ই-পেপার বৃহস্পতিবার ২১ নভেম্বর ২০১৯ ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
ই-পেপার বৃহস্পতিবার ২১ নভেম্বর ২০১৯

হায় ফারজানা ইসলাম!
প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ৭ নভেম্বর, ২০১৯, ১২:০০ এএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 17

অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলাম ২০১৪ সালের ২ মার্চ যখন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য হিসেবে নিয়োগ পেয়েছিলেন, তখন আমরা অনেকেই উল্লসিত হয়েছিলাম, গর্বিত হয়েছিলাম। কারণ তিনিই ছিলেন বাংলাদেশের পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম নারী উপাচার্য। শতাব্দীর পর শতাব্দী ধরে সামাজিক-অর্থনৈতিক-রাজনৈতিক বৈষম্যের শিকার নারীরা আমাদের দেশে গুরুত্বপূর্ণ পদ-পদবি প্রাপ্তির ক্ষেত্রে এখনও তলানিতে। সেখানে ড. ফারজানার উপাচার্য হিসেবে নিয়োগপ্রাপ্তি আমাদের অনেকের কাছে ছিল উজ্জ্বলতম দৃষ্টান্ত। ভেবেছিলাম তিনি হয়ে উঠবেন, ‘আলোর দিশারি’!
কিন্তু হায়, মাত্র পাঁচ বছরের ব্যবধানে তিনি বাংলাদেশের ইতিহাসে প্রথম নারী ভিসি হওয়ার গৌরবকে ধুলোয় মিশিয়ে সবচেয়ে নির্লজ্জ ভিসিদের দলে নাম লিখিয়েছেন! বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী, যারা তার সন্তানের মতো, তাদের তিনি ছাত্রলীগ দিয়ে দমন করলেন। শুধু তাই নয়, উপাচার্যের বাসভবনের সামনে আন্দোলনরত শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা চালিয়ে তাকে ‘মুক্ত’ করাকে ‘গণঅভ্যুত্থান’ হিসেবে আখ্যায়িত করলেন।
আন্দোলনকারীদের ওপর হামলা প্রসঙ্গে তার মন্তব্য, ‘ছাত্রলীগ দায়িত্ব নিয়ে কাজটি করেছে, সুশৃঙ্খলভাবে আন্দোলনকারীদের সরিয়ে দিয়েছে!’ বিশ্ববিদ্যালয় অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণার দিনে তিনি ছাত্রলীগের প্রতি
কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বলেছেন, ‘আজ আমার জন্য একটি অত্যন্ত আনন্দের দিন!’
মানুষ হিসেবে তো বটেই, বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন উপাচার্য হিসেবে তার কতটা নৈতিক অবক্ষয় হলে ছাত্রলীগের এমন একটি জঘন্য কাজের পক্ষে সাফাই গাইতে পারেন, এমন নির্লজ্জ মন্তব্য করতে পারেন, সেটা ভাবলে সত্যিই বিস্ময়বোধও লুপ্ত হয়ে যায়!
ছাত্রলীগ কি তার ব্যক্তিগত চৌকিদার? এ জন্যই কি তিনি জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগকে ১ কোটি ৬০ লাখ  টাকা ‘ঈদ-সেলামি’ দিয়েছিলেন? যার ‘আলোর প্রতিমা’ হয়ে ওঠার কথা, তিনিই যখন স্রেফ পদ-পদবি ক্ষমতার জন্য আর দশজন ‘পুরুষ ভিসি’র মতো লোভী ‘কালো-চিতা’য় পরিণত হন, তখন দেশের অন্ধকার ভবিষ্যৎটাই কেবল নিশ্চিত হয়ে দেখা দেয়!
হায়, ফারজানা ইসলাম, হায়!

চিররঞ্জন সরকার, কলাম লেখক




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]