ই-পেপার শুক্রবার ১৫ নভেম্বর ২০১৯ ১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
ই-পেপার শুক্রবার ১৫ নভেম্বর ২০১৯

কোটালীপাড়ায় শিক্ষক পেটানো ইউপি চেয়ারম্যানের শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন
কোটালীপাড়া (গোপালগঞ্জ) প্রতিনিধি
প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৫:০২ পিএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 766

কোটালীপাড়ায় শিক্ষক পেটানো ইউপি চেয়ারম্যানের শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন

কোটালীপাড়ায় শিক্ষক পেটানো ইউপি চেয়ারম্যানের শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন

গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ায় শিক্ষক পেটানো সেই ইউপি চেয়ারম্যানের শাস্তির দাবিতে উপজেলা মাধ্যমিক ও প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির পক্ষ থেকে মানববন্ধন এবং বিক্ষোভ সমাবেশ কর্মসূচি পালন করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দুপুর ২টা থেকে ৩টা পর্যন্ত ঘন্টাব্যাপী গোপালগঞ্জ-পয়সারহাট সড়কের কোটালীপাড়া উপজেলা পরিষদের সামনে এ মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতি ফরিদপুর অ লের সভাপতি সরওয়ার হোসেন তালুকদার, মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতি কোটালীপাড়া শাখার সভাপতি নন্দলাল বিশ^াস, প্রাথমিক শিক্ষক সমিতি কোটালীপাড়া শাখার সভাপতি কৃষ্ণকান্ত সরকার , সাধারণ সম্পাদক কাজী সাফায়েত হোসেন, শিক্ষক রফিকুল ইসলাম মিয়া, নাসির উদ্দিন, জেসরিনা খানম, রুহুল আমির, ওলিউল্লাহ শেখ বক্তব্য রাখেন।

বক্তারা বলেন, চেয়ারম্যান উত্তম কুমার বাড়ৈ শিক্ষক অমৃত রতন হালদারের গায়ে হাত দিয়ে একটি ঘৃণিত অপরাধ করেছে। তার শাস্তি হওয়া প্রয়োজন। যদি প্রশাসনের পক্ষ থেকে চেয়ারম্যান উত্তম কুমার বাড়ৈর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা না হয় তা হলে আমরা শিক্ষক সমাজ কঠোর কর্মসূচি দিতে বাধ্য হবো।

প্রসঙ্গ: গত ৬ সেপ্টেম্বর শুক্রবার সন্ধ্যায় উপজেলার কান্দি ইউনিয়নের ধারাবাশাইল বাজারে বসে গজালিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক অমূল্য রতন হালদারকে চেয়ারম্যান উত্তম কুমার বাড়ৈ ও তার ভাই মনি বাড়ৈ পিটিয়ে হাসপাতালে পাঠায়।

এ ঘটনার পরে কান্দি ইউনিয়নসহ গোটা কোটালীপাড়ায় প্রতিবাদের ঝড় ওঠে। এ ঘটনার পর থেকে ইউনিয়নবাসী বিক্ষোভ সমাবেশসহ নানা কর্মসূচি পালন করে আসছে। ইউনিয়নবাসীর সাথে প্রতিবাদের কর্মসূচি হিসেবে ওই ৯ ইউপি সদস্য উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে অনাস্থা প্রস্তাব এনে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

এর আগে শিক্ষক পেটানোর ঘটনায় শিক্ষক অমূল্য রতন হালদারের স্ত্রী মনি হালদার বাদী হয়ে কোটালীপাড়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

কান্দি ইউনিয়ন পরিষদের ৩নং ওয়ার্ডের সদস্য অনাদি বৈরাগী অনুপ বলেন, আমাদের চেয়ারম্যান উত্তম কুমার বাড়ৈর বিরুদ্ধে শিক্ষক পেটানো, অর্থ আত্মসাৎ, সাম্প্রদায়িক ইস্যু সৃষ্টি, পরিষদের সদস্য ও জনগনদের সাথে অসৌজন্যমূলক আচরণসহ নানা অভিযোগ রয়েছে। আমরা এতোদিন ভয়ে তার অপকর্মের বিরুদ্ধে কথা বলতে পারিনি। শিক্ষক পেটানোর পরে পুরো ইউনিয়নবাসী তার বিরুদ্ধে যখন ক্ষোভে ফেটে পড়ে তখন আমরা অভিযোগ দায়ের করি। আমরা সঠিক তদন্তের মাধ্যমে চেয়ারম্যান উত্তম কুমার বাড়ৈর বহিস্কার দাবি করছি।

মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতি ফরিদপুর অ লের সভাপতি সরওয়ার হোসেন তালুকদার বলেন, শিক্ষক হচ্ছে জাতি গড়ার কারিগর। চেয়ারম্যান উত্তম কুমার বাড়ৈ সেই শিক্ষকের গায়ে হাত দিয়ে একটি ঘৃণিত অপরাধ করেছেন। আমরা তার এই অপরাধের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।

চেয়ারম্যান উত্তম কুমার বাড়ৈ বলেন, আমার প্রতিপক্ষ আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক ভাবে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করছে। আমি  হাইকোর্ট থেকে জামিন দিয়ে এসেছি। এখন মামলাটি তার নিজ গতিতে চলবে।

ভারপ্রাপ্ত উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মহসিন উদ্দীন বলেন, চেয়ারম্যান উত্তম কুমার বাড়ৈর যে অভিযোগ পেয়েছি সে বিষয়ে উর্ধতন কর্তৃপক্ষের সাথে আলাপ করে ১০ কর্ম দিবসের মধ্যে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। আগামী ২৫ সেপ্টেম্বর ১০ কার্য দিবস শেষ হবে। এর মধ্যেই আমরা আইনগত ভাবে ব্যবস্থা নিবো।

কোটালীপাড়া থানার ওসি শেখ লুৎফর রহমান বলেন, চেয়ারম্যান উত্তম কুমার বাড়ৈর বিরুদ্ধে শিক্ষক অমূল্য রতন হালদারের স্ত্রী মনি বাড়ৈ বাদী হয়ে কোটালীপাড়া থানায় একটি মামলা দায়ের করে ছিলেন। সেই মামলায় আমরা উত্তম কুমার বাড়ৈর ভাই মনি বাড়ৈকে গ্রেফতার করে ছিলাম। চেয়ারম্যান উত্তম কুমার বাড়ৈ গত কাল বুধবার হাইকোর্ট থেকে জামিন নিয়ে এসেছে। এখন মামলাটি আইনি প্রক্রিয়ায় চলবে।




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]