ই-পেপার মঙ্গলবার ২২ অক্টোবর ২০১৯ ৬ কার্তিক ১৪২৬
ই-পেপার মঙ্গলবার ২২ অক্টোবর ২০১৯

দশ দফা দাবিতে ফের উত্তাল বুয়েট
মোতাছিম বিল্লাহ নাঈম
প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ১০ অক্টোবর, ২০১৯, ১২:০০ এএম আপডেট: ১০.১০.২০১৯ ১২:০৫ এএম | প্রিন্ট সংস্করণ

দশ দফা দাবিতে ফের উত্তাল বুয়েট

দশ দফা দাবিতে ফের উত্তাল বুয়েট

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ^বিদ্যালয়ের (বুয়েট) ছাত্র আবরার ফাহাদকে হত্যায় জড়িতদের সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করাসহ ১০ দফা দাবিতে ফের আন্দোলনে নেমেছেন শিক্ষার্থীরা। ক্লাস-পরীক্ষা ও অ্যাকাডেমিক কার্যক্রম বন্ধ করে আন্দোলন চালিয়ে যাওয়া শিক্ষার্থীরা জানিয়েছেন, আবরার হত্যার বিচার না হওয়া পর্যন্ত এই আন্দোলন চলবে। বুধবার সকাল ১০টা থেকে ফের আন্দোলন শুরু করেছেন শিক্ষার্থীরা।
দুপুর ১২টার দিকে বকশিবাজার থেকে পলাশী মোড় পর্যন্ত সড়কের দুই পাশে ব্যারিকেড দিয়ে সড়ক অবরোধ করেন তারা। এর আগে মঙ্গলবার শিক্ষার্থীরা আট দফা দাবি জানিয়েছিলেন। কিন্তু গতকাল তারা আরও দুই দফা দাবি বাড়িয়ে মোট ১০ দফা দাবিতে আন্দোলন করছেন।
শিক্ষার্থীদের দশ দফা দাবির মধ্যে রয়েছেÑ খুনিদের শনাক্ত করে সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে, খুনিদের বিশ^বিদ্যালয় থেকে ১১ অক্টোবরের মধ্যে আজীবন বহিষ্কার করতে হবে, আবরার হত্যা মামলার সব খরচ এবং ক্ষতিপূরণ বিশ^বিদ্যালয়কে বহন করতে হবে, মামলা দ্রæত বিচার ট্রাইব্যুনালের অধীন স্বল্পতম সময়ে নিস্পত্তি করতে হবে, অবিলম্বে চার্জশিটের কপিসহ অফিসিয়াল নোটিস দিতে হবে, বুয়েটে সাংগঠনিক ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধ করতে হবে, ঘটনার পর ভিসি কেন ঘটনাস্থলে উপস্থিত হননি এবং ৩৮ ঘণ্টা পর গিয়ে কোনো প্রশ্নের উত্তর না দেওয়ায় আজ দুপুর ২টার মধ্যে শিক্ষার্থীদের কাছে তার জবাব দিতে হবে, আবাসিক হলগুলোতে র‌্যাগের নামে এবং ভিন্নমত দমানোর নামে নির্যাতন বন্ধে প্রশাসনের সক্রিয় ভ‚মিকা নিশ্চিত করতে হবে, এ ধরনের ঘটনা প্রকাশে একটি কমন প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করতে হবে এবং নিরাপত্তার জন্য সব হলের উইংয়ের দুই পাশে সিসি ক্যামেরা বসাতে হবে এবং ১১ অক্টোবরের মধ্যে শেরেবাংলা হলের প্রভোস্টকে প্রত্যাহার করতে হবে।
এদিকে আবরার ফাহাদ হত্যাকাÐকে কেন্দ্র করে শিক্ষার্থীদের চলমান আন্দোলনে বুয়েট ভিসির পদত্যাগসহ ১০ দফা দাবির সঙ্গে সংহতি প্রকাশ করেছে বুয়েট শিক্ষক সমিতি। বুধবার সকাল সাড়ে ১০টা থেকে দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত ৩০০ শিক্ষকের সমন্বয়ে এক বৈঠকের পর শিক্ষার্থীদের সামনে গিয়ে সমিতির সভাপতি একেএম মাসুদ এ ঘোষণা দেন। এ সময় বর্তমান ভিসির অদক্ষতা ও নানা অনিয়মে নির্লিপ্ততার প্রেক্ষিতে ভিসির পদত্যাগ চান শিক্ষকরা।
শিক্ষক সমিতির সভাপতি একেএম মাসুদ বলেছেন, একজন অদক্ষ ভিসির কারণে আমাদের প্রাণপ্রিয় প্রতিষ্ঠানকে নষ্ট হতে দেব না। শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আমরা তোমাদের নিরাপত্তা দিতে পারিনি। আমরা অপরাধী। বুয়েট শিক্ষক সমাজ আবরারের মা-বাবার কাছে ক্ষমাপ্রার্থী। তবে হত্যাকাÐে জড়িতদের বুয়েট থেকে আজীবন বহিষ্কার করতে যাচ্ছি আমরা।
তিনি বলেন, তিনশ শিক্ষকের সমন্বয়ে মিটিং হয়েছে। সে মিটিংয়ে নেওয়া সিদ্ধান্ত আমরা লিখিত আকারে সুপারিশ করব। এ ছাড়া বুয়েটের স্বার্থে কোনো শিক্ষক ও শিক্ষার্থী পরোক্ষ রাজনীতিতে জড়িত হবে না বলেও বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছে।
শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলার পর শিক্ষার্থীদের সঙ্গে সহমত পোষণ করে এ সময় তারা শিক্ষার্থীদের নিয়ে আবরার হত্যার প্রতিবাদে মানববন্ধন করেন।
শেরেবাংলা হল প্রভোস্টের পদত্যাগ : আবরার হত্যাকাÐের ঘটনার পর পদত্যাগ করলেন বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ^বিদ্যালয়ের (বুয়েট) শেরেবাংলা হলের প্রভোস্ট মো. জাফর ইকবাল খান। তবে ঘটনার সময়ে বুয়েট প্রশাসনের সহযোগিতা না পাওয়ার অভিযোগও করেন তিনি। গতকাল বিকাল ৩টার দিকে পদত্যাগপত্র জমা দেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মো. জাফর ইকবাল খান। তিনি বলেন, বুধবার সকালে উপাচার্যকে না পাওয়ায় তার কার্যালয়ে এবং রেজিস্ট্রার বরাবর পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছি।
