ই-পেপার শুক্রবার ১৫ নভেম্বর ২০১৯ ১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
ই-পেপার শুক্রবার ১৫ নভেম্বর ২০১৯

সতীর্থের পাশে রোহিত
ক্রীড়া ডেস্ক
প্রকাশ: রোববার, ১০ নভেম্বর, ২০১৯, ১২:০০ এএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 8

আজ বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যকার তৃতীয় টি-টোয়েন্টি ম্যাচের আগে শনিবার সংবাদ সম্মেলনে যথারীতি হাজির রোহিত শর্মা। স্বাভাবিকভাবেই ভারতীয় অধিনায়কের কণ্ঠে ফুটে ওঠার কথা ছিল, আজকের ম্যাচ নিয়ে তাদের পরিকল্পনা। কিন্তু কিসের কি! সংবাদ সম্মেলনের সবটাই জুড়ে রিশভ পন্ত! সাংবাদিকরা একের পর এক প্রশ্ন ছুড়লেন উইকেটকিপার-ব্যাটারকে নিয়ে। রোহিত সব প্রশ্নের জবাব দিলেন সতীর্থের পক্ষ নিয়েই। এক পর্যায়ে বলতে বাধ্যই হলেন, ‘আপনাদের নজর সরিয়ে নিন পন্তের দিক থেকে।’
চলমান সিরিজে পারফরম্যান্সের বিবেচনায় সবচেয়ে সমালোচিত পন্ত। দিল্লিতে ভারতের হারের পর সমালোচকদের কাঠগড়ায় ২২ বছর বয়সি এই ক্রিকেটার। তাতে বিরক্ত প্রকাশ করে রোহিত বলেন, ‘প্রতিদিন, প্রতি মিনিটে রিশভ পন্তকে নিয়ে অনেক বেশি কথা হচ্ছে। আমি মনে করি, মাঠে সে যা করতে চায় তাকে তেমনটা করতে দেওয়া প্রয়োজন এবং আমি প্রত্যেককে অনুরোধ করছি, কিছু সময়ের জন্য পন্তের দিক থেকে আপনাদের নজর সরিয়ে নিন।’
ভারতীয় দলপতি বলেন, ‘সে এখনও তরুণ। এ মুহূর্তে তার বয়স সম্ভবত ২১-২২। সে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে নিজেকে গড়ে তোলার চেষ্টা করছে। মাঠে তার প্রতিটি পদক্ষেপ নিয়ে মানুষ কথা বলা শুরু করেছে। আমি মনে করি, এটা ঠিক না। তাকে তার ক্রিকেট খেলতে দেওয়া উচিত। যেমনটা প্রকৃতপক্ষে সে নিজেও চায় এবং তার ভালো দিকগুলো আরও বেশি ফোকাস করা উচিত, খারাপগুলো নয়। সে প্রতি ম্যাচে শিখছে। সেটাই করার চেষ্টা করছে যা টিম ম্যানেজমেন্ট তার কাছে চায়।’
এদিকে সমালোচকদের কাঠগড়ায় ভারতীয় পেসার খলিল আহমেদ এবং শ্রেয়াস আইয়ারও। দিল্লি ম্যাচে খলিলের এক ওভারে টানা চার বাউন্ডারি হাঁকিয়েই বাংলাদেশের জয়ের পথ মসৃণ করেন মুশফিকুর রহিম। তাতেই সিরিজের প্রথম ম্যাচে স্বাগতিকদের হারের ম্যাচে ‘খলনায়ক’ এই পেসার। অন্যদিকে চারে ব্যাটিংয়ে নামা শ্রেয়াস পারছেন না নিজের সেরাটা দিতে। তবে রোহিত কিন্তু এই দুই ক্রিকেটারের পক্ষেই। ভারতীয় দলপতির মতে, দুজনেই ভারতীয় ক্রিকেটের ভবিষ্যৎ।
রোহিত বলেন, ‘আমরা প্রত্যেকে চাই, তারা মাঠে নেমে ভয়হীন ক্রিকেট খেলতে চায়। দলের পক্ষ থেকেই এমন বার্তাই থাকে। কারণ তরুণ খেলোয়াড়রা যখন দলে আসে, তারা এগিয়ে যেতে চায়। তাই তাদের ম্যানেজমেন্ট এমন স্বাধীনতা দেয়। তাই খেলোয়াড়দের যেমন স্বাধীনতা প্রয়োজন তা দেওয়া হয়Ñ মাঠে যাও এবং নিজেদের মেলে ধর। এমন সুযোগ পেলেই খেলোয়াড়রা আপনাদের তাদের সেরা পারফরম্যান্স দিতে পারবে।’
রোহিত নিজ বক্তব্য শেষ করেন এভাবেই, ‘তাদের খেলার উন্নতি আনতে তারা অনেক পরিশ্রম করছে। তারা প্রতি ম্যাচেই শিখছে এবং অভিজ্ঞ হচ্ছে। এক বা দুই বছরের মধ্যে আপনারা তাদের ভিন্নভাবে দেখবেন।’




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]