিভিন্ন কক্ষে ছড়িয়ে পড়ে। পরে পাশর্^বর্তী আরও একটি পাঁচতলা ভবনেও আগুন ছড়িয়ে পড়ে। আগুন লাগার সঙ্গে সঙ্গে কারখানার নিরাপত্তাকর্মীরা ফায়ার সার্ভিসকে খবর দেয়। খবর পেয়ে জয়দেবপুর ফায়ার সার্ভিসকর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নেভাতে শুরু করে। পরে তাদের সঙ্গে টঙ্গী ও উত্তরা ফায়ার সার্ভিসকর্মীরা যোগ দেয়। আগুনের ভয়াবহতা এতই বেশি ছিল যে, ফায়ার সার্ভিসকর্মীদের আগুনের লেলিহান শিখা নিয়ন্ত্রণে প্রচÐ বেগ পেতে হয়। দুপুর দেড়টার দিকে তারা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়।
ফায়ার সার্ভিস সূত্র জানায়, কারখানাটিতে অগ্নিনির্বাপণের যথেষ্ট ব্যবস্থা ছিল না। আশপাশে কোথাও পর্যাপ্ত পানির ব্যবস্থা না থাকায় তারা পাশের মার্কওয়্যার লিমিটেড নামক অন্য একটি কারখানার জলাশয় থেকে পানি এনে আগুন নেভানোর কাজে ব্যবহার করে। ফায়ার সার্ভিসের মোট ১৬টি ইউনিট প্রাণপণ চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণ করতে সক্ষম হয়। তবে কীভাবে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে এবং কী পরিমাণ ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে, তাৎক্ষণিকভাবে তা জানা যায়নি।
ঘটনাস্থলে উপস্থিত টঙ্গী কল-কারখানা অধিদফতরের সহকারী মহাপরিদর্শক মো. মোতালিব মিয়া জানান, কারখানাটিতে অগ্নিনির্বাপণের পর্যাপ্ত ব্যবস্থা ছিল না, নিয়মিত অগ্নিমহড়াও করা হতো না। এছাড়া ফায়ার অ্যালার্ম ও অন্য সরঞ্জামাদি না থাকার কারণে আগুন ভয়াবহ রূপ ধারণ করে। তিনি জানান, এসব বিষয়ে কারখানা কর্তৃপক্ষকে ২০-২৫ দিন আগে সতর্ক করে নোটিস দেওয়া হলেও তারা কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। এদিকে অগ্নিনির্বাপণের পর্যাপ্ত ব্যবস্থা না রাখার বিষয়ে সাংবাদিকরা মাইওয়ান ইলেকট্রনিক্স ও মিনিস্টার হাইটেক পার্ক লিমিটেডের চেয়ারম্যান এমএ রাজ্জাক খানকে প্রশ্ন করলে তিনি বিষয়টির কোনো সদুত্তর দেননি। বিষয়টি এড়িয়ে গিয়ে তিনি বলেন, কীভাবে ছয়তলায় আগুন লাগল, আমরা এখনও এর কারণ বুঝতে পারছি না।
কারখানাটির হেড অব মিডিয়া কেএমজি কিবরিয়া জানান, এই কারখানায় প্রায় ২০০০ কর্মী বিভিন্ন বিভাগে কাজ করত। তবে শুক্রবার সাপ্তাহিক ছুটি থাকায় কোনো কর্মী কারখানায় কর্মরত ছিল না। তিনি জানান, এখানে ফ্রিজ, টিভি, ইস্ত্রি, রাইসকুকারসহ বিভিন্ন ইলেকট্রনিক্স পণ্য উৎপাদন করা হতো। এগুলো পরে ছয়তলায় গুদামজাত করে রাখা হতো।
কারখানাটিতে অগ্নিকাÐের খবর পেয়ে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র অ্যাডভোকেট মো. জাহাঙ্গীর আলম, গাজীপুরের জেলা প্রশাসক এসএম তরিকুল ইসলাম, সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ সদস্য শামসুন্নাহার, জিএমপি কমিশনার আনোয়ার হোসেনসহ প্রশাসনের লোকজন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।
গাজীপুরের জেলা প্রশাসক এসএম তরিকুল ইসলাম জানান, অগ্নিকাÐের ঘটনাটি তদন্ত করে দেখার জন্য ভারপ্রাপ্ত অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. শফিউল্লাহকে প্রধান করে ছয় সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। আগামী ৭ কর্মদিবসের মধ্যে তদন্ত রিপোর্ট জমা দেওয়ার জন্য কমিটিকে নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে।






সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : রফিকুল ইসলাম রতন
আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ।
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]