ই-পেপার সোমবার ১৪ অক্টোবর ২০১৯ ২৯ আশ্বিন ১৪২৬
ই-পেপার সোমবার ১৪ অক্টোবর ২০১৯

নিউজিল্যান্ডে থামল যুবাদের জয়রথ
ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ১০ অক্টোবর, ২০১৯, ১২:০০ এএম | প্রিন্ট সংস্করণ

নিউজিল্যান্ড সফরে জয়রথে চেপে বসেছিল বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল। টানা তিন জয়ে নিশ্চিত আগেই নিশ্চিত করেছেন পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ। অবশেষে চতুর্থ ম্যাচে থামলো যুবদের জয়রথ। লিঙ্কনের বার্ট সাটক্লিফ ওভালে প্রথমে ব্যাটিংয়ে নেমে ২৯৫ রানের বড় সংগ্রহই পেয়েছিল বাংলাদেশ। কিন্তু ব্যাটসম্যানদের গড়ে দেওয়া প্ল্যাটফর্মে জ্বলে উঠতে ব্যর্থ বোলাররা। তাতে নিউজিল্যান্ড ‘এ’ দল জয় নিশ্চিত করেছে ৪ উইকেট এবং ৫ বল হাতে রেখে।
বুধবার চতুর্থ ওয়ানডেতে বাংলাদেশের সফল বোলার ছিলেন আসাদুল্লাহ গালিব। ৯ ওভারে তিনি ৩ উইকেট শিকার করলেও দিয়েছেন ৭৮ রান। ১০ ওভারের কোটা পূরণ করা শরিফুল ইসলাম (১/৪১) এবং অভিষেক দাস (১/৪৮) ছিলেন মিতব্যয়ী। কিন্তু বাকিরা ছিলেন নিজেদের ছায়া হয়েই। ৬.১ ওভারে ৪৩ রান দিয়েছেন শামিম হোসেন, তৌহিদ হৃদয় ৪ ওভারে ২৯ এবং হাসান মুরাদ ১০ ওভারে ৫১। তিনজনের কেউই পাননি উইকেট।
তাতেই বৃথা গেছে বাংলাদেশের চার হাফসেঞ্চুরি। ৫০ রানের কোটা স্পর্শ করেছেন দুই ওপেনারÑ তানজিদ হাসান এবং পারভেজ হোসেন ইমন। ব্যক্তিগত ৫১ রানে তানজিদ জেসে টাসকোফের শিকার হলে ভাঙে সফরকারীদের ৭১ রানের উদ্বোধনী জুটি। আরেক ওপেনার ইমনকে (৫৫) ফেরান কিউই দলপতি টাসকোফ। তার আগে দুই অঙ্কের রান স্পর্শ করতেই সাজফরের পথ ধরেন মাহমুদুল হাসান জয় (১৩) এবং শাহাদাত হোসেন (১২)।
এরপর বাংলাদেশ বড় সংগ্রহের পথে হাঁটে অধিনায়ক আকবর আলী এবং হৃদয়ের ব্যাটে। এই যুগল দলের খাতায় যোগ করেন ১০৪ রান। দলীয় ২৫৬ এবং ব্যক্তিগত ৬৬ রানে কিউই পেসার ডেভিড হ্যানকোকের শিকার হন আকবর। একই ওভারে হ্যানকোক ফেরান শামিমকে (০)। ইনিংসে ৪৯তম ওভারের পঞ্চম বলে স্বাগতিক এই বোলারের বলেই আউট হন দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৭৩ রানের ইনিংস খেলা হৃদয়। পরে অভিষেকের ৬ বলে ১৩ রানের সুবাদে কিউই যুবাদের জয়ের লক্ষ্য দাঁড়ায় ২৯৬।
যা তাড়া করতে নেমে শুরুতেই ডেভান বিশ^কাকে (৮) হারায় স্বাগতিকরা। তবে শুরুর ধাক্কা সামলেন নেন ওলি হোয়াইট এবং ফার্গুস লেম্যান, গড়ে তুলেন ১২২ রানের জুটি। তবে হোয়াইট (৪৫) আর লেম্যানকে (৭৬) আউট করে বাংলাদেশকে ম্যাচে ফেরান গালিব। উইলিয়াম ক্লার্ককে (৩৪) সাজঘরে ফিরিয়ে উত্তেজনা আরও বাড়ান অভিষেক। এরপর জো ম্যাকেঞ্জি (১৩) গালিবের তৃতীয় শিকার হলে এবং বে পোমারে (১০) রান আউটের ফাঁদে পড়লে ম্যাচ হেলে পড়ে বাংলাদেশের দিকেই। কিন্তু কিউই দলপতি টাসকোফের বীরত্বে জয়ের হাসি হাসা হয়নি আকবরদের।
৭৭ বলে হার না মানা ৬৬ রানের ইনিংস খেলে শেষ ওভারে দলের জয় নিশ্চিত করেই মাঠ ছাড়েন টাসকোফ। তাকে দারুণ সঙ্গ দেওয়া আদিত্য অশোক অপরাজিত ছিলেন ২৪ রানে।





সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ।
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]