ই-পেপার সোমবার ৯ ডিসেম্বর ২০১৯ ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
ই-পেপার সোমবার ৯ ডিসেম্বর ২০১৯

লবণ নিয়ে দেশ জুড়ে তোলপাড়
ক্রেতাদের দীর্ঘ লাইন, ভ্রাম্যমাণ আদালতের জেল-জরিমানা
সময়ের আলো ডেস্ক
প্রকাশ: বুধবার, ২০ নভেম্বর, ২০১৯, ১২:০০ এএম আপডেট: ২০.১১.২০১৯ ১২:১৮ এএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 47

ক্রেতাদের দীর্ঘ লাইন, ভ্রাম্যমাণ আদালতের জেল-জরিমানা

ক্রেতাদের দীর্ঘ লাইন, ভ্রাম্যমাণ আদালতের জেল-জরিমানা

পেঁয়াজের পর এবার সারা দেশে তোলপাড় সৃষ্টি করল লবণ। সোমবার রাত থেকে মঙ্গলবার বিকাল পর্যন্ত সারা দেশে লবণের দাম বৃদ্ধির গুজব ছড়িয়ে পড়ে। এ সুযোগ হাতিয়ে নিয়ে চড়া দামে লবণ বিক্রি করতে থাকে খুচরা ও পাইকারি লবণ বিক্রেতারা। কোথাও লবণ ক্রেতাদের দীর্ঘ লাইন, ভ্রাম্যমাণ আদালতের জেল- জরিমানা, ভিড় সামলাতে দোকানিদের হিমশিম খাওয়া, নিমিষেই ৮শ’ বস্তা লবণ বিক্রি হওয়া, কোথাও ১২০ টাকা কেজি দরে বিক্রিসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে ঘটে গেছে নানা ঘটনা। আমাদের ব্যুরোপ্রধান, নিজস্ব প্রতিবেদক ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর
মুন্সীগঞ্জে গ্রেফতার ১৪ : লবণের দাম নিয়ে গুজব রটনা ও অধিক দামে বিক্রির অভিযোগে মুন্সীগঞ্জ বাজার থেকে ১৪ জনকে আটক করেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। এর মধ্যে ১৩ জন ব্যবসায়ী ও একজন ক্রেতা রয়েছে। মঙ্গলবার বিকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের অভিযানে তাদের আটক করা হয়। অভিযানে ১৭ বস্তা লবণ জব্দ করা হয়েছে। প্রতি বস্তায় রয়েছে ২৫ প্যাকেট লবণ। এদিকে, সদর উপজেলার মুক্তারপুর  এলাকায় বিকালে অভিযান চালায় ভ্রাম্যমাণ আদালত। এতে লবণের দাম বৃদ্ধির ঘটনায় দুই দোকানিকে যথাক্রমে ১০ হাজার ও ৩ হাজার মোট ১৩ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। ভ্রাম্যমাণ আদালতে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হ্যাপি দাস বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। সদর থানার ওসি আনিচুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, অতিরিক্ত দামে লবণ বিক্রি করায় ১৩ জন বিক্রেতা ও গুজব রটনায় এক ক্রেতাকে আটক করা হয়েছে।
টাঙ্গাইলে দীর্ঘ লাইন : লবণের দাম বৃদ্ধি পাচ্ছে এ গুজবে ক্রেতারা লবণ কিনতে হুমড়ি খেয়ে পড়ে জেলার বিভিন্ন বাজারে। মঙ্গলবার সকাল থেকে হঠাৎ করেই টাঙ্গাইলের পার্ক বাজার, বটতলা বাজার, ছয়আনি বাজারসহ ছোট ছোট দোকানে লবণ কিনতে ক্রেতারা ভিড় করতে থাকে। প্রত্যেক ক্রেতাই চাহিদার তুলনায় কয়েকগুণ বেশি লবণ কেনা শুরু করে। সকালে বিভিন্ন বাজারে দেখা গেছে, লবণের দোকানে ক্রেতাদের উপচে পড়া ভিড়। কোনো কোনো দোকানে লবণ কিনতে ক্রেতাদের দীর্ঘ লাইন লেগে যায়। প্রত্যেক ক্রেতাই ৫-২০ কেজি পর্যন্ত লবণ কিনেছে।
