ই-পেপার রোববার ১৭ নভেম্বর ২০১৯ ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
ই-পেপার রোববার ১৭ নভেম্বর ২০১৯

আশার আলো জ্বেলেও নিভে আছে মাদ্রাসা’র কার্যক্রম
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশ: শনিবার, ১৯ অক্টোবর, ২০১৯, ১২:০০ এএম আপডেট: ১৮.১০.২০১৯ ১১:১৩ পিএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 32

আশার আলো জে¦লেও নিভে আছে ‘খলিলুর রহমান কওমি মাদ্রাসা’র কার্যক্রম। চারতলাবিশিষ্ট ভবন নির্মাণের কাজ শুরু হয়েও থেমে আছে অর্থের অভাবে। ফলে আনুষ্ঠানিকভাবে ইসলামী শিক্ষার প্রদীপ এখনও জ¦লে ওঠেনি নওগাঁর কুসুম শহরে।সরেজমিন ঘুরে জানা যায়, নওগাঁ জেলার মহাদেবপুর থানার শেরপুর কুসুম শহর এলাকায় ২০১৪ সালে স্থানীয়দের সহযোগিতায় একটি মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ নেন মাওলানা আব্দুল কাহহার বিন খলিল ও আবু সাঈদ। তাদের পৈত্রিক সূত্রে প্রাপ্ত ৪৮ ডিসমেল জমির ওপর এর ভিত্তিপ্রস্তর করেন। একই সঙ্গে চারতলা বিশিষ্ট ভবন নির্মাণেরও কাজ শুরু করেন। ২০১৫ সালে জায়গাটি মাদ্রাসার নামে ওয়াকফ করে এর নাম রাখেন ‘খলিলুর রহমান কওমি মাদ্রাসা’। উদ্যোক্তাদের ও স্থানীয়দের সহযোগিতায় ধীরে ধীরে প্রায় ৭০ ফিট লম্বা ও ৩০ ফিট প্রস্থ ভিত্তি ও ফাউন্ডেশন নির্মাণ করা হয়। এতে খরচ হয় প্রায় ৭ লাখ টাকা। কিন্তু ফ্লোর ও অবকাঠামো নির্মাণের আগেই অর্থ সংকট দেখা দেওয়ায় থেমে যায় মহতি এ কাজ। তারপর থেকে পরিত্যক্ত অবস্থায় পড়ে আছে নির্মাণাধীন এই মাদ্রাসা।

উদ্যোক্তা মাওলানা আব্দুল কাহহার জানান, ‘আমাদের যা সামর্থ্য ছিল- তা দিয়ে ফাউন্ডেশনের কাজ শেষ হয়েছে। এখন আপাতত তিন-সাড়ে তিন লাখ টাকা খরচে প্রথম তলার ফ্লোরের কাজ করতে পারলেই মাদ্রাসার কার্যক্রম শুরু করা যাবে ইনশাআল্লাহ।’
স্থানীয়রা জানান, আশপাশে ১০-১৫ গ্রাম মিলে কোনো কওমি মাদ্রাসা নেই। ফলে তাদের সন্তানদের ধর্মীয় শিক্ষার প্রয়োজন অপূরণীয় থেকে যাচ্ছে। ‘হাজী বসিরুদ্দিন দাখিল মাদ্রাসা’ নামে একটি আলিয়া মাদ্রাসা থাকলেও মানসম্পন্ন মক্তব ও হিফজ বিভাগ না থাকায় এলাকাবাসীর দাবি- ‘খলিলুর রহমান কওমি মাদ্রাসা’ নির্মাণের কাজ দ্রুত সম্পন্ন হয়ে এর শিক্ষা কার্যক্রম শুরু করতে পারলে এলাকার সন্তানরা ইসলামী জ্ঞানে আলোকিত হতে পারবে।






সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]