ই-পেপার সোমবার ৯ ডিসেম্বর ২০১৯ ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
ই-পেপার সোমবার ৯ ডিসেম্বর ২০১৯

শিক্ষার্থীকে পিটিয়ে জখম, রাবি থেকে ২ ছাত্রলীগ কর্মী বহিষ্কার
রাবি প্রতিনিধি
প্রকাশ: সোমবার, ১৮ নভেম্বর, ২০১৯, ৪:৫৬ পিএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 101

শিক্ষার্থীকে পিটিয়ে জখম, রাবি থেকে ২ ছাত্রলীগ কর্মী বহিষ্কার

শিক্ষার্থীকে পিটিয়ে জখম, রাবি থেকে ২ ছাত্রলীগ কর্মী বহিষ্কার

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) ফাইন্যান্স বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী সোহরাব মিয়াকে নির্যাতনের ঘটনায় জড়িত বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের কর্মী রাকিবুল ইসলাম ওরফে আসিফ লাক ও হুমায়ুন কবির নাহিদকে সাময়িক বহিষ্কার করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। এই ঘটনায় পাঁচ সদস্য সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

সোমবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) অধ্যাপক এম এ বারী স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

সিন্ডিকেট সদস্য ও বিজনেস স্টাডিজ অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মো. হুমায়ুন কবীরকে সভাপতি ও প্রক্টর অধ্যাপক ড. লুৎফর রহমানকে সদস্য সচিব করে এই তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। অন্যরা হলেন- সিন্ডিকেট সদস্য ড. আব্দুল্লাহ আল মামুন, শহীদ শামসুজ্জোহা হলের প্রাধ্যক্ষ ড. মো. জুলকার নায়েন ও সহকারী প্রক্টর ড. মো. হাসানুর রহমান।

বিজ্ঞপ্তিতে এ ঘটনার তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

মারধরের ঘটনায় শনিবার ভুক্তভোগী সোহরাব হোসেন নিজে বাদী হয়ে রাকিবুল ইসলাম ওরফে আসিফ লাক, হুমায়ুন কবির নাহিদ এবং আকিবুল ইসলাম রিফাতের নাম উল্লেখ করে হত্যাচেষ্টা মামলা করেন। সেদিন বিকেলে আকিবুল ইসলাম রিফাতকে শহীদ শামসুজ্জোহ হল থেকে গ্রেফতার করে নগরীর মতিহার থানা পুলিশ। পরবর্তীতে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হয়।

অন্য দু’জনের গ্রেফতার বিষয়ে মতিহার থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হাফিজুর রহমান বলেন, ওই দুই আসামী এখন রাজশাহীর বাইরে অবস্থান করছে। তাদের আইনের আওতায় আনতে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী তৎপর রয়েছে। আশা করছি দ্রুত সময়ের মধ্যে তাদের গ্রেফতার করতে সক্ষম হব।

এদিকে মামলার সুষ্ঠু তদন্তের দাবি জানিয়ে মানববন্ধন করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা। সোমবার দুপুর ১২টায় কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে সাধারণ শিক্ষার্থীর ব্যানারে এই মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়। সেখানে বক্তব্য দেন ছাত্রলীগের কয়েকজন কর্মী ও অভিযুক্তদের বিভাগের শিক্ষার্থীরা।

ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী আরিফ বিল্লাহর সঞ্চালনায় বক্তব্য দেন, শহীদ শামসুজ্জোহা হলের ছাত্রলীগ কর্মী আকরাম হোসেন, নবাব আব্দুল লতিফ হলের ছাত্রলীগ কর্মী রুহুল আমিন, মশিউর রহমান, ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের আবদুল কাদের জিলানী।

মানববন্ধন শেষে কয়েকটি দাবি জানান তারা। দাবিগুলো হলো- ঘটনার রহস্য উদঘাটন, আবাসিক হলে বহিরাগতদের মাদক আড্ডা বন্ধ, বিভ্রান্তিমূলক তথ্য প্রদান করে ক্যাম্পাসকে অস্থিতিশীল করার মূল হোতাদের শাস্তির আওতায় আনা। এ ছাড়া ঘটনায় জড়িতদের শাস্তির নিশ্চিত করার দাবিও জানান তারা।

প্রসঙ্গত, গত শুক্রবার দিবাগত রাতে সোহরাব মিয়াকে শহীদ শামসুজ্জোহা হলের ২৫৪ নাম্বার রুমে ডেকে নিয়ে গিয়ে রড দিয়ে মাথা ও হাতে বেধড়ক মারধর করে ছাত্রলীগ কর্মী রাকিবুল ইসলাম (আসিফ লাক) ও হুমায়ুন কবির নাহিদ। এতে তার মাথা ও হাত ফেটে যায়। বর্তমানে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে ৩১ নম্বর ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]