ঠাকুরগাঁও‌য়ে তিনজনের জেল, ভিড় সামলাতে দোকানিদের হিমশিম : ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জে বিভিন্ন দোকানে মঙ্গলবার লবণ কেনার হিড়িক পড়ে যায়। কেউ ৩ কেজি, কেউ ৫ কেজি আবার কেউ কেউ পুরো মাসের লবণ কিনে বাড়ি নিয়ে যাচ্ছে। তবে ক্রেতাদের অভিযোগ, ২০ টাকার লবণ ৮০-১০০ টাকা কেজি দরে কিনতে হচ্ছে তাদের। দোকানের চারদিকে হুমড়ি খেয়ে পড়ে নানা বয়সের নারী-পুরুষ ক্রেতা। ভিড় সামাল দিতে হিমশিম খায় দোকানিরা। ঠাকুরগাঁওয়ে গুজবের সুযোগ নিয়ে অতিরিক্ত মূল্যে লবণ বিক্রি করার অপরাধে দুই ব্যবসায়ীকে অর্থদন্ড ও তিন ব্যবসায়ীকে কারাদন্ড প্রদান করা হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে জেলা প্রশাসকের নেতৃত্বে পরিচালিত ভ্রাম্যমাণ আদালত শহরের বাসস্ট্যান্ড এলাকায় অভিযান চালিয়ে সিরাজুল ও সারওয়ার হোসেন নামে দুই ব্যবসায়ীকে ১ লাখ টাকা জরিমানা করেন এবং কালিবাড়ী বাজার থেকে মাসুদ, সিরাজুল ইসলাম ও নবাব নামে অন্য তিন ব্যাবসায়ীকে ১৫ দিনের বিনাশ্রম কারাদÐ প্রদান করেন সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবদুল্লাহ আল মামুন।
হবিগঞ্জে গুজব ছড়ানোর দায়ে ২ জনের জেল : হবিগঞ্জ শহরসহ আশপাশ এলাকায় লবণের দাম বাড়ানোর গুজব ছড়ানোর দায়ে দুজনকে ১০ দিনের জেল দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ সময় আরও দুজনকে ১ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়। সোমবার রাতে এ রায় দেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ইয়াসির আরাফাত রানা। দন্ডপ্রাপ্তরা হলো শহরের রাজনগরের ব্যবসায়ী মো. আব্দুল কাদির নানু ও বাতিরপুরের কানাই দাসের ছেলে সুরঞ্জিত দাস। জরিমানাপ্রাপ্তরা হলোÑ চৌধুরী বাজারের রাজকুমার রায়ের ছেলে মিঠুন রায় ও নোয়াহাটির রবীন্দু পালের ছেলে রঞ্জিত পাল।
নেত্রকোনায় তিন ব্যবসায়ীকে জরিমানা, আটক ১ : নেত্রকোনার খালিয়াজুরিতে গুজব ছড়িয়ে বেশি দামে লবণ বেচায় একজনকে আটক ও কেন্দুয়ায় তিনজনকে ৯০ হাজার টাকা অর্থদন্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। আটককৃত হচ্ছে খালিয়াজুড়ি সদরের ব্যবসায়ী হায়দার চৌধুরী। তার বাড়ি আটগাঁও গ্রামে। অর্থ দন্ডতরা হচ্ছে কেন্দুয়া উপজেলা সদরের ব্যবসায়ী এরশাদ আলী, বৈখেরহাটি বাজারের শাহীন মিয়া ও রামপুর বাজারের মোজাহিদ মিয়া।
