ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা শুক্রবার ৩ জুলাই ২০২০ ১৯ আষাঢ় ১৪২৭
ই-পেপার শুক্রবার ৩ জুলাই ২০২০

বিদেশি কর্মী নিয়োগে কঠোর হচ্ছে মালয়েশিয়ায়
মালয়েশিয়া সংবাদদাতা
প্রকাশ: শুক্রবার, ৫ জুন, ২০২০, ১১:২৩ পিএম আপডেট: ০৫.০৬.২০২০ ১২:৩৩ এএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 3012

করোনাভাইরাস-পরবর্তী মালয়েশিয়ায় বিদেশি কর্মী নিয়োগে বড় ধরনের পরিবর্তনের পাশাপাশি অবৈধ প্রবেশ ঠেকাতে কঠোর নিরাপত্তাবলয় তৈরি করবে বলে জানান দেশটির সিনিয়র মন্ত্রী (সিকিউরিটি) দাতুক সেরি ইসমাইল সাবরি ইয়াকুব। বেকারত্ব দূর করে দেশের অর্থনীতিকে চাঙ্গা করতে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হচ্ছে বলে বৃহস্পতিবার সাংবাদিকদের জানান তিনি।
দাতুক সেরি ইসমাইল সাবরি ইয়াকুব জানান, বিদেশি কর্মী নিয়োগের নীতি এবং অবৈধ অভিবাসীদের জন্য কোভিড-১৯ পরবর্তী অবৈধ
অভিবাসী নিয়ন্ত্রণের নীতিতে দেশটি উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন দেখাবে। এ বিষয়ে বিশদ বিবরণ দিয়ে তিনি জানান, মালয়েশিয়া ও পাশর্^বর্তী সিঙ্গাপুরসহ আরও বেশ কয়েকটি দেশ কোভিড-১৯ বৃদ্ধিতে বৈধ-অবৈধ অভিবাসীদের মধ্যে সচেতনতার অভাবে আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধি পায়। তারই অংশ হিসেবে বিদেশিদের প্রবেশে নতুন করে অনুসরণ করে নীতিটি সংশোধন করার সময় এসেছে। কারণ বিদেশি কর্মী নিয়োগের নীতিতে এবং অবৈধ বিদেশিদের আগমনকে বাধা দেওয়ার ক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন হবে। আমরা লক্ষ্য করেছি, কোভিড-১৯-এর প্রাদুর্ভাবের ফলে পর্যটন খাতসহ বিভিন্নভাবে অর্থনীতি ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে, এতে অনেক হোটেল ও কারখানা বন্ধ হয়ে গিয়েছিল এবং শ্রমিকদের অপসারণের ফলে বেকারত্ব বেড়েছে, যে কারণে পরবর্তী অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধার ধীর হতে পারে উল্লেখ করে তিনি বলেন, সরকারের নীতি হবে বিদেশিদের চেয়ে স্থানীয় মানুষকে স্থানীয়ভাবে কাজ করাতে অগ্রাধিকার দেওয়ার পাশাপাশি বিদেশি কর্মীদের সংখ্যা হ্রাস সংক্রান্ত নীতি পর্যালোচনা করার জন্য সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে আলোচনা করা হবে বলে তিনি জানান। তিনি আরও বলেন, এই নীতিগত পরিবর্তনগুলো ছাড়াও, এটিও লক্ষ করা যায় যে অবৈধ অভিবাসীদের দেশে প্রবেশের বিষয়টি কখনই শেষ হয় না। যার কারণে সীমান্তে নিয়ন্ত্রণ আরও জোরদার করতে বিভিন্ন সংস্থার সমন্বিত বিশেষ দল গঠন করা হয়েছিল। যার কারণে অবৈধ অভিবাসীদের প্রবেশ নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হয়েছে। তিনি আরও বলেন, বুধবার সে দেশে ৯৩ জন করোনা পজিটিভের মধ্যে ৯০ জন বিদেশি অভিবাসী করোনা আক্রান্ত হয়েছে। বুধবারের খবর অনুযায়ী মালয়েশিয়ায় করোনাভাইরাস মোকাবিলায় সাফল্য অর্জন করলেও ডিটেনশন ক্যাম্পে আটকদের মধ্যে বাড়ছে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা। যার কারণে সে দেশে অবস্থানরত অবৈধ অভিবাসীদের আটক করে করোনা পরীক্ষা করছে অভিবাসন বিভাগ। কিন্তু দেশে ফেরার অপেক্ষায় থাকা ডিটেনশন ক্যাম্পে আটকদের মধ্যে আক্রান্ত হয়েছে ৪৬৬ জন। যার মধ্যে প্রথমে রয়েছে ইন্ডিয়ার ১২৩ জন। দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে বাংলাদেশের ১০৮ জন। এ ছাড়াও ইন্দোনেশিয়ার ৭৬, মিয়ানমারের ৬৬, পাকিস্তানের ৪৫, চায়নার ১৮, শ্রীলঙ্কার ৭, নেপালের ৫, কম্বোডিয়ার ৪, মেসির দুই ও নাইজেরিয়া, লাউচ, লিবিয়া, সিরিয়ার একজন করে ও চারজনের দেশের নাম জানা যায়নি।






সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]