ই-পেপার রোববার ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯ ১ পৌষ ১৪২৬
ই-পেপার রোববার ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯

তুচ্ছ ঘটনার জেরে মাদরাসা ছাত্রকে পুড়ি‌য়ে হত্যাচেষ্টা
সময়ের আলো ডেস্ক
প্রকাশ: রোববার, ১ ডিসেম্বর, ২০১৯, ৮:৪৬ পিএম আপডেট: ০১.১২.২০১৯ ৮:৫১ পিএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 90

তুচ্ছ ঘটনার জেরে মাদরাসা ছাত্রকে পুড়ি‌য়ে হত্যাচেষ্টা

তুচ্ছ ঘটনার জেরে মাদরাসা ছাত্রকে পুড়ি‌য়ে হত্যাচেষ্টা

সপ্তম শ্রেণির মাদ্রাসা ছাত্র মো. মাহফুজের (১৩) শরীরে কেরসিন ঢেলে আগুনে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। গুরুতর অবস্থায় তাকে শেরে-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তির পর উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।

জানা গেছে, শনিবার (৩০ নভেম্বর) সন্ধ্যায় বরিশালের বাবুগঞ্জ উপজেলার চাঁদপাশা এলাকায় ঘটে এ ঘটনা। দগ্ধ ছাত্রের নাম মো. মাহফুজ (১৩)। সে ওই এলাকার কাশেম ঢালীর ছেলে এবং স্থানীয় বকশীর চর দাখিল মাদরাসার সপ্তম শ্রেণির ছাত্র।

ছাত্রের স্বজনরা জানান, মাহফুজের কাছে মোবাইল কেনা বাবদ ৬০০ টাকা নিয়ে এই ঘটনা ঘটে। ঘটনার আগে মাহফুজ স্থানীয় একটি দোকানে বসে ছিলো। সেখান থেকে তার বন্ধু বাপ্পী মাহফুজকে ডেকে একটি নির্জন স্থানে নিয়ে যায়। সেখানে আগে থেকেই অবস্থান করছিল তাদের আরেক বন্ধু তামিম। কথাবার্তার এক পর্যায়ে মাহফুজের গায়ে কেরসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয় তারা। তার চিৎকার শুনে স্থানীয় লোকজন পরিবারে খবর জানায়। তারা পৌঁছার আগেই মাহফুজের শরীরের একাংশ পুড়ে যায়। পরে তারা তাকে গুরুতর অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করে।

এদিকে শেরে-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন এন্ড প্লাস্টিক সার্জারী বিভাগের প্রধান ডা: এম এ আজাদ  জানান, তার শরীরের ২৩ ভাগ পুড়ে গেছে। একই সাথে পুড়েছে তার শ্বাসনালীর অংশ বিশেষ। এ অবস্থায় তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানোর পরামর্শ দেয়া হয়েছে। এরপরপরই তাকে ঢাকায় নিয়ে যায় স্বজনরা।’  

মাহফুজের স্বজনরা এ ঘটনায় দায়ীদের গ্রেফতার ও উপযুক্ত শাস্তি দাবী করেছেন।  এ ঘটনায় অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে তদন্ত করে যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে   জানিয়েছেন বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মো: শাহাবু‌দ্দিন খান।





সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]