গাইবান্ধায় দুপুর ২টার মধ্যে বিক্রি ৮শ’ বস্তা : পেঁয়াজের ঝাঁজ না কাটতেই গাইবান্ধায় লবণের দাম বাড়ার গুজবে জেলা শহরসহ হাট-বাজারগুলোতে মঙ্গলবার লবণ কেনাবেচার হিড়িক পড়ে যায়। কোথাও কোথাও লাইন ধরে খুচরা ও পাইকারিভাবে ক্রেতারা লবণ কিনছে বলেও জানা গেছে। এ সুযোগে কোনো কোনো উপজেলা সদর এবং গ্রামাঞ্চলের হাট-বাজারে কতিপয় অসাধু ব্যবসায়ী প্রতিকেজি লবণের দাম ২০-৬০ টাকা বাড়িয়ে বিক্রি করছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। সাঘাটার কামালেরপাড়া ইউনিয়নের ফলিয়ার বাজারে প্রতিকেজি লবণ ১শ’ টাকা করে বিক্রির খবর পাওয়া গেছে। জেলা শহরের পাড়া-মহল্লায় প্রতিকেজি লবণ বিক্রি হচ্ছে ৫০-৬০ টাকায়। দুপুর ২টা মধ্যেই ৮শ’ বস্তা (প্রতিবস্তায় ২৫ কেজি লবণ) বিক্রি হয়।
সিলেটে গুজব প্রতিরোধে মাইকিং, জরিমানা : জনগণকে সচেতন করার জন্য মাইকিং করা হয়। গুজব ঠেকাতেই পুলিশ অ্যাকশনে নামছে। এছাড়া পাঁচ দোকানিকে জরিমানা করেছে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর সিলেট বিভাগীয় কার্যালয়। মঙ্গলবার সকাল থেকে নগরীর কাজিটুলা, আম্বরখানা ও শাহী ঈদগাহে পাঁচটি দোকানকে জরিমানা করা হয়।
উল্লাপাড়ায় কারও হাতে ২০ কেজি : মঙ্গলবার সকালে হঠাৎ করে উল্লাপাড়া উপজেলার বিভিন্ন বাজারে লবণের দাম ৩০-৮০ টাকা পর্যন্ত ওঠে। স্থানীয় লবণ ব্যবসায়ীরা জানান, সমুদ্রে লবণবাহী একাধিক জাহাজ ডুবে গেছে মর্মে একটি মহল গুজব ছড়ায়। ফলে ক্রেতারা একসঙ্গে ১০-২০ কেজি করে লবণ কিনতে শুরু করে। এতে বাজারে লবণের সঙ্কট দেখা দেয়। ফলে বিক্রেতারা লবণের দাম বাড়িয়ে দেয়।
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায়ও গুজব প্রতিরোধে মাঠে ভ্রাম্যমাণ আদালত : গুজব প্রতিরোধে বাজার মনিটরিংয়ে নামেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা পঙ্কজ বড়–য়া জানান, লবণের দাম বৃদ্ধি পাওয়ার খবরে আমরা বাজার মনিটরিং করেছি। তিনি জনগণকে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য আহবান জানান।
বদলগাছীতে লবণের দ্বিগুণ দাম বৃদ্ধি : বিভিন্ন হাট-বাজারে দুপুরের পর হঠাৎ করে লবণের দাম বেড়ে যায়। ৭০-৮০ টাকা ধারা লবণ বিক্রি করতে করতে ১৫০-২০০ টাকা ধারা লবণ বিক্রি শুরু হয়।
বকশীগঞ্জে ২ হাজার টাকা জরিমানা : মেরুরচর ইউনিয়নের জব্বারগঞ্জ বাজারে মঙ্গলবার বিকালে অভিযান চালিয়ে অতিরিক্ত মূল্যে লবণ বিক্রি করায় মমিজল হক নামে এক ব্যবসায়ীকে ২ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।
