ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা বৃহস্পতিবার ২৯ অক্টোবর ২০২০ ১৪ কার্তিক ১৪২৭
ই-পেপার বৃহস্পতিবার ২৯ অক্টোবর ২০২০

ভালুকায় জমি ফিরে পেতে ক্ষতিগ্রস্ত ৪০ পরিবারের মানববন্ধন
ভালুকা (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি
প্রকাশ: রোববার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১২:১১ এএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 182

ময়মনসিংহের ভালুকায় জাতীয় পরিচয় পত্রে (এনআইডি) পিতার ছবি জাল করে ও দলিলে নকল পিতা বানিয়ে জমি হস্তান্তর করায় একটি সরকারি প্রা. বিদ্যালয়, মসজিদসহ ৪০টি পরিবার ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

এসব ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলো শনিবার উপজেলা পরিষদের সামনে তাদের জমি ফিরে পেতে মানববন্ধন করেছেন। ঘটনাটি উপজেলার বাশিল গ্রামের।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার বাশির গ্রামের আব্দুল খালেকের মেয়ে সালমা আক্তার পিতার নিকট থেকে আমমোক্তার নামা ২টি দলিল (নং ১১৫৯ ও ৬৫২৯, তাং ১০ ফেব্রয়ারি ২০১৯ ও ৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯) মূলে ওই মৌজায় ৪.৫০একর জমির মালিক হন তিনি।

পরে উক্ত জমি ভালুকা উপজেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি ফখর উদ্দিন আহমেদ বাচ্চুর নিকট বিক্রি করেন তিনি। ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোর দাবি সালমা আক্তারের বাবা আব্দুল খালেক ওই জমির মালিক নন। তিনি ১৯৬৯ সালেই সকল জমি বিক্রি করে নিঃস্বত্ববান হয়েছেন। আমমোক্তার নামা দলিলটিও আব্দুল খালেকের করা নয়।

মেয়ে আসমা আক্তার পিতা আঃ খালেকের নাম ও এনআইডি নন্বর ব্যবহার করলেও ছবি ব্যবহার করেছেন ওই গ্রামের রিয়াজত শেখের ছেলে আবদুর রশিদের। আবদুল রশিদকে নকল বাপ বানিয়ে তার স্বাক্ষরে উক্ত আমমোক্তার দলিল সম্পাদন করেছেন। ওই জমির মধ্যে বাশিল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, বাশিল মধ্যপাড়া জামে মসজিদ, বাশিল পূর্বপাড়া জামে মসজিদ, সরকারি  হালটসহ ৪০টি পরিবারের জমি রয়েছে।

উক্ত জমি হস্তান্তর হওয়ার পর ফখর উদ্দিন আহমেদ বাচ্চু তার নামে নামজারি করেন। তিনি উক্ত জমি ব্যাংকে জামানত রেখে ব্যাংক ঋণ গ্রহণ করেছেন। এ কারণেই জমি দ্রুত ফেরত পেতে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলো শনিবার দুপুরে উপজেলা পরিষদের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেন।

সালমা আক্তার এনআইডির ছবি নকলের কথা অস্বীকার করে এ প্রতিনিধিকে জানান, পিতার দখলীয় জমি একমাত্র সন্তান হিসেবে তিনি বিক্রি করেছেন। এতে কোনও জালিয়তির আশ্রয় নেননি।

এ ব্যাপারে ফখর উদ্দিন আহমেদ বাচ্চু জানান, জমির কাগজপত্র যাচাই বাচাই করে তিনি জমি ক্রয় করেছেন। এতে যদি কোনও পক্ষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে থাকে তবে তাদের স্বপক্ষের জমির কাগজপত্র নিয়ে আদালতের আশ্রয় নিতে পারেন।
কাগজে পত্রে জমি না পেলে তিনি বিতর্কিত ওই জমিতে যাবেন না।

মানববন্ধনে এসময় উপস্থিত ছিলেন ভুক্তভোগীদের মধ্যে শিখা আক্তার, আব্দুল বারেক, আবুল কালাম, শহিদ উল্ল্যাহ প্রমুখ।





সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, নির্বাহী সম্পাদক : শাহনেওয়াজ দুলাল, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে
প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ। নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]