ঢাবিতে কালো পতাকা মিছিল, ভারতের সঙ্গে চুক্তি বাতিলের দাবি : বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ^বিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যার প্রতিবাদে এবং খুনিদের বিচার দাবিতে কালো পতাকা মিছিল করেছেন ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। এ সময় সম্প্রতি বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যকার চুক্তি বাতিলের দাবিতে সেøাগান দেন তারা। ঢাকা বিশ^বিদ্যালয় সন্ত্রাসবিরোধী রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশ থেকে মিছিলটি শুরু হয়ে ভিসি চত্বর, ব্রিটিশ কাউন্সিলের সামনে দিয়ে পলাশীর মোড় হয়ে বুয়েটে ক্যাম্পাস প্রদক্ষিণ করেন তারা।
ঢাকা বিশ^বিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) ভিপি নুরুল হক নুর, সমাজসেবা সম্পাদক আকতার হোসেন, বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের আহŸায়ক হাসান আল মামুন, যুগ্ম-আহŸায়ক ফারুক হোসেন, মুহাম্মদ রাশেদ খান, ছাত্র ফেডারেশন সভাপতি আবু রায়হান খানসহ বিভিন্ন প্রগতিশীল সংগঠনের নেতা এবং ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা মাথায় কালো কাপড় বেঁধে কালো পতাকা মিছিলে অংশ নেন।
মিছিলটি বুয়েট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের সামনে গেলে সেখানে ডাকসুর ভিপি নুরুল হক নুর বুয়েট শিক্ষার্থীদের সঙ্গে সংহতি জানান এবং তাদের পাশে থাকার ঘোষণা দেন। এ সময় দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত এবং এদের বিচার না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার জন্য অনুরোধ করেন ভিপি নুর।
উপাচার্যের পদত্যাগ চায় বুয়েট অ্যালামনাই : বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয়ের (বুয়েট) উপাচার্যের পদত্যাগ ও বিশ^বিদ্যালয়ে দলীয় রাজনীতি নিষিদ্ধের দাবি জানিয়েছে বুয়েট অ্যালামনাই। বুয়েটের শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ (২১) হত্যার ঘটনায় তারা সাত দফা দাবি জানিয়েছে। বুধবার দুপুরে বুয়েট ক্যাম্পাস প্রাঙ্গণে আবরার ফাহাদ হত্যার প্রতিবাদে এক সমাবেশ থেকে বুয়েট অ্যালামনাই এসব দাবি জানায়।
বুয়েট অ্যালামনাইয়ের সভাপতি অধ্যাপক জামিলুর রেজা চৌধুরী সাত দফার লিখিত বিবৃতি পাঠ করেন। সেগুলোর মধ্যে অন্যতম হলোÑ অনতিবিলম্বে হত্যার সঙ্গে জড়িত সবাইকে বিশেষ বিচার ট্রাইব্যুনালের আওতায় এনে দ্রæততম সময়ে বিচারের জোর দাবি। এই হত্যাকাÐের সঙ্গে জড়িত সব ছাত্রকে অনতিবিলম্বে বুয়েট থেকে আজীবনের জন্য বহিষ্কার করতে হবে।
আবরার হত্যার বিচার দাবিতে ঢাবি সাদা দল, ছাত্রদল : বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ^বিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদকে হত্যার ঘটনায় জড়িতদের শাস্তির দাবিতে মৌন অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছেন ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ের বিএনপি-জামাতপন্থি সাদা দলের শিক্ষকেরা ও জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল। বুধবার দুপুরে বিশ^বিদ্যালয়ের অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে পৃথকভাবে তারা এ কর্মসূচি পালন করা হয়। এতে অর্ধশতাধিক শিক্ষক ও কয়েকশ শিক্ষার্থী অংশ নেন।
গেস্টরুমে ভালো কিছু শেখানো হয়, নির্যাতন হয় না : গেস্টরুমে ভালো কিছু শেখানো হয় দাবি করে ছাত্রলীগের নেতারা বলেছেন, ‘এখানে কোনো নির্যাতন করা হয় না, শিক্ষার্থীদের ভালো কিছু শেখানো হয়।’ বুধবার ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনে বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদের হত্যাকাÐে গৃহীত ব্যবস্থার পর্যালোচনা এবং হত্যাকারীদের দ্রæত সময়ের মধ্যে শাস্তির দাবিতে সংবাদ সম্মেলনে তারা এ দাবি করেন। গেস্টরুম নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য বলেন, গেস্টরুম ভালো সংস্কৃতি। এখানে প্রথমবর্ষেও শিক্ষার্থীদের অনেক নিয়মকানুন শেখানো হয়।






সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ।
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]