ই-পেপার বৃহস্পতিবার ২১ নভেম্বর ২০১৯ ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
ই-পেপার বৃহস্পতিবার ২১ নভেম্বর ২০১৯

সাংবাদিক, মানবাধিকার কর্মীদের হোয়াটসঅ্যাপে ইসরাইলি সংস্থা!
সময়ের আলো ডেস্ক
প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ৩১ অক্টোবর, ২০১৯, ৬:৩৬ পিএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 113

সাংবাদিক, মানবাধিকার কর্মীদের হোয়াটসঅ্যাপে ইসরাইলি সংস্থা!

সাংবাদিক, মানবাধিকার কর্মীদের হোয়াটসঅ্যাপে ইসরাইলি সংস্থা!

ভারতীয় সাংবাদিক, মানবাধিকার কর্মীদের হোয়াটসঅ্যাপ হ্যাকের চেষ্টা হয়েছিলো বলে জানিয়েছে হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষ।

হোয়াটসঅ্যাপ হ্যাকিংয়ে যে চেষ্টা হয়েছিলো সেটি স্বীকারও করেছে হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষ।

প্রায় ২০টি দেশের প্রায় ১৪০০ ব্যবহারকারীর অ্যাকাউন্টে ‘স্পাইওয়্যার’ ঢোকানোর চেষ্টা করেছিল ইসরাইলি একটি সংস্থা। এর বিশেষ টার্গেট ছিল ভারতীয় সাংবাদিক, কূটনীতিক, পদস্থ সরকারি কর্তা ও মানবাধিকার সংগঠনের শীর্ষ কর্তাদের।

 ‘স্পাইওয়্যার’ এর মাধ্যমে হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীর প্রায় সমস্ত ব্যক্তিগত তথ্য সংগ্রহ করা যায়। তবে  হ্যাকিং চেষ্টা সফলের  আগেই হোয়াটসঅ্যাপের সুরক্ষা ব্যবস্থা সেটা সনাক্ত করতে সক্ষম হয়।

ইসরাইলের সাইবার নিরাপত্তা সংক্রান্ত  সংস্থা এনএসও'র বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষ। পাশাপাশি এই সপ্তাহে যাদের অ্যাকাউন্ট হ্যাক করার চেষ্টা করা হয়েছিল, তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করে বিষয়টিও  জানিয়েছে তারা।  হ্যাকিং প্রতিরোধে প্রয়োজনীয় সতর্কতা অবলম্বন করার কথাও বলা হয়েছে হোয়াটসঅ্যাপের তরফ থেকে। তবে ইসরাইলি ওই সংস্থার দাবি, এই অভিযোগ মিথ্যা। এর বিরুদ্ধে তারা আইনি লড়াই করবে।

হোয়াটসঅ্যাপ এন্ড টু এন্ড এনক্রিপ্টেড। অর্থাৎ শুধুমাত্র যাদের মধ্যে ভয়েস বা ভিডিও কল কিংবা মেসেজ চালাচালি হচ্ছে, তারা ছাড়া তৃতীয় পক্ষের কেউ জানতে পারবে না। কেউ সেটা অ্যাকসেস করতে অর্থাৎ দেখতে পারবে না। এমনকি, হোয়াটসঅ্যাপে কর্তৃপক্ষও নয়।

অন্য দিকে যাদের অ্যাকাউন্টে ‘স্পাইওয়্যার’ দিয়ে আড়ি পাতার চেষ্টা হয়েছিল, তারা এত দিন পর্যন্ত এ ব্যাপারে কিছু জানতে পারেননি। হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষ যখন তাদের সাথে যোগাযোগ করে  তখন এ খবর জেনে তারা কিছুটা আতঙ্কিত হয়ে পড়েন।


এ বছরের এপ্রিলে প্রায় দু’সপ্তাহ ধরে ক্রমাগত হ্যাকিয়ের চেষ্টা চালিয়েছে ইসরাইলের ওই সংস্থা। মে মাসে ‘সাইবার অ্যাটাক’-এর ঘোষণাও করেছিল হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষ। তবে ভারতের কতজনকে টার্গেট করেছিল ইসরাইলের ওই সংস্থা, তার স্পষ্ট কোনও জবাব দেয়নি তারা। শুধু জানানো হয়েছে, সম্ভাব্য যাদের যাদের টার্গেট করা হয়েছিল, সবাইকেই জানিয়ে দেওয়া হয়েছে।







সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]