ই-পেপার  বুধবার ১৬ অক্টোবর ২০১৯ ১ কার্তিক ১৪২৬
ই-পেপার  বুধবার ১৬ অক্টোবর ২০১৯

ভূঞাপুরে যমুনা নদীতে ফের ভাঙন দিশেহারা গ্রামবাসীর চোখে জল
ভ‚ঞাপুর (টাঙ্গাইল) সংবাদদাতা
প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ১০ অক্টোবর, ২০১৯, ১২:০০ এএম | প্রিন্ট সংস্করণ

যমুনা নদীর পূর্বপাড়ে নতুন করে ভাঙন শুরু হয়েছে। গেল বন্যায় বড় পরিসরে ভাঙনের পর ফের ভাঙন শুরু হওয়ায় দিশেহারা নদী তীরবর্তী গ্রামের মানুষ। ভাঙনে শত শত বসতভিটা যাচ্ছে যমুনা নদীর পেটে।
জানা গেছে, নদীভাঙনে অনেক পরিবার উদ্বাস্তু হয়েছে। গত বন্যায় টাঙ্গাইলের ভ‚ঞাপুর উপজেলার অর্জুনা, গাবসারা, গোবিন্দাসীÑ এই তিনটি ইউনিয়নের কয়েকটি গ্রাম ভাঙনের কবলে পড়ে। তার মধ্যে অর্জুনা ইউনিয়নের অর্জুনা, তাড়াই, জগৎপুরা, কুঠিবয়ড়া, গোবিন্দাসী ইউনিয়নের খানুরবাড়ী, কষ্টাপাড়া, ভালকুটিয়াসহ কয়েকটি গ্রামের বেশকিছু অংশ বিলীন হয়ে যায়। ভাঙনকবলিত পরিবারগুলোর নতুন করে বসতভিটার ব্যবস্থা করার সামর্থ্য নেই।
এর আগে তাড়াই বেড়িবাঁধ ভেঙে হাজার হাজার একর ফসলি জমি নষ্ট হয়ে যায়। পরে তাড়াই বেড়িবাঁধ সংস্কার করলেও এখনও হুমকির মুখে রয়েছে। ভুক্তভোগী কষ্টাপাড়া গ্রামের রঞ্জিত কুমার সাহা জানান, যমুনার পূর্বপাড় ভাঙতে ভাঙতে শেষ হয়ে গেছে। আমাদের যাওয়ার আর কোনো জায়গা নেই। খুব দ্রæত বেড়িবাঁধ না দিলে যেটুকু আছে সেটুকুও থাকবে না।
টাঙ্গাইল পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. সিরাজুল ইসলাম জানান, অস্থায়ীভাবে ভাঙনকবলিত এলাকায় জিওব্যাগ ডাম্পিং করা হচ্ছে।
এ ব্যাপারে স্থানীয় এমপি ছোট মনির জানান, যমুনার ভাঙন থেকে রক্ষার জন্য অস্থায়ীভাবে জিওব্যাগ ফেলার কাজ চলছে। নলিন থেকে বঙ্গবন্ধু সেতু পর্যন্ত পূর্বপাড়ে স্থায়ীভাবে বেড়িবাঁধের কাজ শুরু হয়েছে।





সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ।
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]