ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা শুক্রবার ১০ জুলাই ২০২০ ২৬ আষাঢ় ১৪২৭
ই-পেপার শুক্রবার ১০ জুলাই ২০২০

করোনা যুদ্ধে সামনের সারিতে মেডিকেল টেকনোলজিস্টরা
স্বপ্না চক্রবর্তী
প্রকাশ: সোমবার, ২৯ জুন, ২০২০, ৭:২৮ পিএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 636

* নমুনা সংগ্রহ করতে গিয়ে সারাদেশে ৫০০  মেডিকেল টেকনোলজিস্ট আক্রান্ত হয়েছেন করোনায়
* সেল্ফ আইসোলেশনে সুস্থ হয়ে আবারো বাড়ি বাড়ি গিয়ে সংগ্রহ করেছেন নমুনা
* সারাদেশ থেকে সংগ্রহ করেছেন ৬০ হাজার নমুনা


দেশের করোনা মহামারী মোকাবেলায় ডাক্তারদের সাথে সমানতালে কাজ করে যাচ্ছেন বিভিন্ন মেডিকেল টেকনোলজিস্টরা। বাড়ি বাড়ি গিয়ে নমুনা সংগ্রহ করতে গিয়ে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৫শ'র বেশি টেকনোলজিস্ট। কিন্তু আইসোলেশন পিরিয়ড কাটিয়ে সুস্থ হয়ে আবার সবাই মাঠে কাজ করছেন পূর্ণ উদ্যমে।

সময়ের আলোর সাথে এই করোনা যোদ্ধাদের নেতৃত্ব দেওয়া বঙ্গবন্ধু মেডিকেল টেকনোলজিস্ট পরিষদ (বিএমটিপি) এর সাধারণ সম্পাদক মো. আশিকুর রহমান তুলে ধরেছেন নিজেদের অভিজ্ঞতার কথা।

মো. আশিকুর রহমান সময়ের আলোকে বলেন, কোভিড-১৯ মহামারি শুরুর প্রথম থেকে সরকারি প্রতিষ্ঠানের মেডিকেল টেকনোলজিস্টদের পাশাপাশি  এ পর্যন্ত প্রায় ১০০-১৫০ জন মেডিকেল টেকনোলজিস্ট স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে সেম্পল কালেকশন করছে। ঢাকা শহরের বাইরেও শত শত স্বেচ্ছাসেবক সেম্পল কালেকশনের কাজ করছে।

প্রথম দিকে তাদের জন্য স্বাস্থ্য সুরক্ষার জন্য প্রথম দিকে পর্যাপ্ত পরিমাণ পিপিই ও এন-৯৫ মাস্ক না থাকলেও পরে আমরা আস্তে আস্তে সব পান।

এখন পর্যন্ত সকল স্বেচ্ছাসেবী মেডিকেল টেকনোলজিস্টরা সুরক্ষার মধ্যে থেকেই পিসিআর ল্যাবে ও ফিল্ডে সব কাজ করছে বলেও জানান তিনি।

তিনি বলেন, করোনা মহামারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত বিএমটিপি'র নেতাকর্মী ও সদস্যদের মাধ্যমে সারা দেশে প্রায় ৫০-৬০ হাজার নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এখনো তারা সেম্পল কালেকশন করে যাচ্ছে।

তিনি জানান, আইইডিসিআর-এ বিএমটিপি'র প্রায় ৩০-৩৭ জন সদস্য স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে কাজ করছে। তারা স্বাস্থ্য সুরক্ষার সকল সরঞ্জামাদি পেয়েছে। বর্তমানে তারা আর্থিকভাবে কিছুটা সম্মানিও পাচ্ছে।

তিনি বলেন, করোনা সেম্পল কালেকশন করতে গিয়ে সারাদেশে স্বেচ্ছাসেবকসহ ৫০০ উপরে  করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তারা সকলে ১৪ দিন আইসোলেশনে থাকার পর সুস্থ হয়ে আবার পুনরায় করোনা সেম্পল কালেকশনের কাজে নেমে পড়েন।  

দীর্ঘ দিন ধরেই মেডিকেল টেকনোলজিস্টের শূন্য পদে নিয়োগের দাবি করে আসা বিএমটিপির এই নেতা বলেন, মেডিকেল টেকনোলজিস্ট নিয়োগ ছাড়া আমাদের আরো অনেক দাবি আছে। তার মধ্যে মেডিকেল টেকনোলজিস্টদের ১০ম গ্রেড প্রদান, এল্যাইড হেলথ শিক্ষা বোর্ড বাস্তবায়ন, মেডিকেল টেকনোলজিস্টদের স্বতন্ত্র কাউন্সিল গঠন, গ্র্যাজুয়েট মেডিকেল টেকনোলজিস্টের পদ সৃজনসহ অন্যান্য।

এ সময় তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে আমাদের একটাই দাবি রয়েছে উল্লেখ করে বলেন, সারাদেশের সকল স্বেচ্ছাসেবক করোনা যোদ্ধা মেডিকেল টেকনোলজিস্টদেরকে রাজস্বখাতে দ্রুত নিয়োগ এবং মেডিকেল টেকনোলজিস্টদের পেশাগত মর্যাদা ১০ম গ্রেড প্রদান করে দেশের স্বাস্থ্যখাতকে আরো শক্তিশালী করা হোক।

তিনি আরও বলেন, সেচ্ছাসেবক মেডিকেল টেকনোলজিস্ট না থাকলে গড়ে প্রতিদিন ১৫ হাজারের উপরে নমুনা সংগ্রহ সম্ভব হতো না। আজ পর্যন্ত যত নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে তার ৮০% নমুনা সেচ্ছাসেবক মেডিকেল টেকনোলজিস্ট করেছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]