ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা  বুধবার ২৮ অক্টোবর ২০২০ ১৩ কার্তিক ১৪২৭
ই-পেপার  বুধবার ২৮ অক্টোবর ২০২০

বাংলাদেশের অবস্থান বিশে^ পঞ্চম
সৌর বিদ্যুৎ খাতে কাজ করছে ১ লাখ ৩৭ হাজার লোক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশ: বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১১:২২ পিএম আপডেট: ৩০.০৯.২০২০ ১২:০৪ এএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 14

দেশের নবায়নযোগ্য শক্তি খাতে প্রায় ১ লাখ ৩৭ হাজার মানুষের কর্মসংস্থান হয়েছে। সৌর বিদ্যুৎ খাতের কর্মসংস্থানে বিশে^ বাংলাদেশের অবস্থান ১৬১টি দেশের মধ্যে পঞ্চম। এ খাতে কর্মসংস্থানে শীর্ষ দেশ চীন। দ্বিতীয় জাপান, তৃতীয় যুক্তরাষ্ট্র ও চতুর্থ ভারত। বাংলাদেশের পরে আছে ভিয়েতনাম, ব্রাজিল, মালয়েশিয়া, জার্মানি ও ফিলিপাইন।
মঙ্গলবার নবায়নযোগ্য শক্তি খাতের বৈশি^ক সংস্থা ইন্টারন্যাশনাল রিনিউঅ্যাবেল এনার্জি এজেন্সির ‘নবায়নযোগ্য শক্তি ও কর্মসংস্থান’ শীর্ষক বার্ষিক প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে এসেছে। জীবাশ্ম জ্বালানির পরিবর্তে নবায়নযোগ্য শক্তির ব্যবহার নিয়ে কাজ করে আইরিনা। সংযুক্ত আরব আমিরাতে সংস্থাটির সদর দফতর। বাংলাদেশসহ বিশে^র ১৬১টি দেশ আইরিনার সদস্য। সংস্থাটির প্রতিবেদনে বলছে, অফ-গ্রিডে (জাতীয় বিদ্যুৎ সঞ্চালন সংযোগের বাইরে) সৌরশক্তির প্রসার শুধু নতুন কর্মসংস্থানই তৈরি করছে না, গ্রামীণ এলাকায় অর্থনৈতিক উন্নয়নে ভূমিকা রাখছে। নবায়নযোগ্য শক্তির এই বিকেন্দ্রীকরণ শুধু বিদ্যুৎ উৎপাদন নয় বরং কৃষিকাজ, খাদ্য সংরক্ষণ, স্বাস্থ্যসেবা এবং স্থানীয় ব্যবসায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে।
ওই প্রতিবেদনে কর্মসংস্থানের যে হিসাব দেওয়া হয়েছে, তা প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ। এখানে পুরো সরবরাহ ব্যবস্থাকেই (ভ্যালু চেইন) তুলে ধরা হয়েছে। যে সোলার প্যানেল লাগাচ্ছে, যে দোকানদার বিক্রি করল বা যে সারাইয়ের কাজ করে সবাইকে এ কর্মকাণ্ডের মধ্যে ধরা হয়েছে।
প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বাংলাদেশে প্রায় ৫৮ লাখ সৌর বিদ্যুৎ বা সোলার হোম সিস্টেম রয়েছে। এসব বিক্রি, স্থাপন করা ও রক্ষণাবেক্ষণে বেশিরভাগ কর্মসংস্থান তৈরি হয়েছে। যেমন প্রায় ১০ হাজার মানুষ কাজ করেন সৌর বিদ্যুতের ‘মডিউল’ সংযোজন কাজে।
বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের অধীন টেকসই ও নবায়নযোগ্য জ্বালানি উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (স্রেডা) হিসাবে, বর্তমানে নবায়নযোগ্য জ্বালানি খাত থেকে ৬৪৮ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ আসে। এর মধ্যে ৪০০ মেগাওয়াট আসে সৌরশক্তি থেকে। বাংলাদেশে প্রায় ৫৮ লাখ সোলার হোম সিস্টেম রয়েছে। এসব বিক্রি, স্থাপন ও রক্ষণাবেক্ষণে কর্মসংস্থান তৈরি হয়েছে। বাংলাদেশে প্রায় ৫৮ লাখ সোলার হোম সিস্টেম রয়েছে। এসব বিক্রি, স্থাপন ও রক্ষণাবেক্ষণে কর্মসংস্থান তৈরি হয়েছে।





সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, নির্বাহী সম্পাদক : শাহনেওয়াজ দুলাল, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে
প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ। নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]