ই-পেপার সোমবার ১৪ অক্টোবর ২০১৯ ২৯ আশ্বিন ১৪২৬
ই-পেপার সোমবার ১৪ অক্টোবর ২০১৯

ভুটানে জয়ে শুরুর আশা শামসুন্নাহারদের
ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশ: বুধবার, ৯ অক্টোবর, ২০১৯, ১২:০০ এএম | প্রিন্ট সংস্করণ

 
সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ নারী চ্যাম্পিয়নশিপের প্রথম আসরেই চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল বাংলাদেশ। ২০১৭ সালে ঘরের মাঠে শিরোপা উচিয়ে ধরেছিল মারিয়া মান্দার দল। গতবারও ফাইনালে উঠেছিল লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা। কিন্তু ভুটানের মাটিতে ভারতের কাছে হেরে শিরোপা ধরে রাখা হয়নি তাদের। সেই ভুটানে আজ থেকে শুরু হচ্ছে টুর্নামেন্টের তৃতীয় আসর। উদ্বোধনী দিনেই মাঠে নামবে গোলাম রব্বানী ছোটনের শিষ্যরা, প্রতিপক্ষও স্বাগতিক ভুটান। তাদের বিপক্ষে আজ জয় দিয়েই শিরোপা পুনরুদ্ধারের মিশন শুরু করতে চায় বাংলার মেয়েরা।
সোমবার ঢাকা ছেড়ে ভুটানে পাড়ি জমিয়েছে বাংলাদেশ দল। বয়সের কারণে এবারের দলে মারিয়া-মনিকারা নেই। দলে নতুন মুখের ছড়াছড়ি। জেএফএ অনূর্ধ্ব-১৪ টুর্নামেন্ট থেকে বাছাইকৃতদের প্রশিক্ষণ দিয়ে তৈরি করা হয়েছে সাফের শিরোপা পুনরুদ্ধারের জন্য। তাদের সঙ্গে আগের আসরে খেলা ৯ ফুটবলারও আছেন। মিশন শুরুর আগের দিন মঙ্গলবার অনুশীলনে ঘাম ঝড়িয়েছে পুরো দল। শামসুন্নাহার-রুপনা চাকমারা তৈরি হয়েছেন ময়দানে নিজেদের সেরাটা নিংড়ে দেওয়ার জন্য।
অধিনায়ক শামসুন্নাহার জুনিয়র, রুপনা চাকমা, ইয়াসমিন আক্তার, সোহাগী কিসকু, রোজিনা আক্তার, শাহেদা আক্তার রিপা, রেহেনা আক্তার, নওশিন জাহান ও রুমি আক্তার আগেও খেলেছেন লাল-সবুজ জার্সিতে। এরই মধ্যে ভারতে সুব্রত কাপ খেলে অভিজ্ঞতা অর্জন করেছেনÑ উন্নতি খাতুন, নাসরিন আক্তার, আফিদা খন্দকার, মেহেরুন আক্তার, সুরমা জান্নাত, পূর্ণিমা রানী মণ্ডল ও স্বপ্না রানী। তাদের নিয়ে ভীষণ আশাবাদী দলীয় কোচ ছোটন। নারী ফুটবলে বাংলাদেশের সাফল্য যাত্রার নেপথ্যের কারিগড়টি জানিয়েছেন, নতুনদের নিয়ে দারুণ কিছুই করে দেখাবেন।
ভুটানের রাজধানী থিম্পুর চাংলিমিথাং স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা ছয়টায় শুরু হবে ম্যাচ। ম্যাচে দারুণ কিছু করে দেখাতে চায় ছোটনের শিষ্যরা। দেশ ছাড়ার আগে অধিনায়ক শামসুন্নাহার জুনিয়র তো বলেই গেছেন, ‘আমরা চ্যাম্পিয়ন ট্রফির জন্যই খেলতে যাচ্ছি।’ নারী ফুটবল দলে কোনো পাইপলাইন নেই, এমন অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে কোচ ছোটন আসরটাকে নিয়েছেন বড় চ্যালেঞ্জ হিসেবে, ‘টুর্নামেন্টটি আমাদের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ। নতুনদের নিয়ে আমি এই চ্যালেঞ্জে জিততে চাই।’
মঙ্গলবার অনুশীলন শেষে ম্যাচপূর্ব সংবাদ সম্মেলনে হাজির হয়েছিলেন বাংলাদেশের কোচ ছোটন আর অধিনায়ক শামসুন্নাহার। সেখানে দুজনেই ভালো খেলার প্রত্যাশা ব্যক্ত করেছেন। স্বাগতিক ভুটানকে সমীহ করলেও জয় দিয়ে আসর শুরু করতে চান ছোটন, অভিন্ন লক্ষ্য অধিনায়ক শামসুন্নাহারেরও। সাফের এই আসরে পরিসংখ্যানও তাদের পক্ষে। গতবার সেমিফাইনালে দেখা হয়েছিল বাংলাদেশ-ভুটানের। সেই ম্যাচে ৫-০ গোলে স্বাগতিকদের উড়িয়ে দিয়েছিল লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা। এর আগে ঢাকায় প্রথম আসরে জয় এসেছিল ৩-০ গোলে।
ফুটবলের যেকোনো পর্যায়ে ভুটানের বিপক্ষে বরাবরই দুর্বার বাংলাদেশ। ছেলেদের ফুটবল হোক কিংবা মেয়েদের, জাতীয় দল কিংবা বয়সভিত্তিক দল, একবারই ভুটানের কাছে হেরেছে লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা। মেয়েদের ফুটবলে তো নিয়ম করেই ভুটানের জালে গোলোৎসব দেখা গেছে। এবার সেই ধারা অব্যাহত রাখতে পারে কিনা শামসুন্নাহারের দল, সেটাই দেখার অপেক্ষা।





সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ।
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]