ই-পেপার রোববার ১৭ নভেম্বর ২০১৯ ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
ই-পেপার রোববার ১৭ নভেম্বর ২০১৯

গোপালগঞ্জে ২০ ছাত্রের চুল কেটে দিল অধ্যক্ষ
গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি
প্রকাশ: শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর, ২০১৯, ১২:০০ এএম আপডেট: ১৭.১০.২০১৯ ১১:৫৬ পিএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 23

গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ায় পরীক্ষা চলাকালীন ২০ ছাত্রের চুল কেটে দিয়েছেন অধ্যক্ষ। এ ঘটনার প্রতিবাদে পরীক্ষা না দিয়েই হল থেকে বেরিয়ে যায় ছাত্ররা। পরবর্তী সময়ে শিক্ষকদের মধ্যস্থতায় ছাত্ররা পরীক্ষা দেয়। এ নিয়ে ছাত্রদের মাঝে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। বুধবার উপজেলার কুশলা নেছারিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদ্রাসায় এ চুল কাটার ঘটনা ঘটে।
কুশলা নেছারিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদ্রাসার দাখিল শ্রেণির শিক্ষার্থী ইয়ামিন শিকদার, মাহামুদুল হাসান, রমজান ফকির জানায়, বুধবার আমাদের বাংলা পরীক্ষা চলছিল। এ সময় হঠাৎ করে অধ্যক্ষ মো. বাকের হোসাইন কাঁচি দিয়ে ২০ ছাত্রের মাথার চুল কেটে দেয়। এ ঘটনার পর আমরা পরীক্ষা না দিয়েই হল থেকে বেরিয়ে যায়। পরবর্তী সময়ে মাদ্রাসাটির অন্য শিক্ষকদের মধ্যস্থাতায় আমরা পরীক্ষা দেয়। নাম প্রকাশ না করা শর্তে অপর এক ছাত্র জানায়, চুল কাটার পর আমরা পরীক্ষায় না দিয়ে বেরিয়ে আসার পরে আমাদের দাখিল পরীক্ষার ফরমপূরণ করতে দেওয়া হবে না বলে হুমকি দেওয়া হয়। এ বিষয়ে কুশলা নেছারিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মো. বাকের হোসেন চুল কাটার কথা স্বীকার করে তিনি বলেন, আমি দাখিল শ্রেণির সব ছাত্রকে পরীক্ষার আগের দিন চুল কেটে মাদ্রাসায় আসতে বলেছি। ছাত্ররা আমার কথার অবাধ্য হওয়ার কারণে ওদের চুল কেটে দিয়েছি। আমি ওদের পরিষ্কার পরিচ্ছন্নভাবে থাকা ও নীতি নৈতিকতা শিক্ষা দেওয়ার জন্যই চুল কেটে দিয়েছি। তবে আমি কাউকে ফরমপূরণ করতে দেব না এ কথা বলিনি।
এ ব্যাপারে কোটালীপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এসএম মাহফুজুর রহমান বলেন, বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হবে। যদি সত্যতা পাওয়া যায় তা হলে বিধি মোতাবেক অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]