ই-পেপার রোববার ১৭ নভেম্বর ২০১৯ ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
ই-পেপার রোববার ১৭ নভেম্বর ২০১৯

আল্লাহর ওপর ভরসার পুরস্কার
মাওলানা মুনীরুল ইসলাম
প্রকাশ: রোববার, ২০ অক্টোবর, ২০১৯, ১২:০০ এএম আপডেট: ১৯.১০.২০১৯ ১১:৪৭ পিএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 49

ঈমানদার মুসলমান আল্লাহর ওপর তাওয়াক্কুল করে চলবেনÑ এটাই স্বাভাবিক। তাওয়াক্কুল মানে মহান আল্লাহকে নিজের অভিভাবক বানিয়ে নেওয়া এবং তার ওপর পরিপূর্ণভাবে ভরসা করা। আর অভিভাবক অবশ্যই তার অধীনের লোকদের কল্যাণের কথা ভাবেন এবং অকল্যাণ থেকে বাঁচিয়ে রাখেন। তাই আল্লাহ তায়ালাকে সর্বশক্তিমান এবং সব কিছুর নিয়ন্তা বিশ^াস করে তার ওপর ভরসা করলে আল্লাহ তাকে সফল করবেন এবং তাওয়াক্কুলের জন্য উত্তম প্রতিদানও দেবেন। তবে মনে রাখতে হবে, হাত-পা গুটিয়ে ঘরে বসে থাকার নাম আল্লাহর ওপর তাওয়াক্কুল নয়, বরং আল্লাহর দেওয়া উপায়-উপকরণ ও সুযোগ-সুবিধা সার্বিকভাবে কাজে লাগিয়ে ফলাফলের জন্য তার ওপর নির্ভর করার নামই হচ্ছে তাওয়াক্কুল। রাসুলুল্লাহ (সা.) এবং তার সাহাবায়ে কেরামের চেয়ে বেশি তাওয়াক্কুলকারী পৃথিবীতে আর কেউ ছিল না এবং থাকবেও না। অথচ তারাও জাগতিক উপায়-উপকরণ ছেড়ে দিয়ে ঘরে বসে থাকেননি। বরং তারাও প্রথমে সামর্থ্যানুযায়ী জাগতিক ব্যবস্থা অবলম্বন করেছেন, এরপর আল্লাহর ওপর ভরসা করেছেন। হজরত আনাস (রা.) থেকে বর্ণিত, ‘এক ব্যক্তি বলল, হে আল্লাহর রাসুল! আমি কি উট বেঁধে রেখে আল্লাহর ওপর ভরসা করব, নাকি বন্ধনমুক্ত রেখে? রাসুলুল্লাহ (সা.) বললেন, উট বেঁধে নাও, তারপর আল্লাহর ওপর ভরসা কর।’ (তিরমিজি : ২৫১৭)। এখানে জাগতিক উপায়-উপকরণ ব্যবহারের প্রতি ইঙ্গিত দেওয়া হয়েছে।সব কাজে তাওয়াক্কুলের নির্দেশ দিয়ে পবিত্র কোরআনে আল্লাহ তায়ালা বলেন, ‘আপনি আল্লাহর ওপর ভরসা করুন। কার্যনির্বাহী হিসেবে আল্লাহই যথেষ্ট।’ (সুরা আহযাব : ৩)। ভরসা কীভাবে করতে হবে, সে শিক্ষা দিয়ে আল্লাহ বলেন, ‘(তারা বলল)Ñ হে আমাদের পালনকর্তা! আমরা আপনার ওপরই ভরসা করেছি, আপনার দিকেই আমরা মুখ করেছি এবং আপনার কাছেই ফিরে যাব।’ (সুরা মুমতাহিনা : ৪)।

অন্য নবী-রাসুলরাও সব ধরনের কার্যক্রমে একমাত্র আল্লাহ তায়ালার ওপর ভরসা করতেন। আল্লাহর বাণী- ‘আর তাদের শুনিয়ে দাও নূহের অবস্থাÑ যখন সে স্বীয় সম্প্রদায়কে বলল, হে আমার সম্প্রদায়! যদি তোমাদের মধ্যে আমার উপস্থিতি এবং আল্লাহর আয়াতগুলোর মাধ্যমে নসিহত করা ভারী বলে মনে হয়ে থাকে,
তবে আমি আল্লাহর ওপর ভরসা করছি।’ (সুরা ইউনুস : আয়াত ৭১)। আল্লাহ তায়ালা তার হাবিবকে নির্দেশ দান করেনÑ ‘আর আপনি সেই চিরঞ্জীবের ওপর ভরসা করুন, যার মৃত্যু নেই এবং তার প্রশংসাসহ পবিত্রতা ঘোষণা করুন। তিনি বান্দার গুনাহ সম্পর্কে যথেষ্ট খবরদার।’ (সুরা আল ফুরকান  : ৫৮)

