ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা শনিবার ৩১ অক্টোবর ২০২০ ১৫ কার্তিক ১৪২৭
ই-পেপার শনিবার ৩১ অক্টোবর ২০২০

চেয়ারম্যান পদে উপনির্বাচন কাল
বাকেরগঞ্জে কাফনের কাপড় পরে  নির্বাচনি মাঠে বিএনপি প্রার্থী
প্রকাশ: সোমবার, ১৯ অক্টোবর, ২০২০, ১২:০০ এএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 10

ষ   বরিশাল সংবাদদাতা
সময় যতই ঘনিয়ে আসছে বাকেরগঞ্জের কলসকাঠী ইউনিয়ন পরিষদ উপনির্বাচনের মাঠ ততই উত্তপ্ত হয়ে উঠছে। শনিবার আওয়ামী লীগ ও বিএনপি সমর্থিত দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে উভয় দলের কার্যালয় ভাঙচুর ও আহত হওয়ার মধ্য দিয়ে ভোটের দিনের পরিস্থিতি নিয়ে উৎকণ্ঠিত ইউনিয়নের সাধারণ ভোটাররা। শুধু চেয়ারম্যান পদে ভোটগ্রহণের কারণে দলের কর্মী-সমর্থকরা সরাসরি চেয়ারম্যান প্রার্থীর গণসংযোগসহ অন্য কর্মকাণ্ড নিয়ে সারাক্ষণ ব্যস্ত। উভয় প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকদের মোটরসাইকেল মহড়ায় বিগত দিনগুলোতে নির্বাচনের মাঠ কিছুটা ঠান্ডা থাকলেও শেষ মুহূর্তে এসে উত্তাপ ছড়িয়ে যায়। তবে বাকেরগঞ্জ উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা এবং থানার ওসি নিশ্চিত করেছেন সুষ্ঠু পরিবেশে আগামীকাল ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। তারা জানান, ভোটকেন্দ্রে যেকোনো অপ্রীতিকর ঘটনা প্রতিরোধে সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। এদিকে শনিবার সন্ধ্যায় দলীয় কার্যালয়ে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর এবং ছেলে ও ভাতিজাকে কুপিয়ে আহত করার পর রোববার কাফনের কাপড় পরে নির্বাচনি অফিসে অবস্থান নিয়েছে বিএনপি মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী শওকত হোসেন হাওলাদার। রোববার সকাল ৮টা থেকে বিকাল সাড়ে ৫টা পর্যন্ত তিনি একাই নির্বাচনি কার্যালয়ে অবস্থান করেছেন।
শওকত হোসেন হাওলাদার জানান, বিএনপির নির্বাচনি অফিসে শনিবার হামলা ও ভাঙচুর চালিয়ে ওই রাতেই আওয়ামী লীগ প্রার্থী ফয়সাল ওয়াহিদ মুন্না তালুকদারের লোকজন নিজেরাই আওয়ামী লীগ অফিস ভাঙচুর করে বিএনপির শতাধিক নেতাকর্মীর নামে থানায় অভিযোগ দিয়েছে। অন্যদিকে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ফয়সাল ওয়াহিদ মুন্না তালুকদার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। তিনি বলেন, শনিবার বিএনপির লোকজন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ অফিস ভাঙচুর করেছে। এ সময় বিএনপি প্রার্থীর লোকজন বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবিও ভাঙচুর করেছে।
স্থানীয় সূত্র জানিয়েছে, উপনির্বাচনকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ এবং বিএনপি নেতাকর্মীদের এলাকা ছাড়া এবং বিএনপি প্রার্থীর কাফনের কাপড় পরে অবস্থান করার ঘটনায় এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। ভোটগ্রহণের দিন রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশঙ্কা করছেন সাধারণ ভোটাররা। বাকেরগঞ্জ থানার ওসি আবুল কালাম বলেন, শনিবার আওয়ামী লীগ অফিসে ভাঙচুরের ঘটনায় লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। নির্বাচনের মাঠ শান্ত রাখার জন্য পুলিশসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন।
বরিশাল জেলা সিনিয়র নির্বাচন অফিসার মোহাম্মাদ নূরুল আলম বলেন, দুই চেয়ারম্যান প্রার্থী তাদের নির্বাচনি অফিস ভাঙচুরের অভিযোগ দিয়েছে। আমরা তদন্তপূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেব।





সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, নির্বাহী সম্পাদক : শাহনেওয়াজ দুলাল, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে
প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ। নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]