ই-পেপার শনিবার ২৩ নভেম্বর ২০১৯ ৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
ই-পেপার শনিবার ২৩ নভেম্বর ২০১৯

রাজাপুরে পিতা হত্যার বিচার চেয়ে মেয়ের আকুতি
ঝালকাঠি প্রতিনিধি
প্রকাশ: শনিবার, ২ নভেম্বর, ২০১৯, ৩:১০ পিএম আপডেট: ০২.১১.২০১৯ ৩:২৯ পিএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 196

রাজাপুরে পিতা হত্যার বিচার চেয়ে মেয়ের আকুতি

রাজাপুরে পিতা হত্যার বিচার চেয়ে মেয়ের আকুতি

ঝালকাঠির রাজাপুরে বাবুল হাওলাদার হত্যার বিচার পেতে আকুতি করেছেন তার অসহায় মেয়ে মোসাঃ উর্মি বেগম। শনিবার (২ নভেম্বর) সকালে রাজাপুর প্রেসক্লাবে উপস্থিত হয়ে লিখিতভাবে এ আবেদন জানান তিনি। নিহত বাবুল উপজেলার বড়ইয়া ইউনিয়নের চরউত্তমপুর এলাকার মৃত ইউসুফ আলী হাওলাদারের পুত্র ।

বাবুলের মেয়ে মোসাঃ উর্মি বেগম তার লিখিত আবেদনে জানায়, গত ১৮ অক্টোবর বিকালে বাবুল হাওলাদার বড়ইয়ার পালটে তার আত্মীয়ের বাড়িতে যান। উর্মি সন্ধ্যায় তার বাবার মোবাইলে ফোন দিলে মোবাইল বন্ধ পায়। উর্মি সাথে সাথে তার বাবাকে খুঁজতে ঐ আত্মীয় বাড়ির উদ্দেশে রওনা হয়।

পথিমধ্যে পশ্চিম বড়ইয়া নামক স্থানে এসে জানতে পারে তার বাবাকে স্থানীয় কয়েকটি ছেলে ধাওয়া করে স্থানীয় আজিজ মুন্সির বাড়ীর দিকে নিয়ে যায়। যারা ধাওয়া করেছে ঐ সময় ঘটনা স্থলেই তারা উপস্থিত ছিল। তারা উর্মির পূর্ব পরিচিত ছিল। উপস্থিত ছেলেদের কাছে জিজ্ঞেস করে তার বাবাকে ধাওয়া দেয়ার বিষয়ে সত্যতা পায় সে। উর্মি তার হাতে থাকা টর্চলাইট জালিয়ে ব্রীজের নিচে স্থানীয় আফজালের পুত্র সজিবকে গামছা পড়ে অন্ধকারে কিছু একটা করতে দেখতে পায়। কিন্তু ব্রীজের নীচে কি হচ্ছিল বুঝে ওঠার আগেই সজিবের সাথে থাকা মোফাজ্জেল এর পুত্র কাইউম উর্মির হাত থেকে লাইটটি কেড়ে নেয়। এ সময় ঐ স্থান থেকে হযরত আলীর পুত্র হেলাল, মুজাফফরের পুত্র ইলিয়াছ উর্মিকে অন্যদিকে নিয়ে যায়। উর্মি তার বাবাকে স্থানীয়দের সহায়তায় কয়েক ঘন্টা আশেপাশের বাগান, নালা ডোবাসহ সব জায়গায় অনেক খোঁজাখুজি করে। পরে আনুমানিক রাত ৯টার সময় যে স্থানে তার বাবাকে মৃত অবস্থায় দেখতে পায় উর্মি । সেখানে সে স্থানীয়দের সহায়তার তার বাবাকে অনেক বার খোঁজ করেছে।

কিন্তু এখন এ জায়গায় কিভাবে তার বাবা আসলো। এ সকল বিষয় নিয়ে উর্মিসহ স্থানীয় সকলের মনে নানা প্রশ্নের জন্ম নিয়েছে। তাই সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে তার বাবার প্রকৃত হত্যাকারীদের বের করে আইনের আওতায় এনে বিচারের জোর দাবী জানায় উর্মি। উল্লেখ্য গত ১৮ অক্টোবর সন্ধ্যায় ইলিশ মাছ কিনে বাড়ি ফেরার পথে পশ্চিম বড়ইয়া নামক স্থানে স্থানীয়দের ধাওয়া খেয়ে বাবুল নিখোঁজ হয়। পরে রাত ৯টায় একটি নালার মধ্যে মৃত্যু অবস্থায় তার লাশ পাওয়া যায়।

এ ঘটনায় রাজাপুর থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা রেকর্ড করা হয়েছে (মামলা নম্বর ১৯)। এ ব্যাপারে রাজাপুর থানা অফিসার ইনচার্জ মোঃ জাহিদ হোসেন জানান, ময়না তদন্তের রিপোর্ট না আসা পর্যন্ত কিছু বলা যাচ্ছে না। ময়না তদন্তের রিপোর্টে হত্যার কোনও আলামত পাওয়া গেলে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে। কাউকে ছাড় দেয়া হবে না। 




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]