আল্লাহর ওপর তাওয়াক্কুল করলে যেসব ফায়দা বা পুরস্কার অর্জন করা যায়, তা হলো-
শয়তান থেকে বাঁচার মাধ্যম : আল্লাহ তায়ালার ওপর তাওয়াক্কুল মুমিনকে পাপী শয়তানের অনিষ্ট থেকে রক্ষা করে। আল্লাহ তায়ালা ইরশাদ করেনÑ ‘তাদের ওপর শয়তানের আধিপত্য চলে না, যারা আল্লাহর ওপর বিশ^াস স্থাপন করে এবং স্বীয় রবের ওপর ভরসা রাখে।’ (সুরা  নাহল)

দুনিয়ায় অপদস্ত হয় না : বদরের যুদ্ধে মুষ্টিমেয় (৩১৩ জন) মুসলমান বিরাট কাফির (এক হাজার) বাহিনীর বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে আসার কারণে কাফিররা বলেছিল- এই বেচারাদের তাদের দ্বীনই প্রতারণায় ফেলে মৃত্যু মুখে এনে দাঁড় করিয়েছে।
আল্লাহ তায়ালা তাদের উত্তরে বলেছেনÑ ‘যারা আল্লাহর ওপর তাওয়াক্কুল ও ভরসা করে, (জেনে রাখ, তারা কখনও অপমানিত হয় না) কারণ, আল্লাহ তায়ালা (সব কিছুর ওপর) পরাক্রমশীল, সুবিজ্ঞ, তিনি তাদের রক্ষা করেন।’ (সুরা আল আনফাল : ৪৯)
আল্লাহ তার সহায় হন : যে ব্যক্তি আল্লাহ তায়ালার ওপর ভরসা করে, তিনি তার মনের ইচ্ছা পূর্ণ করেন।
আল্লাহ তায়ালা ইরশাদ করেন- ‘যে ব্যক্তি আল্লাহর
ওপর ভরসা করে, আল্লাহই তার জন্য যথেষ্ট।’ (সুরা তালাকা : আয়াত ৩)

আল্লাহ তার সব সমস্যা সমাধান করেন : তিরমিজি ও ইবন মাজায় হজরত ওমর ইবন খাত্তাব (রা.) থেকে বর্ণিত আছে, মহানবী (সা.) বলেছেনÑ ‘যদি তোমরা আল্লাহর ওপর যথাযথ ভরসা করতে, তবে আল্লাহ তোমাদের পাখির মতো রিজিক দান করতেন। পাখিগুলো সকাল বেলায় ক্ষুধার্ত অবস্থায় নীড় থেকে বের হয়ে যায় এবং সন্ধ্যায় উদরপূর্তি করে নীড়ে ফিরে আসে।’ (তিরমিজি)
বিনা হিসাবে জান্নাত লাভ : সহিহ বুখারি ও মুসলিমে হজরত ইবন আব্বাস (রা.) থেকে বর্ণিত আছে, মহানবী (সা.) বলেছেনÑ ‘আমার উম্মতের ৭০ হাজার লোক বিনা হিসাবে জান্নাতে প্রবেশ করবে। তাদের অন্যতম গুণ এই যে, তারা আল্লাহর ওপর ভরসা করে।’ (তাফসিরে মাজহারি) হজরত আবু হুরায়রা (রা.) থেকে বর্ণিত।
তিনি বলেন, রাসুল (সা.) বলেছেনÑ ‘এমন জাতি জান্নাতে প্রবেশ করবে যাদের অন্তর পাখির অন্তরের ন্যায়।’ (তাদের তাওয়াক্কুল আল্লাহ তায়ালার ওপর, এ বিশ^াস নিয়ে খালি পেটে বাসা থেকে বের হয় এবং ভরা পেটে বাসায় ফিরে) তাওয়াক্কুলের সম্পর্ক ঈমানের সঙ্গে। মুমিন সব কাজে আল্লাহর ওপর ভরসা রাখে। আর মুশরিক ভরসা করে গাইরুল্লাহর ওপর। যার ঈমান যত মজবুত, আল্লাহর ওপর তার তাওয়াক্কুল ও ভরসা তত সুদৃঢ়। আর আল্লাহর ওপর ভরসা যার যত দৃঢ়, তার জন্য পরকালে তত পুরস্কার থাকবে ইনশাআল্লাহ।
লেখক : সাধারণ সম্পাদক, বাংলাদেশ ইসলামী লেখক ফোরাম





সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]