ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা সোমবার ২৬ অক্টোবর ২০২০ ১১ কার্তিক ১৪২৭
ই-পেপার সোমবার ২৬ অক্টোবর ২০২০

ডা. সাবরিনাসহ ৮ জনের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিয়েছেন আরও একজন
আদালত প্রতিবেদক
প্রকাশ: শুক্রবার, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১১:৪৪ পিএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 16

করোনাভাইরাসের নমুনা পরীক্ষা না করেই ভুয়া রিপোর্ট দেওয়ার অভিযোগে জেকেজি হেলথকেয়ারের সিইও আরিফুল হক চৌধুরী ও চেয়ারম্যান ডা. সাবরিনা আরিফ চৌধুরীসহ আটজনের বিরুদ্ধে জব্দ তালিকার সাক্ষী পুলিশ কনস্টেবল রফিকুল ইসলাম সাক্ষ্য দিয়েছেন।
বৃহস্পতিবার এ মামলায় সাক্ষ্যগ্রহণের জন্য দিন ধার্য ছিল। এদিন ঢাকার মহানগর হাকিম সারাফুজ্জামান আনছারীর আদালতে সাক্ষী রফিকুল ইসলাম হাজির হয়ে সাক্ষ্য দেন। এ সময় বিচারক তার জবানবন্দি গ্রহণ করেন। এরপর আসামিপক্ষের আইনজীবীরা তাকে জেরা করেন। তার সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে বিচারক পরবর্তী সাক্ষ্যগ্রহণের জন্য আগামী ২৮ সেপ্টেম্বর দিন ধার্য করেন। এদিন সাক্ষ্যগ্রহণ থাকায় সব আসামিকেই কারাগার থেকে আদালতে হাজির করা হয়। এ নিয়ে মামলাটিতে চারজনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষ হয়েছে। গত ২০ আগস্ট সাবরিনাসহ ৮ আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন আদালত। উল্লেখ্য, গত ২২ জুন জেকেজির সাবেক গ্রাফিক্স ডিজাইনার হুমায়ুন কবীর হিরু ও তার স্ত্রী তানজীন পাটোয়ারীকে আটক করে পুলিশ। হিরু স্বীকারোক্তি দিয়ে জানান, তিনি ভুয়া করোনা সার্টিফিকেটের ডিজাইন তৈরি করতেন, যার সঙ্গে জেকেজি গ্রæপের লোকজন জড়িত। ওই তথ্যের ভিত্তিতে পুলিশ জেকেজির সিইও আরিফুলসহ চারজনকে আটক করে। সিইও জানায়, প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান ডা. সাবরিনা আরিফ চৌধুরীর জ্ঞাতসারেই সবকিছু হয়েছে। এ অভিযোগে প্রতিষ্ঠানটিতে গত ২৩ জুন অভিযান চালিয়ে সিলগালা করে দেওয়া হয়। পরে তাদের বিরুদ্ধে তেজগাঁও থানায় মামলা করা হয়। পরবর্তী সময়ে গত ১২ জুলাই দুপুরে আলোচিত এই চিকিৎসককে তেজগাঁও বিভাগের উপপুলিশ কমিশনারের কার্যালয়ে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।






সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, নির্বাহী সম্পাদক : শাহনেওয়াজ দুলাল, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে
প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ। নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]