ই-পেপার বৃহস্পতিবার ২১ নভেম্বর ২০১৯ ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
ই-পেপার বৃহস্পতিবার ২১ নভেম্বর ২০১৯

মির্জাপুরে ওসি পরিচয়ে ফোন করে ওসির কাছেই টাকা দাবি
মির্জাপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি
প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ৭ নভেম্বর, ২০১৯, ১২:০০ এএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 20

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে ওসিসহ জনপ্রতিনিধিদের মোবাইলে ফোন করে পুলিশের ওসি পরিচয়ে ভয়ভীতি প্রদর্শন করে চাঁদা দাবি করছে একটি প্রতারক চক্র। সম্প্রতি মির্জাপুর থানার ওসি (তদন্ত) মো. মোশারফ হোসেনের নামে ফোন দিয়ে চাঁদা দাবির অভিযোগ পাওয়া গেছে। সোমবার উপজেলার বিভিন্ন ব্যক্তিকে ফোন করে ওসি (তদন্ত) পরিচয় দিয়ে এসপি-ডিআইজিকে দেওয়ার কথা বলে টাকা চেয়েছে। এ ঘটনায় প্রযুক্তি ব্যবহার করে চক্রটি শনাক্তের চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছেন মির্জাপুর থানার ওসি (তদন্ত) মোশারফ হোসেন।
জানা যায়, সোমবার সকাল থেকে (০১৭৫৫-২৯৬৭৩৯) নাম্বার থেকে ফোন করে একাধিক ব্যক্তিকে বলেছে, ‘আমি মির্জাপুর থানার ওসি (তদন্ত) মো. মোশারফ হোসেন বলছি, তোমার নামে গুরুতর অভিযোগ রয়েছে। অভিযোগ থেকে রেহাই পেতে হলে এসপি ও ডিআইজিকে দ্রুত টাকা দিতে হবে। তুমি এখনই বিকাশ পারসোনাল রকেট (০১৭০১-৯৭৩৫৬৯৯) নম্বরে এক লাখ টাকা পাঠাও। টাকা না পাঠালে রাতের মধ্যে তোমাকে ধরে এনে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’
ফোন কল পাওয়া ব্যক্তিরা জানান, চক্রটি তাদের ফোন করে ওসির নাম ভাঙিয়ে টাকা দাবি করে। ১০ মিনিটের মধ্যে টাকা না দিলে তাদের তুলে আনা হবে। শুধু তাই নয়, এই কথা কাউকে জানালে ক্ষতি হবে বলে হুমকি দেওয়া হয়। এ ফোন পেয়ে তারা আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। পরে তারা বিষয়টি মির্জাপুর থানার বর্তমান ওসি (তদন্ত) মোশারফ হোসেনকে জানান। এ ছাড়াও বাংলাদেশ জাতীয় পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান গোড়াই এলাকার খন্দকার বিপ্লব মাহমুদ উজ্জ্বল, লতিফপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. জাকির হোসেন এবং তরফপুর এলাকার বাসিন্দা মো. নাছির উদ্দিনের কাছেও ফোন দিয়ে টাকা দাবি করেছে বলে জানা গেছে। এর আগে খোদ সংসদ সদস্য, মির্জাপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা, সংসদ সদস্যের ব্যক্তিগত সহকারী, কয়েকজন শিক্ষক এবং কয়েকজন ইউপি চেয়ারম্যানকে ফোন করে একইভাবে চাঁদা দাবি করেছে বলে খবর পাওয়া গেছে। ভুক্তভোগী ওসি (তদন্ত) মো. মোশারফ হোসেন বলেন, ‘আমার নাম ব্যবহার করে বিভিন্ন লোকজনকে এই (০১৭৫৫-২৯৬৭৩৯) মোবাইল নম্বরে ফোন করে চাঁদার টাকা দাবি করছে একটি চক্র। এমনকি চক্রটি আমাকেও ফোন দিয়ে বলেছে ‘আমি মির্জাপুর থানার ওসি (তদন্ত) মো. মোশারফ হোসেন বলছি। তোমার নামে অভিযোগ রয়েছে। মামলা ও অভিযোগ থেকে বাঁচতে হলে এখনই টাকা পাঠাও।’




এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]