ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা রোববার ১ নভেম্বর ২০২০ ১৭ কার্তিক ১৪২৭
ই-পেপার রোববার ১ নভেম্বর ২০২০

উখিয়ার আলোচিত চার খুন
বছর পেরোলেও হয়নি চার্জশিট
উখিয়া সংবাদদাতা
প্রকাশ: শুক্রবার, ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১১:১৬ পিএম আপডেট: ২৪.০৯.২০২০ ১১:৩৪ পিএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 22

উখিয়া পূর্ব রত্মাপালং বড়–য়া পাড়ায় একই পরিবারের দুই নারী ও দুই শিশু খুনের ঘটনার পর গত এক বছরেও চার্জশিট দাখিল করতে পারেনি তদন্ত কর্মকর্তা। এখনও পর্যন্ত ঘটনার ক্লু বের করতে পারেনি পুলিশ।
জানা যায়, চাঞ্চল্যকর ফোর মার্ডার ঘটনায় করা মামলায় কোনো আসামিও শনাক্ত করা সম্ভব হয়নি। নিহত সখী বালা বড়ুয়া, মিলা বড়ুয়া, তার শিশু পুত্র রবিন বড়ুয়া এবং শিশু সনি বড়ুয়াকে রাতে নির্মমভাবে হত্যা করেছিল। মামলার তদন্তের দায়িত্বে থাকা পিবিআই এখনও ঘটনার ক্লু বের করতে পারেনি। মামলার বাদী এজাহারে সুনির্দিষ্ট কাউকে আসামি করেননি। এ পর্যন্ত ৪ জন আইও নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।
উখিয়া থানার এসআই মোহাম্মদ ফারুক হোসেন, উখিয়া থানার তৎকালীন ওসি (তদন্ত) নুরুল ইসলাম মজুমদার, কক্সবাজার পিবিআই ইন্সপেক্টর পুলক বড়ুয়া এই তিন কর্মকর্তার পর সর্বশেষ গত জুন মাসে আইও পরিবর্তন করে ইন্সপেক্টর কৈশনু মার্মাকে চতুর্থ নম্বর আইও নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। ৩ জনকে সন্দেহজনক গ্রেফতার করা হলেও তারা জামিনে মুক্তি পেয়েছে।
কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পিপি অ্যাডভোকেট ফরিদুল আলম বলেন, চার্জশিট না হওয়ায় মামলাটি বিচারের জন্য প্রস্তুত করা যাচ্ছে না। চার্জশিট দাখিলের বিষয়ে আইও আদালত থেকে সময় নিচ্ছেন বারবার। বৌদ্ধ ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের ট্রাস্টি অ্যাডভোকেট দীপংকর বড়ুয়া দীর্ঘ এক বছরেও এ হত্যাকাÐের প্রকৃত আসামিকে শনাক্ত করে আইনের আওতায়  আনতে না পারায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন।
এ মামলার তদন্তে অগ্রগতির বিষয়ে জানার জন্য বর্তমান আইও পিআইবির ইন্সপেক্টর কৈশনু মার্মার সঙ্গে যোগাযোগের অনেক চেষ্টা করেও তিনি অসুস্থ হয়ে ছুটিতে থাকায় তার কাছ থেকে কোনো তথ্য জানা সম্ভব হয়নি।




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, নির্বাহী সম্পাদক : শাহনেওয়াজ দুলাল, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে
প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ। নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]