ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা রোববার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ ১২ আশ্বিন ১৪২৭
ই-পেপার রোববার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০

কাস্টমস তথ্য বিনিময়ে সৌদির সঙ্গে চুক্তি হচ্ছে
মন্ত্রিসভায় প্রস্তাব অনুমোদন : রেল ট্রানজিট পাচ্ছে নেপাল
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশ: মঙ্গলবার, ১১ আগস্ট, ২০২০, ১১:৩৩ পিএম আপডেট: ১১.০৮.২০২০ ১২:০৭ এএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 23

চাঁপাইনবাবগঞ্জের রহনপুর ও ভারতের সিঙ্গাবাদ রেলপথের মাধ্যমে নেপালকে মালামাল পরিবহনে ট্রানজিট সুবিধা দিতে একটি চুক্তি সংশোধনের প্রস্তাব অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। সোমবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভার ভার্চ্যুয়াল বৈঠকে ‘অ্যাডেনডাম টু দ্য প্রটোকল টু দ্য ট্রানজিট অ্যাগ্রিমেন্ট বিটুইন দ্য গভর্নমেন্ট অব দ্য পিপলস রিপাবলিক অব বাংলাদেশ অ্যান্ড দ্য গভর্নমেন্ট অব দ্য ফেডারেল ডেমোক্রেটিক রিপাবলিক অব নেপাল’-এর খসড়া অনুমোদন দেওয়া হয়। এ ছাড়া কাস্টমস সংক্রান্ত তথ্য বিনিময়ে বাংলাদেশ ও সৌদি আরবের মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষরের অনুমতি দেওয়া হয়। গণভবন থেকে প্রধানমন্ত্রী ও সচিবালয়ের মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে ছয়জন মন্ত্রী এ বৈঠকে সংযুক্ত ছিলেন।
বৈঠক শেষে সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম প্রেস ব্রিফিংয়ে বলেন, ১৯৭৬ সাল থেকে নেপালের সঙ্গে আমাদের দ্বিপক্ষীয় ট্রানজিট অ্যাগ্রিমেন্ট রয়েছে। সেই ট্রানজিট অ্যাগ্রিমেন্টের মধ্যে নেপাল একটি অনুরোধ করেছে, আমাদের রহনপুর আর ভারতের সিঙ্গাবাদ হয়ে যে রেলপথ রয়েছে সেখানে আরেকটি ট্রানজিট সুবিধা দেওয়ার জন্য। সচিব বলেন, ১৯৭৬ সাল থেকেই এই প্রোটোকলটা রয়েছে, নতুন আরেকটা হলো। রহনপুর ও সিঙ্গাবাদ রেলপথের মাধ্যমে তারা মালামাল আনতে ও নিতে পারে সেটার জন্য। তিনি জানান, এই সংশোধনী প্রস্তাব অনুমোদন পেলে চাঁপাইনবাবগঞ্জের রহনপুর থেকে ভারতের সিঙ্গাবাদ হয়ে নেপালের বীরগঞ্জ পর্যন্ত রেলপথে পণ্য পরিবহন সুবিধা চালু হবে।
মন্ত্রিপরিষদ সচিব আরও জানান, নেপাল আমাদের সৈয়দপুর বিমানবন্দর ব্যবহার করতে চায়। এটা আলোচনা চলছে, বৈঠকে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ওইভাবে আর উপস্থাপন করতে পারেনি। যদি এটায় এগ্রি হয় তাহলে অদূর ভবিষ্যতে সেই প্রস্তাবও এখানে আসবে। বর্তমানে নেপালকে মোংলা ও চট্টগ্রাম বন্দর ব্যবহার করতে দেওয়া হচ্ছে জানিয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব জানান, সুবিধা আমরাও পাব। তবে সব জায়গায় আমরা ওপেন করতে পারিনি। বৈঠকে কাস্টমস সংক্রান্ত তথ্য বিনিময়ে বাংলাদেশ ও সৌদি আরবের মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষরের অনুমতি দেওয়া হয়। দিয়েছে মন্ত্রিসভা। মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, আমাদের সঙ্গে সৌদি আরবের অনেক যোগাযোগ আছে। সেই যোগাযোগের ক্ষেত্রে কাস্টমস একটি বড় ফ্যাক্টর। সেজন্য সৌদি আরবের শুল্ক সংক্রান্ত তথ্য আদান-প্রদান, শুল্ক ফাঁকি রোধে সহযোগিতা করা। এই চুক্তি করলে বাংলাদেশ ও সৌদি আরবের মধ্যে দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্য আরও বাড়বে জানিয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব জানান, এতে দুই দেশের মধ্যে প্রাতিষ্ঠানিক যোগাযোগ সুসংহত হবে। দুই দেশ অনলাইনে তথ্য আদান-প্রদান করতে পারবে। পণ্যের অবৈধ বাণিজ্য ও চোরাচালান প্রতিরোধে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকাও রাখবে এটা। দুই দেশের অর্থনীতি, জনস্বাস্থ্য ও অন্য স্বার্থ রক্ষায় এটা কার্যকর হবে। গোয়েন্দা কার্যক্রমের বিষয়ে দুদেশ পরস্পরকে সাহায্য করতে পারবে। আমাদের দেশের কাস্টমস বিভাগের দক্ষতা বাড়াতেও সৌদি আরব আমাদের সহায়তা করবে।







সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, নির্বাহী সম্পাদক : শাহনেওয়াজ দুলাল, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে
প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ। নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]