ই-পেপার সোমবার ১৪ অক্টোবর ২০১৯ ২৯ আশ্বিন ১৪২৬
ই-পেপার সোমবার ১৪ অক্টোবর ২০১৯

আবরার হত্যাকাণ্ড
পুলিশ ও বুয়েট প্রশাসনের ভূমিকা খতিয়ে দেখার দাবি
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ১০ অক্টোবর, ২০১৯, ১২:০০ এএম আপডেট: ১০.১০.২০১৯ ১২:৩১ এএম | প্রিন্ট সংস্করণ

পুলিশ ও বুয়েট প্রশাসনের ভূমিকা খতিয়ে দেখার দাবি

পুলিশ ও বুয়েট প্রশাসনের ভূমিকা খতিয়ে দেখার দাবি

বুয়েট ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় পুলিশ ও বুয়েট প্রশাসনের ভূমিকা খতিয়ে দেখতে নিরপেক্ষ তদন্ত কমিশনের দাবি জানিয়েছে মানবাধিকার সংস্থা আইন ও সালিশ কেন্দ্র (আসক)। বুধবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ দাবি জানান আসকের নির্বাহী পরিচালক শীপা হাফিজা।
সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়Ñ আসক মনে করে, দেশের শ্রেষ্ঠ বিদ্যাপীঠে এমন নৃসংশ হত্যাকাণ্ডের সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ তদন্ত হওয়া অত্যন্ত জরুরি। তদন্তের মাধ্যমে জড়িতদের চিহ্নিত করার পাশাপাশি এ ধরনের ঘটনা প্রতিরোধে, ঘটনা ঘটাকালে কিংবা ঘটনা পরবর্তী সময়ে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের ও আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ভূমিকা খতিয়ে দেখার প্রয়োজন রয়েছে। আসক এ ঘটনায় একটি নিরপেক্ষ তদন্ত কমিশন দাবি করছে। পাশাপাশি পুলিশের দায়িত্বশীল কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে পুলিশ কেন কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণে ব্যর্থ হলো তার ব্যাখ্যা গণমাধ্যমে উপস্থাপনের দাবি জানাচ্ছি।
গণমাধ্যমের বরাত দিয়ে আসক বলেছেÑ বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শেরেবাংলা হলের ছাত্র আবরার ফাহাদকে পেটানো হচ্ছে, এমন খবর পেয়ে হলে যায় পুলিশ। তবে বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক পুলিশকে ভেতরে ঢুকতে না দিয়ে অভ্যর্থনাকক্ষে বসিয়ে রাখেন। এরপর আববারকে উদ্ধারে কোনো ব্যবস্থা না নিয়েই এক ঘণ্টা বসে থেকে ফিরে যায় পুলিশ। দ্বিতীয়বার যখন পুলিশ হলে যায়, তখন আবরার আর বেঁচে নেই। শেরেবাংলা হলের একাধিক শিক্ষার্থী গণমাধ্যমে বলেছেন, পুলিশ সময় মতো তৎপর হলে আবরারকে হয়তো বাঁচানো যেত। পুলিশের লালবাগ বিভাগের অতিরিক্ত উপকমিশনার কামাল হোসেন শেরেবাংলা হলে পুলিশ গিয়ে ফিরে আসার কথা গণমাধ্যমের কাছে স্বীকার করেছেন। অন্যদিকে বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যাকাণ্ডের পরে দীর্ঘ সময় ক্যাম্পাসে অনুপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. সাইফুল ইসলাম। আন্দোলনের দ্বিতীয় দিনে ভিসিকে আল্টিমেটাম দিয়ে আন্দোলনকারী ছাত্রছাত্রীরা দাবি করেন, ৮ অক্টোবর বিকাল ৫টার মধ্যে ভিসিকে ক্যাম্পাসে এসে জবাবদিহি না করা পর্যন্ত তারা ক্যাম্পাসে অবস্থান করবে। দাবির মুখে, বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য সাইফুল ইসলাম ওইদিন তার কার্যালয় থেকে বেরিয়ে এসে শিক্ষার্থীদের প্রশ্নের মুখোমুখি হন। আমরা মনে করি, ভিসির এ ধরনের আচরণ অনাকাক্সিক্ষত এবং অপ্রত্যাশিত। ছাত্রছাত্রীদের নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ হওয়ার দায় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ এড়াতে পারে না।






সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ।
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]