ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা  বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ ১৫ আশ্বিন ১৪২৭
ই-পেপার  বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০

ধর্ষণ মামলার আসামি জামিনে এসে ফুলের মালা পরল
আখাউড়া (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি
প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১০:৪৩ পিএম আপডেট: ১৬.০৯.২০২০ ১১:০৪ পিএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 14

শিশু ধর্ষণচেষ্টা মামলায় অভিযুক্ত মো. মতিউর রহমান (মুক্ত মিয়া) উচ্চ আদালত থেকে জামিন নিয়ে এলাকায় এলে তাকে ফুলের মালা পরিয়ে বরণ করা হয়। মোটরসাইকেল ও প্রাইভেটকার নিয়ে করা হয়েছে শোডাউন। বাদ যায়নি মিষ্টি বিতরণও। এসব আনন্দ উল্লাস করেছে অভিযুক্ত ও তার পক্ষের লোকজন। এ ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার বিকালে আখাউড়া উপজেলার হীরাপুর গ্রামে। এ নিয়ে এলাকায় ক্ষোভ সৃষ্টি হয়েছে। মুক্ত মিয়ার ফুলের মালা পরিহিত ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হওয়ায় নিন্দার ঝড় উঠেছে।
এলাকাবাসী ও মামলা সূত্রে জানা গেছে, স্থানীয় নুরপুর লামারবাড়ি সুমাইয়া মাদ্রাসায় দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্রীকে মজা খাওয়ানোর লোভ দেখিয়ে ১৫ জুলাই সকালে একটি পরিত্যক্ত ঘরের বারান্দায় নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণের চেষ্টা করে পাশের বাড়ির অভিযুক্ত মো. মতিউর রহমান ওরফে মুক্ত মিয়া (৮০)।
এ সময় ওই ছাত্রীর চিৎকারের আশপাশের লোকজন এসে ওই ছাত্রীকে উদ্ধার করে। এ সময় অভিযুক্ত মুক্ত মিয়া পালিয়ে যায়। বিষয়টি এলাকা সর্দার-মাতবরদের জানান ওই ছাত্রীর মামা। দীর্ঘদিন ধরে কোনো বিচার না পেয়ে গত ১৭ আগস্ট ওই ছাত্রীর মা মতিউর রহমানকে আসামি করে আখাউড়া থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। ওই মামলায় ৯ সেপ্টেম্বর হাইকোর্ট থেকে জামিন পায় মতিউর রহমান (মুক্ত মিয়া)। জামিন নিয়ে এসে সোমবার বিকালে এলাকায় পৌঁছলে তাকে ফুলের মালা পরিয়ে ও ফুল ছিটিয়ে বরণ করে নেয় তার পক্ষের লোকজন। পরে ১০ থেকে ১২টি মোটরসাইকেল ও কয়েকটি প্রাইভেটকার নিয়ে ফুলের মালা গলায় পরিয়ে এলাকায় শোডাউন ও মিষ্টি বিতরণ করা হয়। তার ছেলেরা বলেছে আমাদের বাবা ওমরা হজ
করে এসেছে।
একই গ্রামের প্রবীণ মুরব্বি আবুল খায়ের বললেন, গত সোমবার মুক্ত মিয়া জামিন পেয়ে এলাকায় আসে তার ছেলে অ্যাডভোকেট তাকে কয়েকটা প্রাইভেটকার, মোটরসাইকেল দিয়ে শোডাউন দিয়ে গলায় ফুলের মালা পরিয়ে ঘুরে বেড়ায়। আমাদেরকে মিষ্টি খাওয়ার দাওয়াত দেয়। আমরা কেউ মিষ্টি খেতে যাইনি।
আখাউড়া স্থলবন্দরে সিঅ্যান্ডএফের ব্যবসায়িক ও হিরাপুর গ্রামের বাসিন্দা আব্বাস উদ্দিন ভঁ‚ইয়া বলেন. মুক্ত মিয়া আমার আপন মামা হয়। সে যে ঘটনাটি ঘটিয়েছে তার সত্যতা পেয়েছি। চেষ্টা করেছি পরিবারের লোকজন নিয়ে মেয়ের পক্ষের সঙ্গে সমাধান করার জন্য। জামিনে এসেই গলায় ফুলের মালা পরে এলাকায় শোডাউন ও মিষ্টি বিতরণ করেছে। এটা ভালো হয়নি।
ওই নির্যাতিত শিশুর মা বলেন, আসামি জামিন পেয়ে খুশিতে মিষ্টি বিতরণ করেছে। আসামি ফুলের মালা পরে আমাদের বাড়ির পাশে মিছিল করে মহড়া দিচ্ছে। ওরা প্রভাবশালী। আমাদের হুমকি-ধমকি দিচ্ছে। আমরা আতঙ্কে আছি।






সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, নির্বাহী সম্পাদক : শাহনেওয়াজ দুলাল, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে
প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ। নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]