ই-পেপার শুক্রবার ১৫ নভেম্বর ২০১৯ ১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
ই-পেপার শুক্রবার ১৫ নভেম্বর ২০১৯

এমপির হয়ে পক্সি দিতে গিয়ে হাতে নাতে ধরা, পরীক্ষার্থী বহিস্কার
৩ সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন
নরসিংদী প্রতিনিধি
প্রকাশ: শনিবার, ১৯ অক্টোবর, ২০১৯, ৭:০২ পিএম আপডেট: ১৯.১০.২০১৯ ৭:১৪ পিএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 634

এমপির হয়ে পক্সি দিতে গিয়ে হাতে নাতে ধরা, পরীক্ষার্থী বহিস্কার

এমপির হয়ে পক্সি দিতে গিয়ে হাতে নাতে ধরা, পরীক্ষার্থী বহিস্কার

উচ্চ শিক্ষার সার্টিফিকেট লাভের আশায় প্রতারনা ও জালিয়াতির আশ্রয় নিয়েছেন নরসিংদীতে সংরক্ষিত মহিলা আসনের এমপি ও প্রয়াত পৌর মেয়র লোকমান হোসেনর স্ত্রীর তামান্না নুসরাত বুবলী। নিজে পরীক্ষা না দিয়ে পর পর ৮টি পরীক্ষায় অংশ নেয় তার পক্ষে পক্সি পরীক্ষার্থীরা। বিএ পরীক্ষার শেষ পরীক্ষায় দিতে গিয়ে হলে হাতে নাতে ধরা পড়েছে এক শিক্ষার্থী। তাই তাকে পরীক্ষা থেকে বহিস্কার করেছে কলেজ কতৃপক্ষ। একই সাথে জালিয়াতির বিষয়টি অনুসন্ধানে কলেজের পক্ষ থেকে তিন সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। মহিলা এমপি ববুলীর এই দূনীতির খবর বেরিয়ে আসলে এলাকায় নিন্দা সমালোচনার ঝড় উঠে।

জানা যায়,নরসিংদী ও গাজীপুর আসনের সংরক্ষিত মহিলা আসনের এমপি তামান্না নুসরাত বুবলি। তিনি নরসিংদী পৌরসভার প্রয়াত মেয়র ওসাবেক শহর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক লোকমান হোসেনর স্ত্রী। তার দেবর কামরুজ্জামান কামরুল নরসিংদী পৌরসভার মেয়র ও শহর আওয়ামীলীগের সভাপতি। অপর দেবর শামীম নেওয়াজ জেলা যুবলীগের সাধারন সম্পাদক। পুরো পরিবারই আওয়ামীলীগের রাজনিতির সাথে সম্পৃক্ত। হলফ নামায় দেয়া তথ্য অনুযায়ী বুবলী এইচ এসসি পাস। উচ্চ শিক্ষার সার্টিফিকেট লাভের আশায় তিনি বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিনে ভর্তি হন। এ পর্যন্ত চারটি সেমিস্টারের ১৩টি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। অভিযোগ রয়েছে ১৩টি পরীক্ষার স্ব-শরীরে একটিতেও তিনি অংশ নেননি। তার পক্ষে একেক সময় একেক জন অংশ নিয়েছে। আর এমপির পক্সি প্রার্থীকে সুবিধা দিতে পরীক্ষাকে কেন্দ্র সহ হল পাহাড়ায় থাকতেন এমপির লোকজন সহ ক্যাডার বাহিনী। তাই ভয়ে ছাত্র-শিক্ষক কেউই মুখ খুলতে পারনে না। সর্বশেষ গতকাল শুক্রবার পরীক্ষা দিতে এসে হাতে নাতে ধরা পড়েছেন।

পক্সি পরীক্ষার্থী এশা নিজেকে তামান্না নুসরাত বুবলী হিসেবে দাবী করেন। তবে ছবি সংবলিত প্রবেশ পত্র দেখাতে পারেনি। এমপি তামান্নার পরীক্ষা কিভাবে দিচ্ছেন তা জানতে চাইলে তার কোন সঠিক জবাব দিতে পারেননি পক্সি পরীক্ষাথী এশা। ভূয়া বা পক্সি পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার একজন পরীক্ষার্থীকে আইন শৃংখলা বাহিনীর হাতে তুলে দেওয়ার বিধান থাকলেও এর কিছুই করেননি পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক। অনেকটা বীর দপেই হল থেকে বেরিয়ে যায় ওই পরীক্ষার্থী।

নরসিংদী সরকারী কলেজ পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক/হল ইনচার্জ প্রফেসর শফিকুল ইসলাম বলেন, পরীক্ষার্থীর ছবি সংবলিত প্রবেশ পত্র ছিলনা। প্রবেশ পত্র নাকি হারিয়ে গেছে। তাবে থানার জিডি কপি নিয়ে পরীক্ষা হলে পরীক্ষায় অংশ নিতে আসছে। তাই আমরা চিনতে পারিনি। বিষয়টি জানার পর পক্সি পরীক্ষার্থী এশাকে আটক করতে চেয়েছিলাম। কিন্তু দায়িত্বে ছিল এক জন পুলিশ সদস্য। তাই কথা বলার ফাঁকে সে দৌড়ে পালিয়ে যায়। তবে পরে অনেক পুলিশ সদস্যই কলেজে এসেছেন।

এসব বিষয়য়ে কথা বলতে নরসিংদী সংরক্ষিত আসনের মহিলা এমপি তামন্না নুতরাত বুবলীকে ফোন করেলেও তার মোবাইল বন্ধ পাওয়া যায়। তিনি ঢাকায় এমপি হোস্টেলে রয়েছেন বলে জাানিয়েছেন তার এক ঘনিষ্ট জন।

নরসিংদী সরারী কলেজে অধক্ষ্য হাবিবুর রহমান আকন্দ বলেন, তবে জালিয়াতির মাধ্যমে পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার তামান্না নুসরাত বুবলীর সকল পরীক্ষা বাতিল করা হয়েছে। তাকে পরীক্ষা থেকেও বহিস্কার করা হয়েছে। একই সাথে জালিয়াতির বিষয়টি অনুসন্ধানে কলেজের পক্ষ থেকে তিন সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]