ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ ১৪ আশ্বিন ১৪২৭
ই-পেপার মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০

ভার্চুয়াল সভায় হানিফ
তিস্তার পানি বাংলাদেশের মানুষের ন্যায্য অধিকার
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১১:২৮ পিএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 13

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সংসদ সদস্য মাহবুব-উল আলম হানিফ বলেছেন, ভারতকে উপলব্ধি করতে হবেÑ তিস্তা নদীর পানি বাংলাদেশের মানুষের ন্যায্য অধিকার। ভারত সরকার বন্ধুত্বের দায় থেকে তিস্তা সঙ্কট নিরসনে পদক্ষেপ নেবে বলেও আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি। গত মঙ্গলবার রাতে নিউজপোর্টাল বিবার্তা২৪ডটনেট আয়োজিত ‘বিবার্তা সংলাপ’ নামে এক ভার্চুয়াল আলোচনায় তিনি এ কথা বলেন। ‘সম্পর্কের সমীকরণ, ভারত-বাংলাদেশ-চীন’ শিরোনামে ওই ভার্চুয়াল আলোচনাটি সঞ্চালনা করেন গৌরব’৭১-এর সাধারণ সম্পাদক এফএম শাহীন। অন্যদের মধ্যে ছিলেন বিচারপতি শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক এবং লেখক ও সাংবাদিক স্বদেশ রায়। অনুষ্ঠানে অতিথিরা ভারত, চীন ও বাংলাদেশের সম্পর্ক এবং রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে আলোচনা করেন।
হানিফ বলেন, ২০০৯ সালের পর থেকে ভারতের সঙ্গে সম্পর্কের অভ‚তপূর্ব উন্নতি ঘটেছে এবং তা এখন একাত্তরের পর্যায়ে পৌঁছেছে। এই একই সময়ে অর্থাৎ ২০০৯ সালের পর থেকে চীনও বাংলাদেশের অবকাঠামো উন্নয়নে ব্যাপকভাবে এগিয়ে এসেছে। দ্রæতগতিতে দারিদ্র্য ও ক্ষুধামুক্ত বাংলাদেশ গড়তে চাইলে এ মুহূর্তে চীনের অর্থনৈতিক সহযোগিতা আমাদের প্রয়োজন। এর কোনো বিকল্প নেই। তাই চীনের সঙ্গে আমাদের সম্পর্কটি মূলত অর্থনৈতিক। কিন্তু ভারতের সঙ্গে সম্পর্কের বহুবিধ অবিচ্ছেদ্য উপাদান আছে। যার মধ্যে সবচেয়ে বড় উপাদান হচ্ছে একাত্তরের রক্তের বন্ধন, যা এখন ভারত ও বাংলাদেশের প্রজন্ম থেকে প্রজন্মের ধমনিতে বহমান। এ সম্পর্ক অটুট রাখা উভয় দেশের জন্য অপরিহার্য। এ সম্পর্কের ছেদনে যে রক্তক্ষরণ হবে তার যন্ত্রণা ভারত-বাংলাদেশ কেউ সহ্য করতে পারবে না। তবে সব কিছু ঠিক থাকবে যদি আদর্শের জায়গাটা ঠিক থাকে। এই আদর্শের জায়গাটিকে ধরে রাখার জন্য ভারতকে উপলব্ধি করতে হবে তিস্তা নদীর পানি বাংলাদেশের মানুষের ন্যায্য অধিকার। আমাদের প্রত্যাশা ভারত সরকার বন্ধুত্বের দায় থেকে তিস্তা সঙ্কট নিরসনে অতিদ্রæত কার্যকর পদক্ষেপ নেবে।
এ সময় বিচারপতি শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক বলেন, ভারতের সঙ্গে আমাদের ভালো সম্পর্ক রয়েছে। ভারত সবসময় আমাদের বন্ধু ছিল। কিন্তু চীন কোনো সময়ই আমাদের ভালো চায়নি। বঙ্গবন্ধুকে যখন হত্যা করা হয় তখন খুনি সরকারের পক্ষ নিয়েছিল চীন। অন্যদিকে লেখক ও সাংবাদিক স্বদেশ রায় বলেন, রোহিঙ্গাদের বাস্তবে ফেরার কোনো উপায় নেই। সেখানে কোনো নিরাপত্তা নেই এবং ১০ লাখ রোহিঙ্গাকে ফিরিয়ে দেওয়া সম্ভব নয়। যেকোনো উপায়ে তারা যাতে ফিরে যেতে পারে সে ব্যবস্থা করা উচিত।







সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, নির্বাহী সম্পাদক : শাহনেওয়াজ দুলাল, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে
প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ। নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]