ই-পেপার শনিবার ২৩ নভেম্বর ২০১৯ ৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
ই-পেপার শনিবার ২৩ নভেম্বর ২০১৯

পোরশা সীমান্তে ৭ বাংলাদেশিকে আটক করেছে বিএসএফ
নওগাঁ প্রতিনিধি
প্রকাশ: মঙ্গলবার, ৫ নভেম্বর, ২০১৯, ২:০৪ পিএম আপডেট: ০৫.১১.২০১৯ ২:১৯ পিএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 131

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

নওগাঁর পোরশা সীমান্তে ভারতের অভ্যন্তরে ৭ বাংলাদেশিকে ধরে নিয়ে গেছে ভারতীয় সমীন্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ)। মঙ্গলবার ভোরে ২৩১/১০(এস) নম্বর মেইন পিলার থেকে ভারতের অভ্যন্তরে ক্যাদারীপাড়া ক্যাম্পের বিএসএফ সদস্যরা আটক করে।

আটকরা হলেন, পোরশা উপজেলার দুয়ারপাল গ্রামের জামাল উদ্দিনের ছেলে সইবুর (২৬), রাংগাপুকুর গ্রামের রবুর ছেলে আতাবুল (২২), বিষ্ণপুর বেড়াচকি গ্রামের মকবুলের ছেলে রেজাউল (২০), কালাইবাড়ি গ্রামের প্রফুল্যের ছেলে বিফল (৩০), একই গ্রামের লোকমানের ছেলে আজাদ (৩২), রফিকের ছেলে জহুরুল (৩২) ও সবুরদ্দিনের ছেলে হাকিম (৩৬)।
 
স্থানীয় সূত্র জানা যায়, সোমবার দিবাগত রাতে ১০/১১ জনের একটি দল ভারতের অভ্যন্তরে মহিষ নিতে প্রবেশ করে। মহিষ নিয়ে ফেরার পথে ভোরে ২৩১/১০(এস) নম্বর মেইন পিলার থেকে ভারতের অভ্যন্তরে ক্যাদারীপাড়া ক্যাম্পের বিএসএফ সদস্যরা অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করে। এসময় অন্যরা পালিয়ে যায়। 

নিতপুর ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার আকালু পালিয়ে আসা মহবুল নামে এক ব্যক্তির বরাত দিয়ে বলেন, তার বাড়ি দুয়ারপাল গ্রামের পশ্চিম পাড়ায়। তারা ১১ জন সোমবার রাত ২টার দিকে ভারতের অভ্যন্তরে মহিষ নিতে যায়। সেখানে ৭টি মহিষ নিয়ে ফেরার সময় ডোবার পানিতে নেমে মহিষ লাফালাফি করছিল। এসময় ডিউটিরত বিএসএফ সদস্যরা শব্দ শুনে ঘটনাস্থলে ছুটে আসে। সেখানে অভিযান চালিয়ে ৫ জনকে আটক করলেও তিন জন পালিয়ে আসতে সক্ষম হয়। এছাড়া আরও কয়েকজনের খোঁজ পাওয়া যায়নি।

১৬-বিজিবি’র অধিনায়ক লে. কর্ণেল একেএম আরিফুল ইসলাম পিএসসি বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, শুনেছি বিএসএফ সদস্যরা কয়েকজনকে আটক করে নিয়ে গেছে। সত্যতা যাচাইয়ে বিএসএফ সদস্যদের সাথে যোগযোগের চেষ্টা চলছে। যদি আটক করা হয় তাহলে পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে তাদের ফিরিয়ে নিয়ে আসার চেষ্টা করা হবে।




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]