ই-পেপার সোমবার ৯ ডিসেম্বর ২০১৯ ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
ই-পেপার সোমবার ৯ ডিসেম্বর ২০১৯

কী পড়ছি কী লিখছি
সাখাওয়াত টিপু
প্রকাশ: শুক্রবার, ১৫ নভেম্বর, ২০১৯, ১২:০০ এএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 25

বই পড়তে গিয়ে বুঝলাম সময়ের অপচয় করেছি! তবে কোনো কোনো বই পড়ে এত এত আনন্দ পেয়েছি, ছোট্ট পরিসরে বলা মুশকিল।
দুই ধরনের বই আমার খুব প্রিয়। দর্শন আর সাহিত্য। দর্শন পড়ে যুক্তি আর ভাবকে বোঝার চেষ্টা করি। আর সাহিত্য দিয়ে আমি ব্যক্তি কিংবা নৈর্ব্যক্তিক সমাজের অন্তর্গত রূপকে বোঝার চেষ্টা করি। সম্প্রতি আমি পড়েছি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের অনুবাদকৃত মহাকবি কবীরের গান। বইটির নাম ‘সংস অব কবীর’। আর পড়েছি আরেকটি কবিতার বই। চার্লস ব্রডস্কির ‘অন লাভ’। দারুণ একজন কবি! পড়তে পড়তে কিছু কবিতার অনুবাদও করেছি। জেন দর্শনের একটি বই ‘দি ন্যাচার অব জেন’ পড়লাম। সব মিলিয়ে মন্দ নয়!
দ্বিতীয়ত নিজের চিন্তা বা লেখা পাঠ করা। কাগজে-কলমে কিছু না লিখেও কেবল চিন্তা করাটাও আমার অন্যতম লেখা কিংবা কাজ। কেননা চিন্তার ভেতর দিয়ে লেখার ভাষাটা সৃষ্টি হয়। এক অর্থে আমি সবসময় লেখার মধ্যে বসবাস করি। আর লেখালেখি ব্যাপারটা পুনর্জন্মের মতো। যেকোনো লেখক লেখা প্রকাশের ভেতর দিয়ে চিন্তার ভ্রƒণেরই জন্ম দেন। এটি যখন পাঠকের হাতে যায় পুষ্প আকারে প্রস্ফুটিত হয়। ভাষা আর ভাবের প্রেমে না পড়লে লেখা সম্ভব হয়ে ওঠে না। সম্প্রতি আমি চারটি নতুন বই নিয়ে কাজ করেছি। দুটো বাংলায় আর দুটো ইংরেজিতে।
প্রায় আট বছর পর ‘রাজার কঙ্কাল’ নামে বাংলায় আমার নতুন কবিতার বই প্রকাশিত হতে যাচ্ছে। রাজনৈতিক কবিতার বই। বাংলা অপর বইটি শিশুতোষ গল্পগ্রন্থের অনুবাদ। অনুবাদ করতে খুব আনন্দ পেয়েছিলাম। ইংরেজি দুটো নতুন কবিতার বই ‘হান্ড্রেড ইয়ার্স’ ও ‘মাদার নেইম ইজ ট্রুথ’ স্প্যানিশ আর ইতালিয়ান ভাষায় অনূদিত হচ্ছে। বই দুটো আগামী বছর প্রকাশিত হবে। দ্বিভাষিক দুটো ছোট চ্যাপবুক ‘ফেদার অব উইংস’ ও ‘অ্যাবসেন্স অব আই’ নামে ইতালি ও বেলগ্রেড থেকে প্রকাশিত হয়েছে। প্রিয় পাঠক, আমি প্রতিদিনই কিছু না কিছু লেখি। বস্তুত লেখাই আমার জীবন। আর পাঠকের ভালোবাসা লেখকের নতুন পরিসর তৈরি করে। লেখকের জন্য এটাই শুভাশিস!





সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]