ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা মঙ্গলবার ৭ জুলাই ২০২০ ২৩ আষাঢ় ১৪২৭
ই-পেপার মঙ্গলবার ৭ জুলাই ২০২০

জামালরা মাঠে ফিরবেন অক্টোবরে!
ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশ: রোববার, ৭ জুন, ২০২০, ১২:০০ এএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 7

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে স্থগিত হয়ে গিয়েছিল ২০২২ কাতার বিশ্বকাপ এবং ২০২৩ চীন এশিয়া কাপ ফুটবলের বাছাই। অনাকাক্সিক্ষত লম্বা বিরতির পর এই যৌথ বাছাইয়ের খেলাগুলো আবার শুরু করার ছক কষে ফেলেছে এশিয়ান ফুটবল কনফেডারেশন (এএফসি)। অক্টোবরেই মাঠে খেলা ফেরাতে চায় এশিয়ান ফুটবলের অবিভাবক সংস্থাটি। ফুটবলের বিশ্ব সংস্থা ফিফার সঙ্গে আলোচনার পর সাম্ভাব্য সূচিও ঠিক করে ফেলেছে এএফসি।
সাম্ভাব্য সূচি অনুসারে ম্যাচ ডে-৭ এবং ম্যাচ ডে-৮ এর খেলাগুলো অনুষ্ঠিত হবে যথাক্রমে ৮ এবং ১৩ অক্টোবর। ১২ এবং ১৭ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হবে ম্যাচ ডে-৯ আর ম্যাচ ডে-১০ এর খেলাগুলো। বলার অপেক্ষা রাখে না, এই সূচি ঠিক থাকলে অক্টোবরেই মাঠের লড়াইয়ে দেখা যাবে জামাল ভ‚ঁইয়ার বাংলাদেশকে। ম্যাচগুলো হওয়ার কথা ছিল মার্চ এবং জুনে। কিন্তু করোনার কারণে তা স্থগিত করতে বাধ্য হয় ফিফা আর এএফসি।
ফুটবলার, ম্যাচ অফিসিয়াল, কোচিং স্টাফসহ সংশ্লিষ্ট সবার নিরাপত্তা এবং চিকিৎসার বিষয়গুলো দেখেশুনে তারপর চ‚ড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে এএফসি। করোনা পরিস্থিতি খারাপ থাকলে এই সূচিতেও পরিবর্তন আসতে পারে বলে জানিয়েছে এশিয়ান ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি। শনিবার এক ভিডিও বার্তায় এমনটাই জানিয়েছেন বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) সাধারণ সম্পাদক আবু নাইম সোহাগ।
সোহাগ বলেছেন, ‘ফিফার নির্দেশনা অনুসারে এএফসি আগামী অক্টোবর এবং নভেম্বরে বাছাইয়ের গ্রæপ পর্বের বাকি ম্যাচগুলো আয়োজন করবে।’ বাছাইয়ে বাংলাদেশ খেলছে ‘ই’ গ্রæপে। সেখানে জামাল-জীবনদের প্রতিপক্ষ ২০২২ বিশ্বকাপের আয়োজক কাতার, ওমান ভারত আর আফগানিস্তান। হোম অ্যান্ড অ্যাওয়ে ভিত্তিতে খেলাগুলো অনুষ্ঠিত হচ্ছে। ইতোমধ্যে চার ম্যাচ খেলে ফেলেছে বাংলাদেশ, সূচি ঠিক থাকলে বাকি চার ম্যাচের দুটো হবে অক্টোবরে দুটি নভেম্বরে।
আগামী ৮ অক্টোবর সিলেটে আফগানিস্তানের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। ১৩ অক্টোবর দোহায় খেলবে কাতারের বিপক্ষে ফিরতি ম্যাচটি। বাংলাদেশ শেষ দুটি ম্যাচ খেলবে ১২ নভেম্বর ভারত এবং ১৭ নভেম্বর ওমানের বিপক্ষে। এর আগে খেলা চার ম্যাচ থেকে মোটে একটি পয়েন্ট অর্জন করে গ্রæপের তলানীতে আছে বাংলাদেশ। নিজেদের প্রথম দুই ম্যাচে আফগানিস্তান আর কাতারের কাছে হারের পর ভারতের বিপক্ষে ড্র করে জেমি ডের শিষ্যরা। এরপর সবশেষ ম্যাচে স্বাগতিক ওমানের কাছে বড় ব্যবধানে হেরে ঘরে ফেরেন জামালরা।
এদিকে, ফিফার গাইডলাইন অনুসারে এএফসি ম্যাচগুলোর তারিখ আবারও নির্ধারণ করায় নড়েচড়ে বসতে শুরু করবে সংশ্লিষ্ট দেশগুলো। যদিও ‘ই’ গ্রæপের পয়েন্ট টেবিলে শীর্ষে থাকা কাতার দিনচারেক আগেই তাদের প্রস্তুতি পর্বের সূচি জানিয়ে দিয়েছে। বাংলাদেশ দল কবে নাগাদ অনুশীলনে ফিরবে, এটা এখনও অনিশ্চিত। কারণ দেশের করোনা পরিস্থিতি এখনও অবনতির দিকে। ঘোষণা দিয়েই দেশে সব ধরনের খেলাধুলা স্থগিত করেছে সরকার। সেই স্থগিতাদেশ কবে তুলে নেওয়া হবে, তার উত্তর আপাতত জানা নেই কারও!
সার্বিক পরিস্থিতি মাথায় রেখে বাফুফের সাধারণ সম্পাদক জানিয়েছেন, জাতীয় দলকে অনুশীলনে ফেরানোর সব রকম প্রস্তুতি নিয়ে রাখবে কর্তৃপক্ষ। সোহাগ বলেছেন, ‘এএফসি যেহেতু ফিফার সঙ্গে আলোচনা করেই তারিখ নির্ধারণ করেছে, তাতে ধরেই নেওয়া যায় নভেম্বরের মধ্যে বাছাইয়ের ম্যাচগুলো শেষ হয়ে যাবে। আমরা সেটা মাথায় রেখেই জাতীয় দলের প্রস্তুতি সংক্রান্ত কাজগুলো করে যাব। সহসাই ন্যাশনাল টিমস কমিটি সভা করে জাতীয় দলের প্রস্তুতি শুরুর বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে।’
জাতীয় দলকে দ্রæত অনুশীলনে ফেরাতে আরেকটি বড় অন্তরায় হচ্ছে, দল এখন কোচশূন্য! আগামী চার মাস জাতীয় দলের কার্যক্রম থাকবে না, এমনটা ধরে নিয়ে জেমি ডের সঙ্গে ১৬ আগস্ট থেকে নতুন চুক্তি করেছে বাফুফে। অর্থাৎ আরও অন্তত আড়াই মাসের মধ্যে প্রধান কোচ পাচ্ছেন না জামালরা। যদিও জেমির সঙ্গে বাফুফের সম্পর্ক বেশ মধুর। সে কারণেই দুই চুক্তির মধ্যে বেশ বড় বিরতি পড়লেও তাতে আপত্তি তুলেননি এই ইংলিশম্যান। শুধু তাই নয়, ইংল্যান্ড থেকেই শিষ্যদের নানা পরামর্শ দিয়ে যাচ্ছেন তিনি।





সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]