ই-পেপার রোববার ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯ ১ পৌষ ১৪২৬
ই-পেপার রোববার ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯

নেক আমলে গুনাহের কাফফারা
আব্দুল্লাহ আল মাসউদ
প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১২:০০ এএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 35

আমরা প্রায়শই পাপ কাজে জড়িয়ে যাই। অনেক সময় এক পাপ থেকে বাঁচতে গিয়ে অন্য পাপে পা পিছলে পড়ি। কখনও ইচ্ছায় পাপে লিপ্ত হই; কখনও অনিচ্ছায়। কখনও বুঝতে পারি। কখনও বুঝতে পারি না। তখন একের পর এক পাপে জড়াতেই থাকি! এতে পাপের বোঝা দিন দিন ভারী হতে থাকে।
কিন্তু এই পাপের বোঝা কীভাবে হালকা করা যায়, কীভাবে মেটানো যায়Ñ তা নিয়ে কি কখনও ভাবি? অনেকেই ভাবি না। অথচ ইচ্ছে করলে পাপগুলো আমরা মিটিয়ে দিতে পারি তৎক্ষণাৎ। সেই পন্থা আল্লাহ তায়ালা নিজে আমাদের শিখিয়ে দিয়েছেন। নেক কাজের মাধ্যমে পাপ মেটানোর কথা বলেছেন তিনি। পবিত্র কোরআনে ইরশাদ হয়েছেÑ ‘তুমি নামাজ কায়েম কর দিবসের দুই প্রান্তভাগে এবং রজনীর প্রথমাংশে। অবশ্যই নেক আমল পাপসমূহ মিটিয়ে দেয়। যারা উপদেশ গ্রহণ করে, এ তাদের জন্য এক উপদেশ।’ (সুরা হুদ : ১১৪)
কতইনা সুন্দর পথ। একটি নেক কাজই পারে আমাদের পাপসমূহ মিটিয়ে দিতে। রাসুল (সা.) হজরত আবু যরকে (রা.) বলেন, ‘হে আবু যর! যেখানেই থাক আল্লাহকে ভয় কর এবং কোনো পাপ হয়ে গেলেই নেক আমল কর; তা তোমার পাপ মিটিয়ে দেবে।’
(তিরমিজি : হাদিস ১৯৮৭)। এভাবেই পাপের কাফফারা হয় নেক আমল করার দ্বারা।
নেক কাজ নানাভাবে করা যেতে পারে। মানুষকে সালাম দেওয়ার মাধ্যমে আমরা নেকি অর্জন করতে পারি। চলতে-ফিরতে হরহামেশাই যেহেতু গুনাহের আশঙ্কায় থাকি, সর্বদাই গুনাহের জালে আবদ্ধ থাকি। তাই আমাদের সালাম একটি নেক কাজ। পথে বের হলেই আমরা পরিচিত-অপরিচিত ব্যক্তির মুখোমুখি হই। শুধু ছোট্ট করে একটি সালাম দিলেই হলো। দশটি নেকি আমাদের আমলনামায় জমা হয়ে গেল। সঙ্গে সঙ্গে গুনাহের বোঝাও হালকা হলো। পাশাপাশি পরস্পর ভ্রাতৃত্ব আর মুহাব্বতের সেতুবন্ধনও তৈরি হবে।
দান-সদকার মাধ্যমে নেক কাজ করতে পারি। অন্যকে সহযোগিতার মাধ্যমে করতে পারি। সর্বদা সত্য কথা বলার মাধ্যমে করতে পারি। সুযোগ হলে দুই রাকাত নফল নামাজ আদায় করতে পারি। রাসুল (সা.) বলেন, ‘কারও কোনো পাপ হয়ে গেলে সে যদি উত্তমরূপে ওজু করে এবং দুই রাকাত নামাজ পড়ে আল্লাহর কাছে মাফ চায়, আল্লাহ তাকে মাফ করে দেন।’ (মুসনাদে আহমাদ : হাদিস ২)
এভাবেই আমরা খুঁজে খুঁজে নেক কাজ করতে থাকলে আমাদের দ্বারা যদি কোনো গুনাহ হয়েও যায়Ñ সেই নেক কাজগুলো গুনাহের কাফফারা হয়ে যাবে ইনশাল্লাহ। কেয়ামতের দিন যখন আমলনামা পাল্লায় তোলা হবে, আশা করা যায় আমাদের নেক আমলগুলো ছাড়িয়ে গুনাহের পাল্লা কিছুতেই ভারী হয়ে উঠতে পারবে না। এই ছোট ছোট নেক কাজগুলোই সেদিন পাহাড়সম হয়ে আমাদের নাজাতের উসিলা হবে।





সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]