বরিশালে হুলস্থ‚ল কাÐ : বরিশালে লবণের মূল্যবৃদ্ধির গুজবে চারদিকে হুলস্থ‚ল পড়ে যায়। আগে থেকেই কম মূল্যে লবণ সংগ্রহের তাগিদে ক্রেতারা বড় বড় বাজারে ভিড় জমিয়েছে। বিকালের পর পরিস্থিতি এতটাই বেসামাল হয়ে ওঠে যে, বিশেষ করে পোর্টরোডের দোকানগুলোতে লবণ কিনতে শত শত মানুষ ভিড় জমায়।
নবাবগঞ্জে লবণের কেজি ১২০ টাকা : ঢাকার নবাবগঞ্জের শিকারিপাড়া বাজারে প্রতিকেজি লবণ ১২০ টাকায় বিক্রির খবর পাওয়া গেছে। এছাড়া নবাবগঞ্জ, বাগমারা, বারুয়াখালী ও জয়কৃষ্ণপুর বাজারে ৬০ থেকে ১শ’, শোল্লা ও বাংলাবাজারে ৮০-১১০ টাকায় লবণ বিক্রি করছিল ব্যবসায়ীরা।
ঝালকাঠিতে খোলাবাজারে বিক্রি বুধবার : আজ সকাল থেকে প্রতিকেজি ১৫ টাকা দরে খোলাবাজারে লবণ বিক্রি করা হবে বলেও জানান ডিসি জোহর আলী। এ সময় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. আরিফুল ইসলাম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) এসএম ফরিদউদ্দিন, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট (এডিএম) নাহিদা আক্তারসহ ব্যবসায়ী ও গণমাধ্যমকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।
পাথরঘাটায় ১ টন লবণ জব্দ : পাথরঘাটায় অতিরিক্ত দামে লবণ বিক্রি করার অভিযোগ মঙ্গলবার বিকাল ৫টার দিকে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ হুমায়ুন কবির প্রায় ১ টন লবণ জব্দ করেছেন। পাথরঘাটা থানার ওসি মোহাম্মদ শাহাবুদ্দিন জানান, একটি কুচক্রী মহল পাথরঘাটা শহরে লবণের দাম বৃদ্ধির গুজব ছড়িয়ে দেয়।
সাতক্ষীরা : ৫ ব্যবসায়ীর জেল : লবণের কৃত্রিম সঙ্কট ও গুজব সৃষ্টি করে মূল্যবৃদ্ধির অপরাধে সাতক্ষীরায় পাঁচ ব্যবসায়ীকে এক মাসের জেল এবং অন্য সাতজনের ২৩ হাজার ৫০০ টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। সাজাপ্রাপ্ত পাঁচজন হলোÑ সদর উপজেলার ব্রহ্মরাজপুর উমরাপাড়া এলাকার ইমাম হোসেন, মেহেদি হাসান, ইয়াছিন মোড়ল, পুরনো সাতক্ষীরা এলাকার মোস্তাফিজু রহমান ও মিজানুর রহমান। অন্য সাতজনকে ২৩ হাজার ৫০০ টাকা জরিমানা করা হয়।
গোপালগঞ্জ : লবণের কেজি ২শ ছাড়তে পারে এমন গুজবে জেলার কোটালীপাড়া উপজেলার ঘাঘর বাজারে মঙ্গলবার লবণ কেনার হিড়িক পড়ে যায়। বাজারের অর্ধশতাধিক দোকানে লাইন দিয়ে খুচরা বিক্রেতা ও ক্রেতাদের লবণ ক্রয় করতে দেখা গেছে। দাম নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে বাজার মনিটরিংয়ে নামে। ওই দিন সকাল ৮টা থেকে ঘাঘর বাজারে লবণের ডিলার, পাইকারি বিক্রেতা ও খচরা বিক্রেতাদের দোকানে লবণ ক্রয়ের জন্য ক্রেতারা হুমড়ি খেয়ে পড়ে। দুপুর ১২টার মধ্যে ডিলার ও অনেক পাইকারি ব্যবসায়ীর গোডাউন লবণশূন্য হয়ে যায়।





সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]